«

»

Jul ২৯

বিশ্বাসীদের অবস্থান কোথায়?

বাংলাদেশ  সহ বিশ্বের প্রতিটি মুসলিম দেশে আজ যে যুদ্ধ চলছে সেখানে বিশ্বাসীদের ভূমিকা ও দায়িত্ব কিংবা কমপক্ষে নিজেদের মানসিক অবস্থানটাও যদি সঠিক অবস্থায় না থাকে  তা হলে এর চেয়ে দেউলিয়া মুসলিম আর কে হতে পারে?

এ যুদ্ধের (১)এক পক্ষে আছে সেক্যুলার বামপন্থী ও ইসলামকে অন্যান্য ধর্মের মত একান্ত নিজস্ব ব্যক্তিগত কালচারাল বিষয়ে সীমাবদ্ধ রাখার পক্ষে যারা গতানুগতিক বস্তুতান্ত্রিক জীবনাদর্শের ও পশ্চিমা সাম্রাজ্যবাদী গুষ্টির আশীর্বাদ পুষ্ট তথাকথিত আধুনিক চিন্তাধারার অনুসারী

আর (২) অন্য পক্ষে আছেন ইসলামী মূল্যবোধ বিশ্বাসী যারা ইসলামকে নিছক একটি ধর্ম ছাড়াও জিবন ব্যবস্থা (code of life) মনে করে এবং ইসলামের সার্বজনীন আদর্শ ও ন্যায় বিচারের ভিত্তিতে রাষ্ট্রীয় ও সামাজিক ব্যবস্থায় সুশাসন প্রতিষ্ঠা করতে চান।

সেকুলার বনাম ইসলামের এ যুদ্ধে আপাতত সেকুলারদের বিজয় দেখলেও শেষ পর্যন্ত তাদের পরাজয় হবে মুসলিম দেশে যার আলামত ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গিয়েছে।

আর সে জন্য এ সেক্যুলারা ভোগছেন ভীষণ মনকষ্টে।  অবশ্য ইসলাম বিদ্ধেষী জায়নিষ্ট ও মুসলিম বিশ্বে আধিপত্য বজায় রাখতে পশ্চিমা সাম্যাজ্যবাদীরাও এখন এদের বন্ধু । তাদের আর্থিক সহায়তায় এরা এখন গড়ে তোলেছে আর্ন্তজাতিক নেটওয়ার্ক। বাংলাদেশের সেক্যুলারিষ্টদের গুরু শাহরিয়ার কবিরের সাম্প্রতিক লিখিত “ লন্ডন থেকে আঙ্কারা (দুই) জামায়াতের আন্তর্জাতিক নেটওয়ার্ক ॥ বিপন্ন ধর্মনিরপেক্ষ গণতন্ত্র"  শীর্ষক নিবন্ধটি পড়লে এ কথার ইংগিত পাওয়া যায়।

তাই মিশরের অবৈধ সামরিক সরকারের পক্ষের কিংবা তুরষ্কের কামাল আতাতুর্কের অনুসারী কিংবা বাংলাদেশের ধর্মনিরপেক্ষতাবাদী সাংবাদিক ও তথাকথিত সুশীল সমাজের বুদ্ধিজীবি এরা সবাই একই সুরে কথা বলতে দেখা যায়। মুসলিম বিশ্বের যেখানে স্বাধীনচেতা মুসলিম সরকার ক্ষমতায় সে দেশে শাহরিয়ারকে ছুটে যেতে দেখা যায় সেখানকার সরকার বিরোধী সেক্যুলার গুষ্টির কাছে। কি উদ্দেশ্যে এ ভ্রমন তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

পাঠকদের খেদমতে সেই নিবন্ধের কিছু কথা এখানে উল্লেখ করছি:

"প্রধান বিরোধী দল কামাল আতাতুর্কের অনুসারী রিপাবলিকান পিপলস পার্টির ডেপুটি চেয়ারম্যান ওসমান ফারুক পেশায় কূটনীতিক। ……….. ধর্মনিরপেক্ষ গণতান্ত্রিক তুরস্কের এক বলিষ্ঠ কণ্ঠ, ক্ষমতাসীন জাস্টিস এ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (একে.) পার্টির কঠোর সমালোচক। বাংলাদেশে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার সম্পর্কে তুরস্কের রাষ্ট্রপতির চিঠির বিষয়ে ওসমান ফারুক বললেন, আমরা পার্লামেন্টে প্রেসিডেন্টের এই অনভিপ্রেত কাজের কঠোর সমালোচনা করেছি। আমি বলেছি, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়। এ নিয়ে কোন মন্তব্য করা, বিচারের সমালোচনা করে বাংলাদেশের প্রেসিডেন্টকে চিঠি লেখা আমাদের প্রেসিডেন্টের উচিত হয়নি।  আমি জানতে চেয়েছিলাম আপনার এই বক্তব্য কি কোন পত্রিকায় ছাপা হয়েছে? ওসমান ফারুক বললেন, পত্রিকায় নিশ্চয় ছাপা হয়েছে। আপনি চাইলে আমি পার্লামেন্টের ধারাবিবরণীর কপি পাঠিয়ে দেব। এরপর তিনি সরকারের কার্যকলাপ সম্পর্কে বললেন তুরস্কের ধর্মনিরপেক্ষতা এখন বড় ধরনের হুমকির মুখে। রাজনীতি ও সমাজে ব্যাপকভাবে ইসলামীকরণ আরম্ভ হয়েছে। ক্ষমতাসীনরা তুরস্ককে অতীতের ইসলামী ধারায় নিয়ে যেতে চাইছেন। পাঠ্যসূচিতে ধর্মশিক্ষা ও কোরান বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। টেলিভিশনে ধর্মীয় অনুষ্ঠান বেড়েছে। অধিকাংশ টেলিভিশন ও সংবাদপত্র সরকারি দলের নিয়ন্ত্রণে। …….. একে. পার্টির হাইব্রিড ইসলাম তুরস্ককে কোথায় নিয়ে যাচ্ছে ভেবে আমি অত্যন্ত শঙ্কিত। আমরা ইসলামের বিরুদ্ধে নই, তবে আমি মনে করি রাজনীতিতে ধর্মের কোন জায়গা থাকা উচিত নয়।”

বাংলাদেশের বর্তমান ক্ষমতাসীনরা নিজেদেরকে মুসলিম দাবী করলেও কার্যত প্রথমোক্ত সেক্যুলার দলের অন্তর্ভুক্ত এটা এখন প্রমাণিত সত্য। বিশেষ করে হেফাজতে ইসলামের নিরীহ ইসলাম প্রিয় মানুষদের উপর শাপলা চত্তরে গণহত্যা চালিয়ে তারা সেটা প্রমাণ করে দিয়েছেন।

সবচেয়ে অবাক লাগে তারা যখন দাবী করেন তারা গণতান্ত্রিক ও অসাম্প্রদায়িক এবং ন্যায় বিচারের পক্ষে কিন্তু বাস্তবে তাদের কার্যকলাপ হচ্ছে গণতন্ত্র ও সুবিচারের বিপক্ষে। বিশেষ করে ইসলামের বিপক্ষে তাদের অবস্থান একেবারে ইসলামবিদ্ধেষীর সমান।

আবার নির্বাচনের সময় দেখা যায়  বাম, বর্ণবাদী ও তথাকথিত চেতনাধারীগণ শুরু করে আসল ধর্মব্যবসা যদিও তারা বলতে থাকেন – বাংলাদেশের ইসলাম নিয়ে যারা রাজনীতি করেন তারাই ধর্মব্যবসায়ী। কিন্তু ইসলামী দলগুলোর প্রতি তাদের এই অভিযোগ শুনা গেলেও নির্বাচন আসলে ধর্মনিরপেক্ষতাবাদীগণ টুপি পাঞ্জাবী, মাথায় হিজাব, হাতে তসবিহ, সাথে দাড়ি টুপিওয়ালা সঙ্গী, মাজারে মসজিদে, দৌড়াদৌড়ি করেন অতিভক্তি প্রকাশ করতে । কিন্তু তাদের এই কর্মকাণ্ড যে একধরনের ভণ্ডামি ও ধর্ম নিয়ে ব্যবসা নয় তা কি অস্বীকার করা যায়? তাই ফেইসবুকে এক বন্ধুকে প্রশ্ন করতে দেখি “ইসলামী দল গুলো যদি ধর্ম নিয়ে ব্যবসা করে তাহলে এরা কি ধর্ম নিয়ে প্রতারণা করছেনা?

পরিশেষে বলতে চাই সাময়িক বিপর্যয় ও বাধা বিপত্তি বিশেষ করে মুসলিমদের উপর অমানবিক অত্যাচার, অবিচার ও তথ্য সন্ত্রাস দেখে যারা ভয় পান তাদের জানা উচিৎ  অসংখ্য বাধা বিপত্তি ক্লেশ ও দুর্দশা পেরিয়ে চরম সফলতা অর্জনের যে অনুপম উদাহরণ রেখে গেছেন এ পৃথিবীতে আমাদের প্রাণপ্রিয় নবী মোহাম্মদ (স:) তা একজন মুসলিম যখন চিন্তা করে তখন তার মনে হতাশা আসার প্রশ্নই আসে না।  অতএব সে শিক্ষাকে সামনে রেখেই মুসলিমদেরকে অগ্রসর হতে হবে। তবে শুধু ঈমান আনলেই যে মুসলিম হওয়া যায় না তা আল্লাহ তা’য়ালা পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন আল কোরআনের বিভিন্ন আয়াতে। এমনি এক নির্দেশ পাওয়া যায় সুরা আল ইমরানের (সুরা: ৩) ১০২ ও ১০৩ নং আয়াতে।

“হে ঈমানদারগণ! আল্লাহকে যেমন ভয় করা উচিৎ ঠিক তেমনিভাবে ভয় করতে থাক। এবং অবশ্যই মুসলিম না হয়ে মৃত্যুবরণ করো না।”

মুসলিম না হয়ে মৃত্যুবরণ করলে যে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকায় লিপিবদ্ধ হয়ে চরম ব্যর্থতা ও নরকের আগুনে জ্বলতে হবে সে বিষয়ে বিশ্বাসীদেরকে সতর্ক করার জন্যই আল্লাহ এ আয়াত নাজিল করেছেন।

আর পরের অয়াতে মহান আল্লাহ আবার বলেও দিয়েছেন কিভাবে সে ব্যর্থতা পরিহার করা যায়।

“আর তোমরা সকলে আল্লাহর রজ্জুকে সুদৃঢ় হস্তে ধারণ কর; পরস্পর বিচ্ছিন্ন হয়ো না। আর তোমরা সে নেয়ামতের কথা স্মরণ কর, যা আল্লাহ তোমাদিগকে দান করেছেন। তোমরা পরস্পর শত্রু ছিলে। অতঃপর আল্লাহ তোমাদের মনে সম্প্রীতি দান করেছেন। ফলে, এখন তোমরা তাঁর অনুগ্রহের কারণে পরস্পর ভাই ভাই হয়েছ। তোমরা এক অগ্নিকুন্ডের পাড়ে অবস্থান করছিলে। অতঃপর তা থেকে তিনি তোমাদেরকে মুক্তি দিয়েছেন। এভাবেই আল্লাহ নিজের নিদর্শনসমুহ প্রকাশ করেন, যাতে তোমরা হেদায়েত প্রাপ্ত হতে পার।”

এই আয়াতে “তোমরা পরস্পর শত্রু ছিলে” এ কথাটা আইয়েমি জাহেলিয়াতের সময়কার আরবদের অবস্থার কথা বুঝানো হয়েছে বলে ইসলামী স্কলাররা বলেন। ইসলামের পূর্বে তাদের সমাজে পুরানো শত্রুতার জের নিয়ে যুগে যুগে চলত গ্রোত্রে গোত্রে মারারমারি কাটাকাটি ঠিক যে ভাবে আমাদের দেশে চেতনার ঠিকাদার স্বার্থন্নেষী গুষ্টি ইসলামের বিরুদ্ধে চক্রান্ত করতে গিয়ে বাংলাদেশে সে সংষ্কৃতি চালু করতে চায়! তাই কোরআনের ভাষায় বলা যায় আমরা এক অগ্নিকুন্ডের পাড়ে অবস্থান করছি। আর সেক্যুলাররা আমাদেরকে সেখানেই রাখতে চায়।

অতএব যারা বিশ্বাসী তাদের সবার উচিত বর্তমান মুসলিম বিশ্বের এই দুর্যোগময় পরিস্থিতিতে নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করা। মুসলিমদের উচিত কোন প্রকার দ্বিধা ধন্ধ পরিহার করে দ্রুত নিজেদেরকে মুসলিম নামধারী সেই পোত্তলিকতা ও সেকুল্যার জিবনাদর্শের অনুসারীদের কাছ থেকে দূরে সরে আসা এবং সমাজে ইসলামী পরিবেশ ফিরিয়ে আনার প্রচেষ্টায় লিপ্ত হওয়া।

[youtube=

 

৭৯ comments

Skip to comment form

  1. 26
    এস. এম. রায়হান

    Richard Dawkins tweeted:

    "All the world’s Muslims have fewer Nobel prizes than Trinity College, Cambridge."

