«

»

Oct ২৬

ইসলাম গ্রহণ করার চমকপ্রদ কাহিনী

যশোহর জেলার এক অধিবাসী শ্রী জিবন চক্রবর্তী …পিতা গৌতম চক্রবর্তী। ১৯৯৬ সালের ১৪ ই নভেম্বর তারিখে ঢাকা মেট্রোপলিটনের ১ম শ্রেনী মেজিস্ট্রেটের নিকট ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। বর্তমান নাম মো: আশিকুল ইসলাম এবং উনার ইসলাম গ্রহণ করার কাহিনী নিম্নরূপ:

“আমরা ব্রাহ্মণ ছিলাম এবং আমার আম্মা সর্বদা পর্দা পালন করত। শুধুমাত্র ইসলাম ধর্মই পর্দা পালন করে তা নয়, অন্যান্য ধর্মেও পর্দা আছে যেমন খৃষ্টান ধর্ম। রাস্তা-ঘাটে চলতে গেলেও আমার আম্মা পর্দা যথাযথভাবে পালন করতেন।

১৯৯২ সালের ৮ই জানুয়ারী আম্মা মারা যান যখন আমি ৯ম শ্রেণীর ছাত্র।

ধর্মীয় অনুশাসন মোতাবেক আম্মার অন্তেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠিত হয়।

চিতায় রেখে প্রথা অনুসারে প্রথমে আমার বড় ভাই তার মুখে আগুন ধরিয়ে দিলে মার কাপড় সংগে সংগে পুড়ে যায়। যার ফলে সমস্ত শরীরের যাবতীয় অংগ প্রত্যংগ বিশ্রীভাবে ফুটে ওঠে যা বর্ণনাতীত। তখন আমার মনে প্রচণ্ড ঘৃণার উদ্রেক হয়। যিনি জীবনে কখনও অপরকে নিজের শরীর দেখাননি আজ কিনা মারা যাবার পর পরিচিত অপরিচিত সবার সম্মুখে এমন অশ্লীলভাবে তার পবিত্র শরীরের অবয়ব ফুটে উঠল। এটা কোন্‌ ধর্ম, এ কেমন অসভ্য রীতি?

এতে আমার কিশোর মনে দারুণ আঘাত হানে, ধীরে ধীরে আমি সমস্ত কিছুর ওপর বীতশ্রদ্ধ হয়ে পড়ি। মনের মধ্যে অনেক কৌতুহল দানা বেধে ওঠে।

বিভিন্ন ধর্ম নিয়ে পড়াশুনার এক পর্যায়ে আমি খেয়াল করি যে ইসলাম ধর্মে মৃত ব্যক্তিকে অতি সম্মানের সহিত (ছেলে বা মেয়ে যেই হোক না কেনো) কাপড় দিয়ে ঢেকে দাফন করা হয়।

ধীরে ধীরে আমি ইসলামের আরো অনেক সৌন্দর্যে আকৃষ্ট হয়ে পড়ি এবং অবশেষে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করি।”

১৩ comments

Skip to comment form

  1. 9
    আব্দুস সামাদ

    এটা ইসলামে পর্দার গ্রহনযোগ্যতার একটা উদাহরণ।
    যা জীবন বাবুর মুসলীম হওয়ার ওসীলা মাত্র। ধন্যবাদ

  2. 8
    সদালাপ কর্তৃপক্ষ

    আপনাদের সাথে দ্বিমত পোষণ করার অনুমতি চাইছি। এ জাতীয় লেখা বা মুসলমান হওয়ার কাহিনী অনেক আছে। একজন মুসলিম হিসেবে, লেখাটা পড়তে ভাল লাগবে কিন্তু কিছু প্রাসঙ্গিক প্রশ্ন থেকে যায়ঃ
    ১৫ বছর আগের অর্থাৎ ১৯৯৬ সালের এই ঘটনা এখন কেন আমাদের ছাপতে হবে? তখন কি কোন পত্রিকায় এটি ছাপা হয়নি বা যতখানি আলোচনা এটা নিয়ে হওয়া উচিত ছিল, সেটি হয়নি?
    এই লেখাটি কি মো: আশিকুল ইসলাম (পূর্ব নামঃ জীবন চক্রবর্তী) -এর বর্তমান কোন এক্টিভিটি বা অবস্থান বর্ণনা করছে বা তিনি মুসলিম হয়ে এখন কেমন আছেন, সে বিষয়ে কোন তথ্য দিচ্ছে?
    আমরা কি মুসলিম ও অন্যান্য ধর্মাবলম্বীদের শেষকৃত্য নিয়ে তূলনামূলক কোন আলোচনা শুরু করতে যাচ্ছি? এ লেখাটি কি তারই প্রোলগ?
    আশাকরি লেখক জনাব দেশে-বিদেশে এ ক্রিটিকটি ‘নিন্দুকেরে বাসি আমি সবার চেয়ে ভালো’- এই আলোকে নেবেন ও ভবিষ্যতে লেখায় তার নিজস্ব ছাপ রাখবেন।

    1. 8.1
      সত্তুক

      @এডমিন/এডিটর: সহমত

  3. 7
    আহমেদ শরীফ

    চমৎকার পোস্ট।

  4. 6
    সরোয়ার

    ভাল লাগল। এধরণের পোষ্ট আরো চাই।

  5. 5
    mohammad

    আসলেই চমৎকার পোষ্ট।

  6. 4
    সাদাত

    জেলার নাম যশোহর না যশোর?

    1. 4.1
      বুড়ো শালিক

      @সাদাত: সাধু ভাষায় যশোহর, চলিত ভাষায় যশোর।

      1. 4.1.1
        এস. এম. রায়হান

        @বুড়ো শালিক: স্থানের নামেরও সাধু-চলিত আছে নাকি! জানতাম না তো।

      2. 4.1.2
        শামস

        @বুড়ো শালিক:
        বাহ, দারুণতো!

  7. 3
    সাদাত

    ঘটনাটা কোথায় পেলেন জানালে লেখাটার বিশ্বাসযোগ্যতা বাড়তো।

  8. 2
    বুড়ো শালিক

    আসলে যারাই ইসলাম গ্রহণ করেছেন অন্য ধর্ম থেকে কনভারটেড হয়ে, তাদের বেশিরভাগই এরকম ছোট ছোট অথচ মনে দাগ কাটা ঘটনার প্রেক্ষিতেই তা করেছেন। রাসূলের (স) যুগেও এরকম বহু নজির পাওয়া যাবে…

  9. 1
    শাহবাজ নজরুল

    সংক্ষিপ্ত ভালো পোষ্ট…

Leave a Reply

Your email address will not be published.