«

»

Jul ২৭

কান্নার অধিকার

পড়েছি, পড়ে কেঁদেছি বহুদিন,

পড়েছি; মানুষের বেঁচে থাকার অধিকার, খাবার অধিকার, পাবার অধিকার,

শুধুই পড়েছি, পড়েছি "মানবাধিকার" মানুষের জন্য,

এখন শব্দগুলি যেন এক একটা ভয়ের নাম, যেন বাক্যের মরনাস্র,

যেন এই বাক্যগুলিই আমাদের গলায় ফাঁসির দড়ি,

কারণ জানতাম না, আমরা যে আর মানুষের সংজ্ঞায় পড়ি না।

 

কেউ কেউ কত-অধিকার প্রতিষ্টার নামে; ব্যাবসা করেন,

তারা কোথায় যে কোন-অধিকার প্রতিষ্টা করে যান, মাথায় ধরে না,

আরে ভাই, আমরা কি আর মানুষ! আমাদের মাথায় কি আর ধরবে?

অথচ শহরে শহরে আগুন জ্বলে, পুরো শহর বন্দি হয়ে থাকে,

কেমন পৃথিবীতে আমরা থাকি।

 

এখন শুধু লজ্জা হয়,

নিজেকে মনে হয় স্বার্থপর, আকর্মা,

কিছুই তো করতে পারলাম না,

অদূর ভবিষতে কিছু করতে পারবো- তারও কোন ঠিকানা নেই,

নিশ্চুপ নি:শব্দ, যেন বেঁচেও মরে থাকা,

জড় পদার্থের মত।

 

জীবনে কত কিছুই পড়লাম,

সেই প্রাইমারি স্কুল থেকে হাইস্কুল পর্যন্ত,

শিক্ষিতের খাতায় নাম লাগালাম,

সাথে পেলাম কিছু ডিগ্রি,

কিন্তু কি শিখলাম, আর কি শিক্ষা যে পেলাম,

বাস্তবতা, কি অন্য রকম?

প্রফেশনাল কাজের জন্য তৈরি হলাম,

কর্মক্ষেত্রে শিখালো বাস্তবতা অন্যরকম,

কে কত বড় অন্যায় করল এটা বিবেচ্য নয়,

দুনিয়া শিখালো, যারে সাবাই মারে, তাকে সবাই মিলে মারো,

কারণ তাকে রক্ষা করার কেউ নেই,

কেউ নেই তার পক্ষে বলার,

তাকে আঘাত করেই নিজেদের ঝাল মিটাও,

মিঠাও নিজেদের সকল না পাওয়ার বেদনা।

 

শেষ পর্যায়ে দেখি,

জীবনে শুধু আমার একটাই অধিকার আছে, -কান্নার অধিকার। 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.