    রিচার্ড ডকিন্স নিজেই যেখানে কোনো নোবেল প্রাইজ পাননি সেখানে মুসলিমদের নোবেল প্রাইজ নিয়ে হেয় করা কি চরম ইডিয়সি নয়?

    http://www.theguardian.com/science/2013/aug/08/richard-dawkins-twitter-row-muslims-cambridge

    1. 26.1
      মহিউদ্দিন

      Contemporary anti-Muslim rhetoric from politicians, media figures and New Atheist philosophers sounds almost identical to this repulsive hatemongering. Rather than being the standard bearers for enlightened liberalism as they claim, such individuals are little more than modern purveyors of the same type of bigotry, albeit with a new target in mind. Blinded by arrogance, self-assuredness and hatred, they've become exactly what they claim to stand against….<more>

       

       

  2. 25
    এম_আহমদ

    @ Kumar Mondol, following in relation to the comment no: ২১.১.১.১ and ২১.১.১.২   I knew you would come back, because the dose was heavy, more than intoxicating. Let me get on with it.   In your comment ২১.১.২ you said, “Go to any country’s official demographic website and compare these two ratios: percentage of population of Islamic faith and percentage of criminals of Islamic faith. I challenge you, go to any country where Muslims are minority and compare the ratios.”   In response (comment no, ২১.১.২.১) to it, I said, “Now, monkey, you jumped onto another branch and want to invite me to another discussion about crime and religious belief. First the manner of proposal itself suggests your ignorance. Secondly,why would anyone be interested to talk to an imbecile? But still, provide me some good impression about you that you will be able to hold good conversation on it, and even though you have an idiot in other topics, you might just do good on this. (1) Demonstrate your sociological understanding about human nature and crime, (2) about economic conditions and crimes, (3) social conditioning and crimes, (4) morality and crimes, (5) types of beliefs and morality and their relational delamination to crimes: because these will immediately pop up as the conversation starts. Take the statistics, say, of America and Saudi Arabia and relate them to the sociological frame-work as set out above. If that demonstrates that you are not an idiot at least in this field, then why not, I will talk to you. Go on money, try. (the racists and fascists are generally shallow, you wouldn’t be able to do it …” New responses 1. Now, did you respond to the items 1-5? Did you, did you? NO. Because you are a nut, you couldn’t have!  But still, unashamedly you had to come and vomit something. Are these sites “country’s official demographic website”? Are these sites the “country’s official demographic website”? You an amazing damn of a strange caste, with shameless hatred and prejudice.   2. The websites you have vomited from are Islamophobic, atheist and propagandist:  (a) theminset.wordpress (b) frontpagemag.com and (c) themuslimissue.wordpress. They are of your Daddy-men. With these you have revealed your origin. You belong to the gutter group. First citation, “France: 70% of entire nations prison inmates are Muslim – making up 12% French population”, while we see French population of 2010, 4,704,000 and Muslim percentage 7.5. Now the Frontpage:

    “Behold the erroneous misinformation factory at Front Page Mag, the online place where Islamophobes go to find spurious arguments that make them feel better about being intolerant of Muslims.” [FrontPage Magazine]

    Is that the source of your opinions? This is your ‘authority’, isn’t it? Simply get lost somewhere else. Your sources are your group, your authority is propaganda, and hatred is your religion. As a maggot, you do not know of any other sources apart from the open-toilets where you born and belong. Look at the nature of propaganda “Surat At-Tawbah 9:5 – And when the sacred months have passed, then kill the polytheists wherever you find them and capture them and besiege them”. Get lost moron, get lost. Are these sites “country’s official demographic website”? Are these? x.1, See this: http://www.muslimnews.co.uk/newspaper/home-news/draconian-anti-terror-schedule-7-powers-marginally-scaled-back/ x.2, See this: Islamophobia in France.  rel="nofollow"> x.3, See this:  rel="nofollow">   3. Prison and Religion. Let me make it simple for your imbecile mind. If 10 Hindu-Dumnas of your kind are found in a prison, what can assure me of the motivating factors behind their crime? Have they committed crimes because they are Hindus? That would be stupid, your line of argument. There can be enormous complexity and reasons behind this. If they are a group within a Hindu hating majority, then there could be elements in existence of repression from the authority; there might be presence of elements of victimisations by accusers and judicial prejudices. If a small minority is discriminated in education, employment and they face institutional marginalisation, this can translate, in long run, into their crimes and delinquencies. The second range of enquiry will engage crime and faith, which is the most complicated area. In case of Muslims, (and so it will equally extend to others), simply a religious tag is neither here nor there. ‘Muslim’ (or Hindu) is not a meaningful variable to undertake an informed analysis. There are those among them who are ultra-secular, secular, Muslims by name, those who have no knowledge of Islam, those who have, those who practice Islam, those who do not practice. Then there are the issues of education, economy, and their social relations to external communities.   Monkey-boy, these are not simple things. Like a maggot you are living in open sanitation, in association with other maggots, the Islamophobists, that’s your world. You will always swallow the garbage, and always be persuaded by propagandists –that’s the reality, maggots among maggots. This topic is an expert area, monkey-boy; in the name of ‘governments official websites’ , you have swallowed stuff of the sanitation, propaganda of the maggots (Islam haters)   (4) Now, let me address a few more of the hate-material you cited. First, India.

    News from NewIndPressGulf Daily News and Associated Press via the Daily Times and the International Herald Tribune reports that a study of prison populations in India has shown that there are disproportionate numbers of Muslims behind bars. The information comes in a document published on Sunday, extracted from a review of an Indian government study of Muslim welfare by the Justice Rajinder Sachar committee. India’s population is 80% Hindu, and the remaining population is 13.4% Muslim and 2.4% Christian. Yet prison statistics show that this ratio is not preserved in India’s jails.

    You have inadvertently cited evidence of Muslim harassment under Indian authorities. Previously I have cited the racist and fascist attitudes of Hindus who think ill of the Muslims, as you do, they discriminate Muslims in education, housing, employment and keep them under repression and as underdogs. The Muslims are willy-nilly arrested, charged and imprisoned. This speaks volumes against the horrendous state under which the Muslims live in India. I cited a video earlier, which state, among other things, police harassment, arrests and imprisonment of Muslims. You didn’t see that, did you? Because your kind is blinded by prejudices and hatred.  Your educational text books (remember what you told us what your textbooks about Muslims and their history and role?) caricature Muslims rule in India, institutionally marginalise them and you are programmed to be anti-Muslim. You swallow stuff from anti-Islamic sources and vomit them out to Muslims. You are the example, monkey-boy!   The evidence against you had stared at you but you have been a fool. See them again.   rel="nofollow"> http://infochangeindia.org/human-rights/analysis/persistent-exclusion-of-muslims-in-india.html http://www.islamawareness.net/Asia/India/muslims_in_india.html http://www.thenational.ae/news/world/south-asia/muslims-in-india-victims-of-social-segregation http://www.indianexpress.com/news/-i-was-discriminated-against-because-i-am-muslim-/1085223/   5. The relation of crime and faith is not a straight forward thing, monkey-boy. This is why I set-out the issues in my comment ২১.১.২.১, they were preconditions for a meaningful sociological understanding and interpretation of statistics. You came back unashamedly without addressing the items. To start a conversation about crime and religion there come enormous complexities and such complexities can always remain beyond the grasp of thick-headed idiot like you. Now your California case:

    In California, the state Department of Corrections and Rehabilitation confirms that of 166,000 inmates in the state, about 10,000 of these are Muslim. The majority of these are Sunni Muslims. This too coincides with the 6% figure found in the rest of the general prison population.

    (a) The total inmates have been of what variables crimes? (b) Is the nature of all crime the same? (c) What proportions ranged from petty to serious? (d) What is the breakdown of the population of California? (e) What were the economic group of all the inmates? (f) Which areas (in terms of affluence/poverty) of California do they come from? (g) What are the social conditionings that they were living and the crimes committed?  (h) Are there elements in them of victimisation for being Muslims and elements of draconian measures of state and judiciary? Has there been any in-depth study around it? (i) If so what methodology was used to identify the relation between crime and faith? These issues are fundamental to such understanding and I told you this before. But you have been a stupid, more like wild boar, which moves in one direction. In the name of ‘government official websites’ you vomited manipulated information which do not provide essential background information or understanding, but makes fascists and racists propaganda about Muslims and Islam.

      There is another possible [?] reason for the spread of Islam in jail, which would also explain [?] why so many Muslims end up in jail, … the obvious and unifying factor –Islam, and its belief that “kaffirs” are inferior. .. As Mohammed himself (in Sura 8 – the “spoils of war”) engaged in caravan raids and also acts of violence – what better example is there to legitimize one’s progression through life by “raiding” from shops, automobiles and citizens?

    6. Monkey boy, the concluding sentences say it all! These are “findings” of the monkey-boys. Is that what you brought here? The garbage from open-toilets! Are these your “scientific” “logical” stuff? Someone commits a crime in Saudi Arabia because of Sura 8, of spoils of war? Muslims commit crimes against Muslims because of the verse? Many a Muslim never studies the Quran but still he commits a crime for this verse? Get lost, moron, get lost, fascist Dumna! You are like a shameless prostitute who is being told to get lost, because no one likes such animals, yet putting different make-up on the prostitute returns only to be shouted off by the locals. Go away! Run! With this level of low human esteem, you think for yourself of some ‘dignity’? What dignity? What dignity is there in holding sweeping damn opinions against a race, a nation, a people? What dignity and ignorant fascist can expect?     7. With the reference of the 3 websites, you have now totally revealed your ugly face. You say (in Raihan’s blog) your religion doesn’t have any concern for God, or gods, yet for mythical story of the Rama’s birth in Ayodia, the lunatics brought the Babri Mosque down to rabbles! Tolerance, isn’t it, Moron? God/Gods are not of concern in your religion, yet Buddhists have been exterminated by Hindus. (Persecution of Buddhists by brutal Hindu Pagans. http://themuslimissue.wordpress.com/ rel="nofollow">) Before converting to Buddhism Asoka massacred people, the Dravidians, in Kalinga. How peaceful! Again, the concept about God (s) is a matter of indifference, but in many provinces of India Muslims are not allowed to slaughter cow, holy isn’t it? Gods are not of much concern, yet over 12 months more than 13 parbans occur! ‘Hindus do not have to practice or follow any specific rituals if they choose so’ yet rituals pervade Hindu life from birth, death, creation, puja, marriages! What religion do you belong to? Is it a religion? ‘Hindus do not have to practice rituals’, but rituals are around idols, in temples, in worshipping, bathing into the polluted water of Ganges! Rituals are practiced in marriage, in birth, in death, in cremation. Consenting adults can ‘also’ have sex, without the rituals of marriage, it’s fine -the Dev-Devis had done so in tons. It’s love and lovable creativity. The Gupas had ta name for themselves for the art of kamsutra; naked deities curved in stones in erotic states still inform the adherents of the holy postures! These can be narrated endlessly. Opps, God or gods are not so important as a concept, but the great penis! The One of Shiba! Barren women conceive by the touch of it!   Your religion is indifferent about God, indifferent about rituals, indifferent about much of general morality –what is religion then? Spineless, and having spineless morons!  As Hindu you can remain stupid of your scripture, without knowing anything about the scriptural view of the creation, yet you assume every Muslim knowing about the scripture and committing crime for a Quranic verse! Moron! You see everything wrong in others’ religion, but never pondered to see what lies under the nose.  

