«

»

Dec ৩১

শিশু জিহাদ হত্যাকাণ্ড

শিশু জিহাদ ২৬ ডিসেম্বর বিকালে ওয়াসার পরিত্যক্ত ঢাকনাবিহীন পানির পাইপে পড়ে যায় । এই পাইপটি ছিল রেলওয়েব নিয়ন্ত্রণে । বিভিন্ন মিডিয়ার খবরে জানা যায়, ব্যর্থ উদ্ধার অভিযান চলাকালে শাহাজানপুর থানা পুলিশ রাত ১২টার দিকে জিহাদের বাবাকে জোর করে ধরে থানায় নিয়ে যায় । সেখানে তাকে ১২ ঘণ্টা আটকে রেখে মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন করে এবং তাকে বলে যে, জিহাদ পাইপে নেই । তুই তাকে লুকিয়ে রেখেছিস । স্বীকার কর । স্বীকার না করলে তোকে র‍্যাবের হাতে তুলে দেবো । তাছাড়া এও বলে যে, এই অভিযানে সরকারের লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ হচ্ছে । তোকে সব টাকা দিতে হবে । পরবর্তীতে ২৭ তারিখ প্রথম আলোর একজন সাংবাদিক পুলিশের মতিঝিল বিভাগের উপকমিশনার আনোয়ার হোসেনের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান যে, জিহাদের বাবাকে মারধর করা হয়নি । তিনি আরো জানান যে, ০২টি কারণে জিহাদের বাবাকে থানায় নেয়া হয় । এর ০১টি হলো- তার নিরাপত্তা এবং আরেকটি হলো-তার অসুস্থতা ।
এখন প্রশ্ন হল-০১। তাকে নিরাপত্তা দেয়ার প্রয়োজন কি? তিনিতো চুরি ডাকাতি খুন খারাবি হাইজ্যাক রাহাজানি বা রাষ্ট্রদ্রোহিতামূলক কোন কাজ করেননি । জনগণতো তাকে মারার জন্য খোঁজেননি বা তাকে তাড়া করেননি । ০২। তিনি যদি অসুস্থ হয়ে থাকেন তাহলে তাকেতো হাসপাতালে নেয়ার কথা, থানায় নয় ।
জনগণের সাথে এ কেমন প্রতারণা, এ কেমন ধোঁকা? এরূপ প্রতারণা এবং ধোঁকার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রের বা জনগণের কি কিছুই করার নেই?

৩ comments

  1. 3
    rekhabala

    ধন্যবাদ, অনেক কিছু জানার ছিল। আমরা অনেকে অনেক কিছুই জানি না। আপনা এই পোস্টটি দ্বারা অনেকে কিছু তথ্য জানতে পারবে।আমি আপনাকে কোন প্রকার অফার করছি না। ছোট একটি তথ্য আপনার উপকারে আসতে পারে  Office Space rental

  2. 2
    আবু সাঈদ জিয়াউদ্দিন

    একে হত্যাকান্ড বলছেন কেন?

     

    এইটা একটা দূর্ঘটনা। প্রশ্ন হলো -- এইটা এড়ানো যেতো কিনা? অবশ্যই -- একটা নির্মাধীন এলাকায় সাধারনের প্রবেশ নিষেধ -- কিন্তু বাংলাদেশে কোন নির্মান নিরাপত্তা আইন আছে কিনা জানি না -- তবে এই টুকু জানি নির্মান কাজে নিরাপত্তার অভাবে অনেক মানুষ মারা যায়। 

    আর শিশুটি উদ্ধারের জন্যে উদ্ধারকারী সংস্থার আন্তরিকতা এবং প্রচেষ্টার অভাব ছিলো বলে মনে হয়নি। তবে তারা ব্যর্থ হয়েছে জীবিত উদ্ধার করতে। এইটা যতটা না তাদের ব্যর্থতা তার চেয়ে সামগ্রিক ভাবে বাংলাদেশের উদ্ধারকারী সংস্থাগুলোর সক্ষমতা এবং কারিগরী দক্ষতার অভাবই মুল কারন বলে মনে হয়েছে।

    যাই হোক -- দূর্ঘটনা ঘটতেই পারে -- কিন্তু তার প্রতিরোধ এবং প্রতিকারের বিষয়ে সক্ষমতা এবং দক্ষতা বাড়ানো জন্যে অনেক কাজ বাকী আছে।

     

  3. 1
    নির্ভীক আস্তিক

    ধন্যবাদ। পোষ্টটি আরেকটু বর্ধিত করুন। এত ছোট পোষ্ট দেখতে কেমন কেমন যেন লাগে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.