    11. Muslim scientist/Richard Dawkins.

    You have been vomiting the stuff about Muslim scientists here since last few days. What Richard Dawkins excretes, your lot swallow. Your point about Muslim scientists comes from the stuff that you eat of Dawkins. A college boy comes here to discuss his phobia and to argue with matters he swallows from the Islam haters!  What a nut! You cherish a hidden wish for ‘respect’ for hatred? For prejudice and ignorance? For propaganda and lies? For spreading fascism and ignominy? Get lost monkey-boy!    12. FINALLY, if you want to redress the items, read all with its entirety (all items, of now and earlier, are numbered) and address them. Do not pick a tiny bit, and start jumping like a monkey. If you still like to make a case for ‘crime and religion’ then bring your “official demographic website” info and make meaningful social interpretations. This is a heavy task. I told you before, idiots of your type cannot do these, because these studies are time consuming and they require expertise to which you are an imbecile!

  3. 24
    এম_আহমদ

    @ Kumar Mondol, following in relation to the comment no: ২১.১.১.১ and ২১.১.১.২ (1) I knew you would come back, because the dose was heavy, more than intoxicating. Let me get on with it. (2) In your comment ২১.১.২ you said, “Go to any country’s official demographic website and compare these two ratios: percentage of population of Islamic faith and percentage of criminals of Islamic faith. I challenge you, go to any country where Muslims are minority and compare the ratios.” (3) In response (comment no, ২১.১.২.১) to it, I said, “Now, monkey, you jumped onto another branch and want to invite me to another discussion about crime and religious belief. First the manner of proposal itself suggests your ignorance. Secondly, why would anyone be interested to talk to an imbecile? But still, provide me some good impression about you that you will be able to hold good conversation on it, and even though you have an idiot in other topics, you might just do good on this.  (1) Demonstrate your sociological understanding about human nature and crime, (2) about economic conditions and crimes, (3) social conditioning and crimes, (4) morality and crimes, (5) types of beliefs and morality and their relational delamination to crimes: because these will immediately pop up as the conversation starts. Take the statistics, say, of America and Saudi Arabia and relate them to the sociological frame-work as set out above. If that demonstrates that you are not an idiot at least in this field, then why not, I will talk to you. Go on money, try. (the racists and fascists are generally shallow, you wouldn’t be able to do it …” New responses (4) Now, did you respond to the items 1-5? Did you, did you? NO. Because you are a nut, you couldn’t have!  But still, unashamedly you had to come and vomit something. Are these sites “country’s official demographic website”? Are these sites the “country’s official demographic website”? You an amazing damn of a strange caste, with shameless hatred and prejudice. (5) The websites you have vomited from are Islamophobic, atheist and propagandist:  (a) theminset.wordpress (b) frontpagemag.com and (c) themuslimissue.wordpress. They are of your Daddy-men. With these you have revealed your origin. You belong to the gutter group. First citation, “France: 70% of entire nations prison inmates are Muslim – making up 12% French population”, while we see French population of 2010, 4,704,000 and Muslim percentage 7.5, http://en.wikipedia.org/wiki/Islam_by_country. Now the Frontpage:

    “Behold the erroneous misinformation factory at Front Page Mag, the online place where Islamophobes go to find spurious arguments that make them feel better about being intolerant of Muslims.” http://www.islamophobiatoday.com/2011/07/02/frontpage-muslim-bashing-authority-can%E2%80%99t-do-a-two-second-google-search/ [FrontPage Magazine]

    Is that the source of your opinions? This is your ‘authority’, isn’t it? Simply get lost somewhere else. Your sources are your group, your authority is propaganda, and hatred is your religion. As a maggot, you do not know of any other sources apart from the open-toilets where you born and belong. Look at the nature of propaganda http://themuslimissue.wordpress.com/ “Surat At-Tawbah 9:5 – And when the sacred months have passed, then kill the polytheists wherever you find them and capture them and besiege them”. Get lost moron, get lost. Are these sites “country’s official demographic website”? Are these? x.1, See this: http://www.muslimnews.co.uk/newspaper/home-news/draconian-anti-terror-schedule-7-powers-marginally-scaled-back/ x.2, See this: Islamophobia in France. rel="nofollow"> x.3, See this: rel="nofollow"> (6) Prison and Religion. Let me make it simple for your imbecile mind. If 10 Hindu-Dumnas of your kind are found in a prison, what can assure me of the motivating factors behind their crime? Have they committed crimes because they are Hindus? That would be stupid, your line of argument. There can be enormous complexity and reasons behind this. If they are a group within a Hindu hating majority, then there could be elements in existence of repression from the authority; there might be presence of elements of victimisations by accusers and judicial prejudices. If a small minority is discriminated in education, employment and they face institutional marginalisation, this can translate, in long run, into their crimes and delinquencies. The second range of enquiry will engage crime and faith, which is the most complicated area. In case of Muslims, (and so it will equally extend to others), simply a religious tag is neither here nor there. ‘Muslim’ (or Hindu) is not a meaningful variable to undertake an informed analysis. There are those among them who are ultra-secular, secular, Muslims by name, those who have no knowledge of Islam, those who have, those who practice Islam, those who do not practice. Then there are the issues of education, economy, and their social relations to external communities. Monkey-boy, these are not simple things. Like a maggot you are living in open sanitation, in association with other maggots, the Islamophobists, that’s your world. You will always swallow the garbage, and always be persuaded by propagandists –that’s the reality, maggots among maggots. This topic is an expert area, monkey-boy; in the name of ‘governments official websites’ , you have swallowed stuff of the sanitation, propaganda of the maggots (Islam haters)   (7) Now, let me address a few more of the hate-material you cited. First, India.

    News from NewIndPressGulf Daily News and Associated Press via the Daily Times and the International Herald Tribune reports that a study of prison populations in India has shown that there are disproportionate numbers of Muslims behind bars. The information comes in a document published on Sunday, extracted from a review of an Indian government study of Muslim welfare by the Justice Rajinder Sachar committee. India’s population is 80% Hindu, and the remaining population is 13.4% Muslim and 2.4% Christian. Yet prison statistics show that this ratio is not preserved in India’s jails.

    You have inadvertently cited evidence of Muslim harassment under Indian authorities. Previously I have cited the racist and fascist attitudes of Hindus who think ill of the Muslims, as you do, they discriminate Muslims in education, housing, employment and keep them under repression and as underdogs. The Muslims are willy-nilly arrested, charged and imprisoned. This speaks volumes against the horrendous state under which the Muslims live in India. I cited a video earlier, which state, among other things, police harassment, arrests and imprisonment of Muslims. You didn’t see that, did you? Because your kind is blinded by prejudices and hatred.  Your educational text books (remember what you told us what your textbooks about Muslims and their history and role?) caricature Muslims rule in India, institutionally marginalise them and you are programmed to be anti-Muslim. You swallow stuff from anti-Islamic sources and vomit them out to Muslims. You are the example, monkey-boy! The evidence against you had stared at you but you have been a fool. See them again. [youtube=

    <iframe width="640" height="360" src="http://www.youtube.com/embed/4yrzKElxFn4?feature=player_detailpage" frameborder="0" allowfullscreen></iframe>

     

     

    http://infochangeindia.org/human-rights/analysis/persistent-exclusion-of-muslims-in-india.html http://www.islamawareness.net/Asia/India/muslims_in_india.html http://www.thenational.ae/news/world/south-asia/muslims-in-india-victims-of-social-segregation http://www.indianexpress.com/news/-i-was-discriminated-against-because-i-am-muslim-/1085223/   (8) The relation of crime and faith is not a straight forward thing, monkey-boy. This is why I set-out the issues in my comment ২১.১.২.১, they were preconditions for a meaningful sociological understanding and interpretation of statistics. You came back unashamedly without addressing the items. To start a conversation about crime and religion there come enormous complexities and such complexities can always remain beyond the grasp of thick-headed idiot like you. Now your California case:

    In California, the state Department of Corrections and Rehabilitation confirms that of 166,000 inmates in the state, about 10,000 of these are Muslim. The majority of these are Sunni Muslims. This too coincides with the 6% figure found in the rest of the general prison population.

    (a) The total inmates have been of what variables crimes? (b) Is the nature of all crime the same? (c) What proportions ranged from petty to serious? (d) What is the breakdown of the population of California? (e) What were the economic group of all the inmates? (f) Which areas (in terms of affluence/poverty) of California do they come from? (g) What are the social conditionings that they were living and the crimes committed?  (h) Are there elements in them of victimisation for being Muslims and elements of draconian measures of state and judiciary? Has there been any in-depth study around it? (i) If so what methodology was used to identify the relation between crime and faith? These issues are fundamental to such understanding and I told you this before. But you have been a stupid, more like wild boar, which moves in one direction. In the name of ‘government official websites’ you vomited manipulated information which do  not provide essential background information or understanding, but makes fascists and racists propaganda about Muslims and Islam.

      There is another possible [?] reason for the spread of Islam in jail, which would also explain [?] why so many Muslims end up in jail, … the obvious and unifying factor –Islam, and its belief that “kaffirs” are inferior. .. As Mohammed himself (in Sura 8 – the “spoils of war”) engaged in caravan raids and also acts of violence – what better example is there to legitimize one’s progression through life by “raiding” from shops, automobiles and citizens?

    (9) Monkey boy, the concluding sentences say it all! These are “findings” of the monkey-boys. Is that what you brought here? The garbage from open-toilets! Are these your “scientific” “logical” stuff? Someone commits a crime in Saudi Arabia because of Sura 8, of spoils of war? Muslims commit crimes against Muslims because of the verse? Many a Muslim never studies the Quran but still he commits a crime for this verse? Get lost, moron, get lost, fascist Dumna! You are like a shameless prostitute who is being told to get lost, because no one likes such animals, yet putting different make-up on the prostitute returns only to be shouted off by the locals. Go away! Run! With this level of low human esteem, you think for yourself of some ‘dignity’? What dignity? What dignity is there in holding sweeping damn opinions against a race, a nation, a people? What dignity and ignorant fascist can expect?   (10) With the reference of the 3 websites, you have now totally revealed your ugly face. You say (in Raihan’s blog) your religion doesn’t have any concern for God, or gods, yet for mythical story of the Rama’s birth in Ayodia, the lunatics brought the Babri Mosque down to rabbles! Tolerance, isn’t it, Moron? God/Gods are not of concern in your religion, yet Buddhists have been exterminated by Hindus. (Persecution of Buddhists by brutal Hindu Pagans rel="nofollow">) Before converting to Buddhism Asoka massacred people, the Dravidians, in Kalinga. How peaceful! Again, the concept about God (s) is a matter of indifference, but in many provinces of India Muslims are not allowed to slaughter cow, holy isn’t it? Gods are not of much concern, yet over 12 months more than 13 parbans occur! ‘Hindus do not have to practice or follow any specific rituals if they choose so’ yet rituals pervade Hindu life from birth, death, creation, puja, marriages! What religion do you belong to? Is it a religion? ‘Hindus do not have to practice rituals’, but rituals are around idols, in temples, in worshipping, bathing into the polluted water of Ganges! Rituals are practiced in marriage, in birth, in death, in cremation. Consenting adults can ‘also’ have sex, without the rituals of marriage, it’s fine -the Dev-Devis had done so in tons. It’s love and lovable creativity. The Gupas had ta name for themselves for the art of kamsutra; naked deities curved in stones in erotic states still inform the adherents of the holy postures! These can be narrated endlessly. Opps, God or gods are not so important as a concept, but the great penis! The One of Shiba! Barren women conceive by the touch of it! Your religion is indifferent about God, indifferent about rituals, indifferent about much of general morality –what is religion then? Spineless, and having spineless morons!  As Hindu you can remain stupid of your scripture, without knowing anything about the scriptural view of the creation, yet you assume every Muslim knowing about the scripture and committing crime for a Quranic verse! Moron! You see everything wrong in others’ religion, but never pondered to see what lies under the nose.   (11) Muslim scientist/Richard Dawkins. http://www.theguardian.com/science/2013/aug/08/richard-dawkins-twitter-row-muslims-cambridge You have been vomiting the stuff about Muslim scientists here since last few days. What Richard Dawkins excretes, your lot swallow. Your point about Muslim scientists comes from the stuff that you eat of Dawkins. A college boy comes here to discuss his phobia and to argue with matters he swallows from the Islam haters!  What a nut! You cherish a hidden wish for ‘respect’ for hatred? For prejudice and ignorance? For propaganda and lies? For spreading fascism and ignominy? Get lost monkey-boy!  (12) FINALLY, if you want to redress the items, read all with its entirety (all items, of now and earlier, are numbered) and address them. Do not pick a tiny bit, and start jumping like a monkey. If you still like to make a case for ‘crime and religion’ then bring your “official demographic website” info and make meaningful social interpretations. This is a heavy task. I told you before, idiots of your type cannot do these, because these studies are time consuming and they require expertise to which you are an imbecile!

    1. 24.1
      kumar mondol

      This is my last response to you. You are really an uncivilized person addressing other commentator in a very insulting tone. Since you inacapable of writing a sentence without insulting other,  I do not want to engage you any more.  You know that when you can not refute empirical evidence, you pound on the table. That is what you are doing now. Bottom line is that Islam was  a invading force to India. It is not an indigenous religion. So, it should go back where it came from. Look you had a separate country in 1947, but you can not live together. You blame Indian for everything. But we are native to thsi land,and you are the foreigner who came from Arab. You also want to assimilate with Arabic culture. So, it is best for you people to go back to Arab. Leave our native land.

       When I cite the statistics about decline of Hindu population in Pakistan from 1947 to 2010 (from 23 % to 2%), in Bangladesh (from about 33% to 8%), you resort to some cock and bull story about it. Then tried to show that Hindus being 7% of population occupy 42% of the employment in Bangladesh, are not that bad.

      You are talking about one Babri Masjid? How many temples have been destroyed in Pakistan and Bangladesh since 1947? You can not count them. So, do not try to go to that route and pretend that Bangladesh and Pakistan is more tolerant towards non muslims.

      You cite Sachar committee report in India, how Indian Muslims are discriminated. Look, we have set up a committee to look into the problem, possibly will try to address the problems. But you do not even have a committee yet to look into the problems, because you do not admit it. But by constitution, Bangladesh  and Pakistan are Islamic countries, and state religion is Islam. So, by this mere definition non Muslims are second class citizens. And you try to drive out other people to make your country more Muslims. Right now Bangladesh is 90% Muslim, Pakistan is almost 96%. What more do you want? It is still going on in other countries.  For your reading here is a book. See how Muslims are driving the Christians out from Iraq, Egypt and many other places.

      A Christian Exodus

      For hundreds of years, Copts made up roughly 15% of Egypt's population. Since the Arab Spring, more than 100,000 have left.

      Website: http://online.wsj.com/article/SB10001424127887324522504579000593633945778.html

      Regarding criminal activities, I do not go into the reasons behind such actions, I am not a social philosophers. I look at the evidence. Just look around yourself. Throughout the whole world, just count the terrorist activities, bombing, killing etc that are going on. You will always find on group people is involved. Also the ratio that I cited are hard facts. Did you go to any country’s website and found that the ratio I have cited are incompatible? Please show me the evidence.

      You are like other guy, when I cite evidence, you do not address the evidence, rather invent something else to avoid that. When I cited the Hindu names of the Nobel prize winners, his question is “do they really practice hinduism in their daily life”. Man,  give me a break.

      In the end, the truth about Islam is far more damning than any lie one could tell.

      1. 24.1.1
        এস. এম. রায়হান

        Bottom line is that Islam was  a invading force to India. It is not an indigenous religion. So, it should go back where it came from… But we are native to thsi land,and you are the foreigner who came from Arab.

        You are threatening Muslims to go back to Arab? Otherwise you will kill all Muslims? You have clearly shown your Hindutva terrorist mindset here. Are you a Bangladeshi or an Indian?

        Do you have any proof that you are a native to Indian land? Could it be that your forefather came from other land? Or, your near-forefather was a cross-product of a Christian and a Muslim?

        See how Muslims are driving the Christians out from Iraq, Egypt and many other places.

        Do you consider yourselves a slave of Christians? Otherwise, why are you bringing Christian issue here? Do you think Christians are dumb and they can't speak for themselves?

        When I cited the Hindu names of the Nobel prize winners, his question is “do they really practice hinduism in their daily life”

        Liar, in broad day light. Cunning Hindus can easily lie as their most sacred religious book Gita did not condemn for telling lie. Nowhere in my post did I say, “do they really practice hinduism in their daily life.” Rather contrary to your claim, I have in fact shown that you lied about them, and proved that they were atheist and agnostic.

        So far you have proved yourself a useful idiot, a hypocrite, a Hindutva-minded terrorist, and a liar so many times. You moron has also a nasty habit of putting your own words into others' mouth. Get some lesson from America and then come to debate with Muslims. Otherwise, your Hindutva mind can't do anything except threatening Muslims to kill.

        1. 24.1.1.1
          Kumar Mondol

          You comment was " Do you think 'Indian' or 'Hindu sounding name' means the believer of Hinduism? " How do you figure out somebody’s belief? As a neutral person,  It  can only  be manifested (or obsrved) by his religious practice? Is not it? Smart Alec!

      2. 24.1.2
        এম_আহমদ

        Oi fascist, every time you came back it was your  ‘last comment’ or a ‘last sentence’! A Hitler, thinking of Muslims as killers, criminals, motivated by Quran in crimes, and tons of prejudices received through education and institutionalisation! Having slapped for the ugly lies you cry, a baby, of civility, and insult! You talk of the demographic changes of the subcontinent attributing x% reduction here and x% reduction there for Muslims as emanating from the Quran, having no knowledge of the relations of stats and their relations to social life; the background and causes. Without these that sounds to you evidence! Stupid boy!

        You come to argue with social sciences’ issues as a fool. And having had slaps for not understanding the relation (between crimes and faith), you cry, “Regarding criminal activities, I do not go into the reasons behind such actions, I am not a social philosophers.” What a moron! You are not a social philosopher, not a social scientist, your mind doesn’t go behind criminal factors, statistics and social relations, yet unashamedly, like a wild boar, you say  “I look at the evidence”!

        Yea, the ‘evidence’ that you cannot understand, cannot interpret; the evidence whose relation to social causes you don’t understand! But like a nut, you would say, ‘I have given evidence!’ Opps, ‘empirical’! Get lost, monkey: racist!

        When was there an exodus of Hindus from Bangladesh over the last four decades? Asked again and again, the chicken hide away only to come at the second or third comment to say, ‘I g-a-v-e you e-vi-de-n-ce’, ‘e-m-p-i-r-i-c-a-l’, stupid moron. 2001-2006, exodus? You have NOT been able to produce any meaningful evidence, except some lies and stupidity. Simply X population is lower than Y population is not an ‘evidence’ of persecution, but this is your evidence moron, get lost, this is stupid, not facts! Let alone hard facts.

        Manipulated information by atheist propaganda sites, stripped off from vital background, from methodological information becomes the stupid’s hard evidence: such and such jail has x% of Muslims, therefore the crime was related to their faith their scripture, stupid, moron, stupid -this is not evidence, this is ignorance. You need your head examined for your confusion.

        You don’t even understand the basis of an argument. Bari Mosque was cited in reference to you view that in Hinduism’s belief in God/gods are not important (simply the position is indifferent!), if it was so stupid, the question was why the Mosque had to be destroyed, when your Hindu position was indifferent? But you responded saying how many temples where destroyed in Bangladesh and Pakistan, as if the reason for Babri Mosque was a vendetta! Stupid Moron! You don’t even understand the distinction in the argument. With such a stupid head you come to speak here! Idiosyncrasies become your evidence.     

        The indigenous population of India was the Dravidians, the progeny of those who built the Harappa and Mohenjo-Daro, not the invading Aryans, the Brahmins. The invading Muslims and those who converted from the filthy religions to Islam were of the same blood. The Aryans of the Hitler-blood, remained fascists till this day and so you are. You want to see Muslims driven out of India. Fascist fool! Your age hasn’t even made you a human being as yet. Get lost.

  4. 23
    মহিউদ্দিন

    @K Mondol,   Check this out    

     

     

    http://www.shodalap.org/wp-content/uploads/2013/08/ksavsusa1.gif

    1. 23.1
      Kumar Mondol

      I did not ask him to compare the crime status. You can not compare USA with Saudi Arabia.  But, if  you do, compare the perctage of criminals (nonmuslims as percetntage of total ciminals) in Saudi Arabia and pecentage of criminals (muslims as percentage of toral criminals) in USA. You may also compare Saudi Arabia with U.K. ,France, Germany, Italy and many many OECD countrues. Then discuss about these Statistics.

  5. 22
    মহিউদ্দিন

    @ Kumar Mondol : আপনি নিজেকে হিন্দু ধর্মের অনুসারী বলেছেন এবং  বলেছেন যে প্রত্যেকে তার নিজ ধর্মকে ভাল বলবে। তারপর লিখেছেন" (Any religious person will claim that his religion is the best among others (othrewise he will not follow that religion).

    "I want to evaluate religion in terms over all benefits to humanity.  Christians from the 14th century has been instrumental in many path breaking inventions, instutional changes and others  that have benefited the entire mankind. People belonging to other religin such as Islam and Hinduism, Buddhism(except Judaism) come nowhere near to that." অর্থাৎ "আমি ধর্ম মানুষের কি উপকারে এসেছে সে বাপরে evaluate করতে চাই।"

     ব্যাপার হচ্ছে evalute যদি সত্য সন্ধানে করে থাকতেন তাহলে ভাল হত। কিন্তু আপনি করে যাচ্ছেন ইসলাম বিদ্বেষী মন নিয়ে  আপনার বক্তব্যই তা প্রমাণ করে।  আপনার দৃষ্টিতে "১৪শ শতাব্দী থেকে ক্রিশ্চিয়ানরা মানব জাতীর কল্যাণে বিশেষ করে বিজ্ঞান প্রযুক্তিতে বিভিন্ন আবিষ্কার ও সৃষ্টিতে যে অভূতপূর্ব সফলতা অর্জন করেছে সে তুলনায় অন্যান্য ধর্মের অনুসারীরা such as Islam and Hinduism, Buddhism(except Judaism) তাদের ধারে কাছেও আসতে পারবে না।" এখানে দেখা যায়  ইসলামকে কিভাবে হেয় করা যায় সে ব্যর্থ অপচেষ্টা করেছেন। আপনার ধর্মকে ও সেই সাথে বেচারা ইসলামকেও আপনি ইহুদী ক্রিষ্টান ধর্ম থেকে মানবতার কল্যাণে তথা বস্তুতান্ত্রিক জীবনের বিজ্ঞান প্রযুক্তিতে অনেক পিছনে এবং ব্যর্থ বলতে চাচ্ছেন! ভাল কথা কিন্তু আপনি যে লিখলেন "প্রত্যেকে তার নিজ ধর্মকে ভাল বলবে"। (Any religious person will claim that his religion is the best among others (othrewise he will not follow that religion). সে কথার প্রতিফলন তো দেখছি না? দাদা, আপনি হিন্দু হন আমার কিছু যায় আসে না আমার অংক শিক্ষক হিন্দু ছিলেন, হিন্দু রুমমেট ছিলেন। ২০০০ সালে Las Vegus এ কেদার দা ও আমি একি এপার্টমেন্টে থাকতাম আমার রান্না হালাল চিকেন ওনি খেতেন তাঁর রান্না মাছ ভাত, সবজী ডাল অনেক খেয়েছি। কিন্তু কোন ইসলাম বিদ্বেষীকে আমি সহ্য করতে পারিনা।  তবে আপনি যে একজন ইসলাম বিদ্বেষী তা কিন্তু প্রমাণ করে দিয়েছেন। এবার আসুন মুসলিমরা বিজ্ঞানে পিছিয়ে আছে বলে যে "দুশ্চিন্তায়" আছেন সে ব্যাপারে আলোকপাত করা যাক। প্রথমত: "১৪শ শতাব্দী থেকে" ইসলাম পিছিয়ে বলে যে তথ্য দিয়েছেন সেটা সঠিক নয়। আধুনিক  পশ্চিমা বিশ্ব নিজেরাই দাবী করে যে বর্তমান বিজ্ঞানের ক্ষেত্রে তাদের এ অগ্রযাত্রার জন্য তারা মুসলিম সভ্যতার কাছে ঋণী। rel="nofollow"> এখন প্রশ্ন হল যে মুসলিমরা ইসলাম ধর্মের অনুসারী হওয়া সত্ত্বেও একসময় ইউরোপীয় ক্রিষ্টান সভ্যতার চেয়ে অগ্রগামী ছিল কিন্তু এখন কেন পিছনে? সে প্রশ্নের উত্তর পেতে হলে আগে আপনাকে ইসলাম বিদ্বেষীর অবস্থান থেকে সরে এসে সত্যিকার মানবতার গুণের মানুষের কাতারে আসতে হবে। তখন আপনার বিবেক স্পষ্ট দেখতে পাবে কেন গত দুটা বিশ্ব যুদ্ধে মিলিয়ন মিলিয়ন মানুষ হত্যা করে কারা মানবতার কল্যাণ করেছে? কারা ভারতে হিন্দু মুসলিম দাঙ্গা বাধিয়ে মানুষ হত্যার হুলি খেলে, কারা জাপানে হিরোশিমা নাগাশিকায়ে এটোম বোমা ব্যবহার করে বিজ্ঞান ও প্রগতির এবং পৃথিবীতে শান্তি প্রতিষ্ঠার সফলতা দাবী করে? কারা কি স্বার্থে মুসলিম বিশ্বের সম্পদ লুঠতে বিভিন্ন কলাকৌশলে ব্যস্ত? একিভাবে বাংলাদেশকে কারা তাদের আধিপত্যের পাথর চাপা দিতে বাংলার কিছু ফ্যসিষ্টদেরকে সব ধরনের সাহায্য সহযোগীতা দিবার চক্রান্তে দিবারাত্র ব্যস্ত? কারা হেফাজতের নিরিহ মানুষকে হত্যাকরে মিথ্যাচার প্রচারে ব্যস্ত? আধুনিক  "সভ্যতার" তথাকথিত এ প্রগতির ধ্বংসে ইসলামের বিশ্বজনীন ন্যায়নীতি, মানবতা ও আদর্শকে কেন  ইউরোপরে সেই অন্ধকার যুগের ক্রিষ্টান মৌলবাদীর সাথে মিলিয়ে দিতে মেইনস্ট্রিম মিডিয়া এত ব্যস্ত? Success in sicence does not necessarily means "all benefits to humanity" as you mentioned. Thechnology and Science are mere tools. What matters is how these tools are being used?

     Second point I tried to make that how Islam treats  other religion in their own domain and I raised the issue of Emigration and Immigration. The problem with you is that you do not debate these points, rather avoid it and engage in convoluted arguments.

    ২য় পয়েন্টের জবাব হচ্ছে মুসলিম সভ্যতার ইতিহাসের বাস্তবতা উপেক্ষা করে মিথ্যা বলে ইসলাম বিদ্বেষী মানসিকতার বহি:প্রকাশ । Man, you are full with Islamophobia! ইতিহাস সাক্ষী দেয় ইসলামের হার্টল্যন্ড আরব বিশ্বে মুসলিম,ইহুদী, ক্রিষ্টানসহ একে অন্যের প্রতিবেশী হিসাবে যুগ যুগ ধরে বসবাস করে আসছে।  দূরে যেতে হবে না,  মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ বাংলাদেশের উদাহরণ দেখেন ইংরেজ চলে যাওয়ার পর থেকে ভারতের তুলনায় পুলিশের ছত্রছায়ায় বাংলাদেশে গণহারে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা কয়টি হয়েছে? ভারত মুসলিমদের শাসনে ছিল ৮শত বছর মুসলিমরা অন্য ধর্মের হুমকি(Islam treats  other religion) হলে তে হিন্দু সংখ্যাগরিষ্ঠ থাকার কথা ছিল না। অতএব "issue of Emigration and Immigration" আসল কোথা থেকে? বটম লাইন, ইন্টারনেটে ইসলাম সম্পর্কে এবং জ্ঞানবিজ্ঞানে তথা আধুনিক  সভ্যতা গড়ায় মুসলিমদের কি অবদান ইত্যাদি বিষয়ে জানার জন্য ইতিবাচক তথ্যের অভাব নাই ।1) 2) অন্যদিকে ইসলাম বিরোধী অবিশ্বাসী (কাফির) পোত্তলিকতাবাদী (মুশরিকদের) ও আধুনিক সেকুলারিষ্ট মুনাফিকদের দেয়া মিথ্যায় ভরপুর ইসলাম বিদ্বেষী তথ্যেরও অভাব নাই। কাকে বিশ্বাস করবেন? Choice is yours.

  6. 21
    Kumar Mondol

    No they are not dead, but they are leaving bangladesh in fear of their life and properties and dignities. How else you will explain the decline of hindu population Pakistan and Bangladesh in the last four decades?  I have come across quite a few bengali hindu family from bangladesh, who left bangladesh for the fear of the dignity of their female members. How do you explain that. If India is such an antiislamic country, why the population of muslims are increasing in India as a percentage of population. And do not  preach me about employment and education in bangladesh based on unconfirmed report.

    1. 21.1
      এম_আহমদ

      Silly man, you are unashamedly moving from one thing to another. Do some reading on the politics from 1940s onward and you will see why racist and fascist Hindus opted and migrated to India. Prior to the partition of Bengal in 1947, the Hindus were not the majority in East Bengal, but with certain percentage they were majority in West Bengal. In order to forsake the Muslims and not sit on the same table with them for their racist-fascist, caste-oriented religious attitude, they proposed a referendum to join West Bengal to India and this they did. Following the partition the racist Hindus moved to Indian part of Bengal. With no knowledge of history do you expect to be taught history with slaps on your face? In a given situation where Hindus are minority, you invent lies. The cast-based racists moved away from the 'heathens' Mleccha, (ম্লেচ্চ) Zabans, (যবন) and those left behind are living in Bangladesh with dignity and respect, participating fully in education, employment and all sectors of civil life more in numbers than the ratio of Muslims: one can draw some reasonable judgement from of the reality from reports and experiences of the people living and working in the field, because they are part of the reality; but the silly ones, without any alternative statistics grudge and deny everything outright only to form their opinion based lies and prejudices. What evidence do you have to counter the information on the Hindu population’s participation in all sectors of employment and institutional and social life in Bangladesh? Can you compare the state of Muslims in India in relation to Hindus in Bangladesh? Go on try! Silly idiot.

      Now, to see what partition had done in the middle of twentieth century and its gradual development from 1757 and the caste-Hindus attitudes in relation to Muslims read, জয়া চ্যাটার্জী, (২০০৩). বাঙলা ভাগ হল. ঢাকা: দি ইউনিভার্সিটি প্রেস লিমিটেড, অনুবাদে, আবু জাফর). This would, perhaps, knock some historical senses about the demographic transformation of the geography to your thick-head. Population increase in India is not an evidence of tolerance, equality and fair participation, silly man. Population increases in time, in general, and in the Muslim communities the ratio is generally high. For the reasons that you are blinded by prejudice and ignorance about Islam and Muslims, you won’t see the state of Muslims in India; you will only see their increase in number! How silly. Read the following. Your attitude can be held as one among the main culprits of Muslims’ victimisation in India, because, to your kind, Muslims are killers, uncivilised, downtrodden, inapt for modern life, your kind is Hitler! Your group spread lies, hatred and prejudice so that they are suppressed, or else they might kill you!     

      rel="nofollow">

      http://infochangeindia.org/human-rights/analysis/persistent-exclusion-of-muslims-in-india.html

      http://www.islamawareness.net/Asia/India/muslims_in_india.html

      http://www.thenational.ae/news/world/south-asia/muslims-in-india-victims-of-social-segregation

      http://www.indianexpress.com/news/-i-was-discriminated-against-because-i-am-muslim-/1085223/

      The above information is searched out from google in less than a minute! If one spends some time, the list can be immensely tall. 

      1. 21.1.1
        Kumar Mondol

        If you can not argue or debate with out name calling,  do not get involved in it. Read your own writing, it is full of personal venomous hatred towards me. When you can not argue with facts and statistics you bring in ancilliary stories how non muslims are having such a good time in Bangladesh. They occupy a gretaer share of the employment ratio is Bangladesh. If I accept your prior statement that being 7% of population they are 42% of the total employment. It implies only about 18-20% of bangladesh population is employed and staggering 80-82% of the population unemployed. Before spewing out venomous and utter lies, at least check your math. Give me a break. You are an imbecile person, engaged in personal attack only. Next you are giving me the story, inception of pakistan as a state originated from the West bengal Hindus' unwillngness to stay with their muslim bethren. Although this reasoning is completely false, I do nto blame them even if they did it,  given the  experience of "direct action day" of Surabardy, who was ruling bengal at that time.

        I am old enough to live through those days and I have direct knowledge about those. So, do not give me a cock and bull story about partition of India written by somebody. Look, you can not even stay in Pakistan as one country, whom you are fooling.

        Also my advice to you: Do not engage in blog if you can not keep your cool.

        1. 21.1.1.1
          এম_আহমদ

          A sparrow is not a parrot, and a fool is only a fool, one cannot state these otherwise. Look from above and read the comments and counter comments. You will see your ignorance and stupidity have been addressed systematically. Some of your assertions: Muslims are killers; once they are the majority would kill the Hindus; basic tenet of faith is logical presentation; utilitarianism is a measurement of religious truth; Christianity has brought most benefit to mankind and it is the best religion; Bangladeshi Hindu population is low because Muslims have driven them out; India is tolerant because Muslim population is in increase (!); and many more of such rattling. At many instances you didn’t even understand the conversation and made such conjectures as “If religion is not based on faith, then what is the underpinning of religion, please explain to me” –whereas your counterpart didn’t even assert that. You have been ignorant throughout you have accepted that with displeasure or with cunning ploy or dishonesty.

          Looking at the limit of the prejudice and ignorance, I told you to get lost. But you were thick enough to come back with more prejudices to receive more punches. What an idiot! You have an example of how some Indian Hindus are fed to be anti-Muslims and Islam through education, socialisation and institutional process.  Your lot see Muslims as killers, uncivilised, downtrodden, inapt for modern life; these are reasons that perpetuate hatred and violence. I invited you to compare the state of Muslims in India in relation to Hindus in Bangladesh, but iike other points, you stood as imbecile.

          Now the 42%. Did you understand the nature of its mentioning? No, ignorants don’t. You have come back with more ignorance.  Are the variables of 7% and 42% comparable variables? Stupid! The former is a population variable and the latter is that of employment, with yet again other possible differentiations. The latter doesn’t have any calculable details except as a means of suggestive conversation. In Europe and America Jews occupies key positions in major occupational sections yet in contrast to the general population they are a tiny minority. If 82% is unemployed and 18% is employed in Bangladesh (all of which again doesn’t have absolute mathematical fixity, but only a means of conversational suggestive) then what would be the segmentation of the 18%, as that would include large proportions of cleaners, sweepers and lower manual employment? What segmentations work in the 42%, and if a generalisation was made with certain inclusions and exclusions, which would be the areas from which such generalision could possibley have been made? Has the figure any calculable details? When no basis for a calculation is given, then for what purpose was the 42% mentioned at all? Did you understand that, stupid? What was the nature of the 42% when it was suggested or spoken of? Did you understand that? What role such figures play in conversation?      

          Next you are giving me the story, inception of pakistan as a state originated from the West bengal Hindus' unwillngness to stay with their muslim bethren.

          Stupid! Did I argue a case that the inception of “Pakistan” came as a result of Bengali Hindus unwillingness to stay with Bengali Muslims? What an idiot! You didn't follow anything, did you? You didn't even understand the argument? Get lost! Shameless. What can someone say about you? Read the context and find out what point it addressed.   

          I am old enough to live through those days and I have direct knowledge about those

          From your comments what is proven is that you lived a life of a fool, (especially with ignorance and prejudices about Muslims and Islam). Age is neither a qualification nor, by its own right, an evidence of knowledge. What you said so far, you are not in any position to advice anyone. You can only advice yourself. Remember, anyone who comes to Shodalap doesn’t return empty handed: they either return with knowledge, (if show sincerity and willing to know) or kicks and punches (if arrogantly throw ignorance and prejudices). (কেউ ফিরে না খালি হাতে সদালাপের দরবারে … কেউ ফিরে না …)। However, if you still think you can redress your foolish comments again, try! Or get lost.  

        2. Kumar Mondol

          No, you are a stupid person babbling obscene comments here.  according t our own statement about hindus share of employmemet and share of population, it follows like this:

          "X=total number of employable population, Y is the employmed population

          Y/x is the employment ratio.

          According to your suggestion  .07x =.42Y

          Which means that .42y = .07 x

          Or y = .07/.42 X = 1/6 X  thus employment ratio is y/x = 1/6

          It means  that (1-1/6) or 5/6 of the  employable population is unemployed."

          I argued about  the  decline of hindu population in Bangladesh  and Pakistan since the decade of sixties and you gave me a cock and bull story about events before and just after partition by some authors and cite some youtube as if they are the genuine sources of information. How do you explain this decline even after 1971.  If you glance over the newspapers in bangladesh (during 2001-2006 much more , less now) you always find stories about rape, forced conversion of hindu girls, burning of hindu houses, looting etc. Read any pakistani newspaper, see the destruction created by Islam fanatics.  Go teach those people about how peaceful Islam religion is and how good people are the believer in Islam. You moron. Give me a break.

        3. এম_আহমদ

          No, you are a stupid person babbling obscene comments here. 

          From the tall list of stupidity, to which does the ‘no’ refer to? And in regard to which of the items has it been ‘obscene’ babbling, and ‘logically’ (let’s say in your own terms) how is it babbling? I have invited you to redress your stupid assertions, but did you take the chance? No, because you have been stupid. It is easy return saying ‘stupid’, but difficult to redress the list of stupidity, isn’t it? I swallowed you the bitter medicine, distasteful as it is because anti-Muslims and anti-Islam deserve that. Your ignorance and prejudices against Muslims and your fascist attitudes have been systematically proven, one by one? It has upset you, hasn’t it? It got to.

          It means  that (1-1/6) or 5/6 of the  employable population is unemployed."

          5/6 unemployed! What a fool! It was your own assertion in the first place that about (80) 82% people unemployed. And now like an idiot you have come back to state, ‘5/6 employable population is unemployed’. 5/6 is roughly 83%, which you stated before. What are you doing? Where does it sit in term of the 42%? You didn’t understand the relation between the variable of 42% and 7%. Silly man. Read what I wrote. And then think! Think, what this conversation is about. If Hindus like yourself think of the Muslims as killers, uncivilised and their religion has no human value and they migrate away, then their migration is for their own prejudice and ignorance. During the war of 1971, Bangladeshis (Hindus and Muslims) went to India as refugees. The Muslim refugees returned but many Hindus did not. During that year there was indiscriminate loss (of Muslims/Hindus) to the Pakistani Arm Forces. If there was a migration during 2001-2006 then give us the report, the evidence of mass persecution, dates of mass-migration or phases. Tell us about their plight and how India accommodated the migrants. Anti-Muslim, anti-Islamic idiots like you can say anything, because to them the Muslims are killers, inhuman, uncivilised –your kind is Hitler, propagandists. Your type of mentality gives rise to violence, discrimination and results in terror. This is what the Indian Muslims have been -and are, facing. See the video, and there are more; see the reports that I cited, and there are more; and remember the Babri Mosque and the terror of Hinduism. Your kind is hypocritical, you believe something as true, but do the opposite. Christianity to you is the best religion, it is beneficial to mankind yet you bite onto Hinduism! What a hypocrite! I am giving you the right medicine. You are finding it distasteful. Good, it’s working. But all the comments are systematic, orderly, pointed and spearing. Now get onto the job and redress the items if you want to have a second go at them, or take your break and get lost.

        4. 21.1.1.2
          Kumar Mondol

          As you have admitted yourself that you are an imbecile person, I do not want to engage with you in any further debates. Read your own comments where you can not  answer any empirical evidences provide by me, rather engage in racial slur, you idiot. Get lost.

        5. এম_আহমদ

          As you have admitted yourself that you are an imbecile person, [where is the admittance, monkey-boy?] I do not want to engage with you in any further debates. [You mustnt. Because in your own admittance you have been a stupid and here is your admittance, I sincerely submit to you that I am a naive person, quite ignorant about logic, inductive reasoning, deductive reasoning, utilitarianism etc” –remember this? Put the monkey tail between the legs and jump!] Read your own comments where you can not  answer [?] any empirical [?]  evidences provide by me, [Oh yea, Basic tenet of faith is logical presentation; utilitarianism is a measurement of religious truth; Bangladeshi Hindu population is low because Muslims have driven them out; India is tolerant because Muslim population is in increase (!); and ] rather engage in racial slur [racial slur? Moron! Muslims are killers! Once they are the majority would kill Hindus; they are criminals. They percsecute Hindus. … Where is the challenge to table crime statistics in sociological framework? Remember I told you,the racists and fascists are generally shallow, you wouldnt be able to do it and you have always become the example, so] you idiot. Get lost.

        6. kumar mondol

          I thought I would not respond to your diatribe, it is beyond my dignity to reply to such obscene languages. But if I do not respond you will say, he can not  answer your comments.

          If you google relating the percentage of Muslim population, and percentage of Muslim Criminals, you will find many many sources. For your information, I have reported here three  sources:

          1 in 5 Teenage Criminals in England is Muslim

          Website:  http://frontpagemag.com/2012/dgreenfield/1-in-5-teenage-criminals-in-england-is-muslim/

          France: 70% of entire nations prison inmates are Muslim – making up 12% French population

          Website: http://themuslimissue.wordpress.com/2012/08/10/france-70-of-entire-nations-prison-inmates-are-muslim-making-up-12-french-population/

           

          Why so many Muslims in prisons ?

          Website:  http://themmindset.wordpress.com/2011/01/24/why-so-many-muslims-in-prisons/

           

          In Texas, USA   % Muslim population Muslim is  only 0.5% , but % of criminals belonging to Islamic faith is 7.689% in 2004.

      2. 21.1.2
        Kumar Mondol

        Since you are a moronic  person devoid of any intellectual prowess and only deals with infatuated ideas about Islam, let me give you a simple task. Go to any country’s official demographic website and compare these two ratios: percentage of population of Islamic faith and percentage of criminals of Islamic faith. I challenge you, go to any country where Muslims are minority and compare the ratios. It will open up your mind, you moron.

        1. 21.1.2.1
          এম_আহমদ

          Having had slaps from right left and corner and having admitted ignorance you speak of ‘infatuated idea about Islam’. It is pretty obvious a fascist and racist idiot of your kind, may find some pathetic pleasure in being slapped for lies and prejudices as Muslims are killers; once they are the majority would kill the Hindus;  basic tenet of faith is logical presentation; (stupid), utilitarianism is a measurement of religious truth; (stupid), Christianity has brought most benefit to mankind (yet the hypocrite remained a Hindu) and it is the best religion; Bangladeshi Hindu population is low because Muslims have driven them out; there was exodus in 2001-2006 reducing Hindus in Bangladesh, (lying stupid), India is tolerant because Muslim population is in increase (!); (counter evidence produced to demonstrate your folly)  and many more of such rattling. The instances conjecture and failure understand conversation such as “If religion is not based on faith, then what is the underpinning of religion, please explain to me” –whereas the counterpart didn’t even assert that. There were more of your stupidities.  You could not sustain any assertion and now it’s ‘infatuated ideas about Islam’ –get lost, shameless idiot.

          Now, monkey, you jumped onto another branch and want to invite me to another discussion about crime and religious belief. First the manner of proposal itself suggests your ignorance. Secondly, why would anyone be interested to talk to an imbecile? But still, provide me some good impression about you that you will be able to hold good conversation on it, and even though you have an idiot in other topics, you might just do good on this.  Demonstrate your sociological understanding about human nature and crime, about economic conditions and crimes, social conditioning and crimes, morality and crimes, types of beliefs and morality and their relational delamination to crimes: because these will immediately prop up as the conversation starts. Take the statistics, say, of America and Saudi Arabia and relate them to the sociological frame-work as set out above. If that demonstrates that you are not an idiot at least in this field, then why not, I will talk to you. Go on money, try. (the racists and fascists are generally shallow, you wouldn’t be able to do it, but you can always try).

  7. 20
    এম_আহমদ

    Well, at last the last sentence! Fine, what's the response? 

    I am not killed here because, muslims are very few and in minority. Once they become majority they will kill us I know that, as you are doing in many muslim countries (including Afganistan, Pakistan etc.) and driving out the non muslims. 

    Once the Muslims are majority, they kill the Hindus. Are the Hindus dead in Bangladesh? Lies! The minorities in Afghan and Pakistan are well protected, The Hindus of your kind are terrorists, descriminaory becuase the outlook of your kind on Muslims and Islam is horrendous. People of your kind are capable of destroying and massacring people who you  prejudice and fear. No wonder Muslims in India are discriminated in employment, education, housing becuase the Hindus think of  them as killers, uncivilised and hostile. In Bangladesh Hindus are between 5 and 7 percent yet unconfirm reports suggest they count about 42% in the employment sector: about two third managers of the National Bank of Bangladesh are alone Hindus! In education and civil services they are proportionaly higher than the ratio of Muslims. Indian Hindus are fed to be anti-Muslims and Islam by their education system and by socialisaition and institutional process. Hindus in general are racists and you are an example.

      

      

  8. 19
    Kumar Mondol

    To comment on your last sentence, I am not killed here because, muslims are very few and in minority. Once they become majority they will kill us I know that, as you are doing in many muslim countries (including Afganistan, Pakistan etc.) and driving out the non muslims.  No, I do not want to debate with you anymore. You just shout loudly and engage in personal bad mouthing. Go and read the article written by Mizan Rahman about history of matehmatics, then come back.

  9. 18
    Kumar Mondol

    Mr. M. Ahmad,

    I sincerely submit to you that I am a naive person, quite ignorant about logic, inductive reasoning, deductive reasoning, utilitarianism etc. Unfortunatley, we are digressing too much from the original topic.  For your information I did not run away from debating you. I found out that it is pointless to argue with you, because you do not accept universally acceptable reasoning.  If religion is not based on faith, then what is the underpinning of religion, please explain to me. 

    Your own comment above about the scientific contribution of Islam for the revival of Europe reminds me an event. I have a colleague who is from Iran, professor of electrical engineering ,arguing the same thing " how  algebra is the contribution of Islamic civilization to the world". I explained to him that before the adevent of Islam, algebra was already well known in India, during the  Gupta dynasty(possibly third or fourth century AD). Yes,  I have read that in history textbook in India. I still recollect the names:Bhaskarachaya' Bijaganit  (algebra), Leelabat's Bijaganit among others. Apparently he never heard about it. You have a Bengali mathematician in Carlton university in Canada, named Mizan Rahman, he wrote an article about it. My friend was quite surprised knowing that.  Anyway, my point is that what happened thousand years ago, has no bearing now. What is the current contribution of Islam for last few hundred years, apart from killing fellow human beings? Prime example is the Talibans in Afganistan. They are the pure Muslim abiding by the rules of Sharia by letters not only in spirit.

    1. 18.1
      এম_আহমদ

      I sincerely submit to you that I am a naive person, quite ignorant about logic, inductive reasoning, deductive reasoning, utilitarianism etc.

      Good, that would serve you right. Next time hold your tongue and think before you speak.

      .. [past issue history] you do not accept universally acceptable reasoning.  

      What is ‘universally acceptable reasoning’ and where, how and in what format did you present it and that was not acceptable to me? In your own admittance if you are ignorant about logic, then what is the point of commenting? “If religion is not based on faith, then what is the underpinning of religion, please explain to me” –did I say religion is not based on faith? What are you talking about? Are you insane?

      And as for algebra don’t be stupid; you should know what Zabir bin Hayan contributed. Without knowing a thing, it is only the idiots who bray about like donkeys. Find out from what point to what point Islamic sciences made their development. I think you better get lost, because with your level of understanding, we should not be engaging with you. If could get hold of any of your best teachers get them here, then perhaps you could see what debate or dialogue is called, God willing. I am really fed-up with your silly comments.

      Look, like a monkey you are jumping from branches to branches. Now the point about utilitarianism is gone; Christianity is gone; logical presentation is gone; measurement of religious greatness by fools’ profanity is gone, it is clear that you hadn’t learned anything.  You should hold your ears and do ten ups-and-downs and then stop commenting on things you have no knowledge of. You are now moving onto Afghanistan, seeking an opportunity to vomit out some lies and ignorance swallowed from Western and Indian media. Then, what has Islam contributed in terms of modern technology and sciences? That is your stupid way of considering Islam as if the revelation was about physics, chemistry, biology, mathematics, and industrialisation? What a fool! How is it that you talk to Muslims, and perhaps you have Muslims at your workplace and neighbourhood, and you are not yet ‘killed’? Islam is about killing, isn’t it stupid? Get lost! The quicker the better. 

  10. 17
    Kumar Mondol

    Mr. Raihan,

    Your comments are quite meaningless to debate about. In Hindu religion it never says that it is the best religion. It says all major religions are equal (joto mat toto path).  I have not come across any blog which claims hinduism is the best religion, asking others to convert. It is rather more obvious in case of Islam and Christianlty which proclaims their religion is the best and ask others to convert. But that is not my point here. I want to evaluate religion in terms over all benefits to humanity. Christians from the 14th century has been instrumental in many path breaking inventions, instutional changes and others  that have benefited the entire mankind. People belonging to other religin such as Islam and Hinduism, Buddhism(except Judaism) come nowhere near to that. Second point I tried to make that how Islam treats  other religion in their own domain and I raised the issue of Emigration and Immigration. The problem with you is that you do not debate these points, rather avoid it and engage in convoluted arguments.

    1. 17.1
      এম_আহমদ

      If you do not understand the rationale, then that would be ‘meaningless’ to you, we understand. The question was shouldn't you be following Christianity when by your own assertion it was the best religion? Is it 'meaningless' and 'convoluted' because you have been arrested on your own folly? You don’t seem to understand your own logic, do you?

      You wanted to evaluate region with something that you are ignorant about and on that I am going to comment separately. See above. You have no knowledge of Muslims’ contribution to science and knowledge and how Europe’s revival came about with these, do you? Google it out and read. With ignorance and prejudice you cannot make any headway.

  11. 16
    Kumar Mondol

    Forgive me for my comments in english. I am a hindu, but take great delight reading your blogs. As far as I understand, basic tenet of every religion is the faith and how you present that faith logically with reasons. Any religious person will claim that his religion is the best among others (othrewise he will not follow that religion). So, your statement that Islam is the best religion in the world is fine with me, it is your belief and you have very right to it. But in the greater scale of humanity I will say, that religion is the best which brings the most benefit to greatest number of people in the world. In that measurement,  Islam is not the best, because it has possibly brought most misery to mankind among all the religions. A simple example: just consider the demography of any Muslim countries, Mass emigration of non muslim people from the muslim countries is the best index of how good islam is for humanity. It is also corroborated by the immigration of muslim people to non muslim countries. Whatever universal criterion you use to judge a reilgion, Islam is the least beneficial to mankind for the last few hundred years, In that sense christianity is the best religion. Moreover, anybody can criticise Jesus Christ in christian countries. But in muslim countries, if you critcise your prophet, you will be killed. What other criterion you want to use to measure the greatness of a religion?

    1. 16.1
      এস. এম. রায়হান

      You said-

      I am a hindu…. Any religious person will claim that his religion is the best among others (othrewise he will not follow that religion).

      According to your above statement, you should have claimed that Hinduism is the best religion as you are a Hindu. Instead, you said-

      …christianity is the best religion.

      And then you have treied to prove that Islam is the worst religion. This is called Hindu mindset. If you believe that Christianity is the best religion, then you should be a Christian by your own logic, isn't it? Are you then making a fool of yourself?

      Moreover, you probably have no idea that Islam, Christianity, and Judaism have a common origin. So, it's riddiculous to compare among these three religions (basically one religion).

      Moreover, anybody can criticise Jesus Christ in christian countries. But in muslim countries, if you critcise your prophet, you will be killed.

      Firstly, maybe you don't know that the criticism of Jesus Christ is also not allowed in Muslim countries.

      Secondly, you are trying to say that anybody can criticise your parents in your home, and that is a 'proof' that your parents are the best in the world. What a silly argument!

    2. 16.2
      এম_আহমদ

      As far as I understand, [your understanding is wrong] basic tenet of every religion is the faith and how you present that faith logically with reasons.

      Is ‘logical presentation (of faith)’ the basic tent of a faith? Is logic the overriding element of faith? Where did you learn this principle from? Can anyone logically prove the existence of Afterlife, Heaven, Hell, Angels and tens of other things? Do you know what logic is and the use and extension of it beyond the things of the five sensory experiences? Do you know how perception and logic interplay? How does consciousness form and how does it become aware of what reality is? What informs the consciousness agent that it knows logical or true? How does language come to play its role in all these? Your lots are left far behind in time on the development of the understanding about logic, language and consciousness. I can remember you came here once before with your historical prejudices about Muslims’ rule in India and later run away without answering questions. Now you have come here to assert logical presentation as the basic tenet of faith. How the penis of Shib (শিব-লিঙ্গ) logically form a part of your faith and the worshipping of it?

      I will say, that religion is the best which brings the most benefit to greatest number of people in the world. In that measurement,  Islam is not the best, because it has possibly brought most misery to mankind among all the religions.

      This is so naïve as an understanding to bear upon religions. You are bringing Jeremy Betham’s utilitarianism, seemingly not knowing anything about it, to measure religion. Are the 1.6 billion Muslims unhappy? Are the people converting in their thousands to Islam every year to be unhappy? Or is it the fact that they do not possess a ‘fertile-head’ like of yours? Is migration a factor against religion? Is it coming out of an established research or shall we take it that it was in your college textbook? What a mind-boggling nativity! Turn your face to the Muslims in the Western world. They are more committed to Islam than their counterpart in back home.

      You come here to measure Islam against your ignorance about Christianity and to your despair you find the  Muslims do not denigrate their prophet, which seems to disheartens you. The fact is when thick-headed Hindus with bag full of misconception and lies about Islam open their mouth to Muslims, they are quickly stopped on their track, proving fools. You are truly expressing naivety and ignorance, throwing undergraduate notion of utilitarianism in a wrong relation. Even with utilitarian concept (which is in most cases a fallacy, for how would you measure happiness and on whose terms of happiness? And those who are already happy where would they sit in this? And how would you add more happiness to those who are already happy? Or those who are happy without much material gains, what of them? Where would they sit? Above all this concept is material whereas spirituality and faith are they material? Can anyone make a true measurement of immaterial and material?  What a silly attempt! I suppose you better go and give a few round of prostrations before your idols and see if they can knock some senses to your head.

       In that measurement,  Islam is not the best, because it has possibly [possibly? You are not sure?] brought most misery [first you arte not sure, yet you speak of it as bring "most misery"!] to mankind among all the religions. A simple example: just consider the demography of any Muslim countries, [what has demography got to do with it?] Mass emigration of non muslim people from the muslim countries is the best index of how good islam is for humanity. [Anhyone goes to work to earn a living their religion is wrong? what a fool!] It is also corroborated by the immigration of muslim people to non muslim countries. Whatever universal criterion you use to judge a reilgion, [migrationis criterion to measure religion? What a pandit! Do you wear dhuti or trousers ?]  Islam is the least beneficial to mankind [sure] for the last few hundred years, In that sense christianity is the best religion. [wow]

      Christianity is a declining religion throughout Europe. What do you know about the reality of Church and the decline of it over the last few hundred years? How is it that you, with such colossal ignorance, are commenting on Islam? Shame! What are the universal criteria to measure religion? And what aspects of it? Ignorance breeds prejudices and that is what your mind is filled with. By the way, have you measured your religion logically? Can tell us about it?   

    3. 16.3
      Kumar Mondol

      Mr. Mahiuddin,

      Thank you for your nice comments. I really agrees some of your comments. I do not disagree that Islam was a positive force for humanity in the earlier time period. But my concern is not the past, rather present and future. Fpr present and future, education is the most important force, not religion. For your information, I am not Islamphobist, I have two good friends who are muslim, one from Bangladesh, another from Iran. None of them are Orthodox. They are very close friend of mine. 
      I treat religion from a secular point of view. Although I think (my belief) Christianity is the best religion in terms of benifits to humanity, I do not rush to join it. I am not  a  very religious person and do not feel the urge to go to heaven by adpting christianity. This is my personal belief. And I think religion should be  a personal matter and state should be separated from religion.

      Regarding your  comments about  how Islam was instrumental in the European  revival in the earlier time period and has lost its importance in science and other areas, is quite right. My concern is not past but he present and  future. For example, about three hundred years ago India and China's GDP were more than 50% of World GDP. In twentieth century it was less than 10%. If India and China did not change their economic policies, it could not grow and compete. Now their total GDp is more than 20% of world GDP. It is because they have changed their economic policies.   Same is true for Islam, It has to change for better future and  education should be the  driving force, not religion. 

      For your comments about riots in india: Look there are riots in India, which means Muslims are fighting with Hindus. I do not go into reasons and who is at fault, which is quite debatable and true some where in between. In Bangladesh and in pakistan there are no riots, it does not mean that there are peace and non muslims are treated fairly. It means that they do not have any  voice at all. If they do not abide by the rules made by Islamic rulers they will be killed. Period. If they can not follow the rules, they leave  the country. It explains why the hindu population in Pakistan has declined from 10%  in 1947 to less than 2 %  now and  in Bangladesh from 23%  in 1960s  to less than 10%. now. You can not accept these facts and shout Islamophobia whenever someone mentions that.  Regarding the pre British period  India, I have read in history book that total number of civilians killed by Islamic rulers exceeded 50 millions in the first few hundred years. That explains why non muslim people followed the muslim rules.

      1. 16.3.1
        মহিউদ্দিন

        I treat religion from a secular point of view. Although I think (my belief) Christianity is the best religion in terms of benifits to humanity, I do not rush to join it. I am not  a  very religious person and do not feel the urge to go to heaven by adpting christianity. This is my personal belief. And I think religion should be  a personal matter and state should be separated from religion

        Mr. Mondol,

        You are just wasting your time here এবং সেই সাথে আমাদেরও সময় নষ্ট করছেন। Didn't you read the title and contents of this article? বিশ্বাসীদের অবস্থান কি হওয়া উচিত সেটা হচ্ছে এ নিবন্ধের মূল কথা।

        আপনি আগে নিজেকে বিশ্বাসীদের কাতারে শামিল করুন তার পর না হয় আলোচনায় আসতে পারেন। আপনি তো  এ প্রবন্ধে উল্লেখিত প্রথম পক্ষের (সেকুলার) লোক আপনাদের মাইন্ডসেট কি তা আমাদের জানা আছে আপনার কাছ থেকে নতুন করে শুনার প্রয়োজন নাই। 
        তবে কেন আপনার পক্ষে ক্রিষ্টান ধর্ম ভাল মনে করেও তা গ্রহণ করতে ধূতি খুলে যাচ্ছে সেটা আপনার সমস্যা। আগে পৌত্তলিকতা ছেড়ে  ক্রিষ্টান ধর্ম গ্রহণ করেন। তার পর আলাপ হবে।

        আর আরেকটা জিনিস আপনার মুসলিম বন্ধুরা মুসলিম কিন্তু বলেছেন "None of them are Orthodox."  জেনে রাখুন,  ইসলামে orthodox muslim বলতে কিছু নাই। মুসলিমকে মুসলিমই হতে হয় এখানে মডারেট মুসলিম আর লিবারেল মুসলিম বলতে কিছু নাই। আল্লাহ বিশ্বাসীকে মুসলিম না হয়ে মৃত্যু বরণ করতে বারণ করেছেন।

        Think of this, when a woman is said she is pregnant we cannot say she is half pregnant or full pregnant. Likewise when someone becomes Muslim he is a Muslim, there is no moderate or orthodox Muslim as you guys want to define according to your desire…
         

        1. 16.3.1.1
          Kumar Mondol

          I find it strange that you engage in personal diatribe and hatred when you reply my comments. You prefer the echo chamber of supporting  each other  comments, without any opposite views. Whenever someone contradicts you and points out the falsity of your claims you engage in personal attack. I never claim that  I am an expert in Islamic religious tenets.  According to you , Muslims are only Muslims, there are no orthodox, moderate or liberal Muslim. I went to the wedding party of my Iranian friend’s daughter last month, and they were serving liquor there. Is it consistent with Islamic ideology? If not then they are not Muslim according to you. But he is a haji and performed his ceremonial duties at Mecca couple of years ago.  Is he a moderate Muslim, liberal Muslim or an orthodox one? My Bangladeshi friend’s son is marrying a white Christian girl without converting her. So, again it is incompatible to Islamic ideology. So, they are also not Muslim.

          If there is only one Muslim religion, no distinction among the practitioners of this religion, then who are the Sunni, Shia, Ahmedia, Quadani Muslims?  I found that you do not dispute or debate the facts or statistics I cited, rather engage in personal attack. How pathetic. If you cannot keep your cool do not participate in blogs.

  12. 15
    মহিউদ্দিন

    রামরাজ্য : ইসলাম ধর্মের মুমিনরা সারা বিশ্বে মুমিনরাজ্য কায়েমের জেহাদী জোশ দেখাতে পারলে অন্যরা রামরাজ্যের কথা বলতে পারবে না কেন???

    এখন বুঝেন থলের বিড়াল কীভাবে বাহির হয় ! আহমেদ শরীফ ভাই, আপনি  ঠিকই ধরেছেন।   সে যাক এ প্রসঙ্গে ইসলামের শেষ নবী মোহ্ম্মদ (স:) সর্ম্পকে কেউ জানতে চাইলে নিচের অডিও বুক শুনতে পারেন।

    http://www.youtube.com/watch?feature=player_detailpage&v=4jb_9tKErhM

  13. 14
    মহিউদ্দিন

    ধন্যবাদ আহমেদ শরীফ ভাই।

     

    1. 14.1
      আহমেদ শরীফ

      এদের দু'মুখো ভন্ডামোর নমুনাটা দেখেন একবার !

      আমরা যেখানে আসল মুসলিম নাম নিয়ে নিজেদের মুসলিম পরিচয় ধারণ করেই ব্লগে সগৌরবে ইসলাম নিয়ে লিখি _ এরা তা কখনো করবে না। নিজের পরিচয় লুকোবে প্রতারণা করে মুসলিম নামও নেবে, হিন্দুধর্মের অনুসারী হয়েও ঘূণাক্ষরে নিজেদের কখনো হিন্দুধর্মে বিশ্বাসী বলে স্বীকার করবে না, বর্ণবাদি হিন্দু হয়েও নিজেদের গায়ে 'নাস্তিক' এর ছদ্মবেশ এঁটে ক্যামোফ্লেজ করবে _ একদিকে ইসলাম-মুসলিমের প্রতি অন্ধ যুক্তিহীন বিদ্বেষ, অন্যদিকে ভার্চূয়াল মুক্তিযোদ্ধা সেজে 'জামাত-শিবির' কে মৌলবাদি-সন্ত্রাসী বলবে _ আবার নিজেরা 'ইসকন' জাতীয় প্রতিষ্ঠানের অন্ধ সমর্থকদের মত 'রামরাজ্য' প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখবে, স্বপ্ন দেখতে দেখতে অক্ষম আক্রোশে বারকয়েক 'স্বপ্নদোষ' হলে তখন শারীরিক দূর্বলতায় মাথা চক্কর দিয়ে ওঠে _ তখনই মনের ভুলে মনের গহীনে সযতনে সন্তপর্ণে লুকানো 'রামরাজ্য' এভাবে বেফাঁস বেরিয়ে আসে। তখনই দেখা যায় এদের 'আসল' চেহারা !

  14. 13
    মহিউদ্দিন

    @  dilruba

    জন্মের পর থেকে এ পর্যন্ত ইসলাম কোথাও কোন ভাল কিছু করে দেখাতে পারে নি।

      ইসলামের ভাল কিছু দেখার সৌভাগ্য হবে না যতদিন বস্তুতান্ত্রিক ভৌগ্যবাদী জীবনদর্শনে বিশ্বাসী কিংবা বর্ণবাদ, সাম্প্রদায়িক ও রাম রাজ্য প্রতিষ্ঠার স্বপ্নে মন আবিষ্ট থাকবে। সত্যিকার মুক্ত মনের বিদ্যানুশীলন কোন ভদ্র পুরুষ বা নারী যে হউক না কেন তার পক্ষে এরকম একটা ফালতু মন্তব্য করা সম্ভব নয়। বিশেষ করে হাজার বছরের ঐতিহ্যবাহী মানবতার মুক্তিকামী সু-সভ্যতার ধারক ও বাহক এবং বর্তমান বিশ্বের দেড় বিলিয়নের বেশী মানুষের প্রাণ প্রিয় সেই সুমহান জীবন আদর্শ  ইসলাম সম্পর্কে এরকম মন্তব্য করা সম্ভব নয়। কেবলমাত্র বর্ণবাদ ও পৌত্তলিকতার পূজারী চরম ইসলাম বিদ্বেষী মানসিকতার মানুষের পক্ষে এ রকম যুক্তি-বিহীন হীন মন্তব্য করা সম্ভব।

    তবে হাঁ, আপনি যদি দোজকের আগুনের ভয়ে এই পোষ্ট দিয়ে থাকেন তা হলে আমার বলার কিছু নেই।

    আপনার কিছু বলার না থাকলেও আমাদের অনেক কিছু বলার আছে।  সত্যিকার  মুসলিমের মনে অবশ্যই আল্লাহর শাস্তির তথা  নরকের ভয় থাকে এবং  এই ভয়ই তাকে পশু থেকে মানুষ এবং মানবতার পক্ষে থাকতে অনুপ্রাণিত করে। একজন মুসলিম সবসময় ন্যায় বিচারের পক্ষে থাকতে বাধ্য কারণ পবিত্র কোরআনের শিক্ষা হচ্ছে:

     "হে ঈমানদারগণ, তোমরা ন্যায়ের উপর দৃঢ়প্রতিষ্ঠিত থাক; আল্লাহর ওয়াস্তে ন্যায়সঙ্গত সাক্ষ্যদান কর, তাতে তোমাদের নিজের বা পিতা-মাতার অথবা নিকটবর্তী আত্নীয়-স্বজনের যদি ক্ষতি হয় তবুও।  সে ধনী হউক কিংবা দরিদ্র হউক, আল্লাহ উভয়েরই ঘনিষ্ঠতর শুভাকাঙ্খী (তোমাদের চাইতে বেশী)। সুতরাং তোমরা বিচার করতে গিয়ে প্রবৃত্তির (রিপুর কামনা-বাসনার) অনুসরণ করো না। আর যদি তোমরা ঘুরিয়ে-পেঁচিয়ে কথা বল কিংবা পাশ কাটিয়ে যাও, তবে আল্লাহ তোমাদের যাবতীয় কাজ কর্ম সম্পর্কেই অবগত। "  (সুরা নিসা, ৩:১৩৫)

         

    1. 13.1
      dilruba

       @ জনাব মহিউদ্দিন…………………

      প্রথমেই একটু ক্লিয়ার করে নেয়া ভাল-  দেখুন আমি বস্তুতান্ত্রিক ভৌগ্যবাদ, বর্ণবাদ, সাম্প্রদায়িকতা, রাম রাজ্য…………………….. এসবের কোনটিতেই অনুপ্রানিত নই।  যাক সে কথা।

      আপনি ইসলামকে যে ভাবে বয়ান করলেন তা মনে হল "ইসলাম" না জানি কি! কথা উঠেছে বস্তুতান্ত্রিক ভৌগ্যবাদ নিয়ে, কথা উঠেছে বর্ণবাদ নিয়ে, কথা উঠেছে সাম্প্রদায়িকতা নিয়ে, কথা উঠেছে রামরাজ্য নিয়ে।

      ১। বস্তুতান্ত্রিক ভৌগ্যবাদ : ইসলাম ভৌগ্যবাদের ধর্ম,  নবী সাহাবীদের ব্যাক্তি জীবনীতেই তার অকাট্ট প্রমান মিলে। বহুগামিতা, অসহায় দাসীদের সাথে অতিরস্কারযোগ্য অবাধ যৌনতা, যুদ্ধবন্ধী নারী গমিমত ধর্ষন, মুতা বিয়ে, হিল্লা(পতিতা) বিয়ে, নাবালিকা বিয়ে, অনৈতিক বিয়ে এবং প্রতি পক্ষের সম্পদ লুন্ঠন ইসলাম ধর্মের মূলমন্ত্র।

      ২। বর্ণবাদ : স্বাধীন মানুষ-ক্রিতদাস, স্বাধীন নারী-দাসী নারী, স্বাধীন স্ত্রী- দাসী স্ত্রী……………… এ কথাগুলো কোরান-হাদীসের পাতায় পাতায় বারবার এসেছে এবং এ ক্ষেত্রে কার কতটুকু অধিকার(privilege) তা খোলামেলা করে বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। এগুলো কোরান হাদীসে সুলিখিত(well documented), অস্বীকার করার উপায় নেই। এরচেয়ে বড় বৈষম্য, বর্ণবাদ আজকের পৃথিবীর আর কোথাও আছে বলে আমার জানা নেই।

      ৩। সাম্প্রদায়িকতা : কাফের কতল কর, ইহুদী কতল কর, নাসারা কতল কর,  ইসলাম ধর্ম ত্যাগকারী কে খতম কর, ওরা বানর, কুকুরের মত হাপর করে, ওরা জাহান্নারের খড়ি, ওদের বন্ধু বানাবেনা…………………… এগুলো তো ইসলাম ধর্মের অপরিচিত নতুন কথা না।  এতকিছুর পরও অন্যকে সাম্প্রদায়িক বলে গালি দেয়া!!!!!

      ৪। রামরাজ্য : ইসলাম ধর্মের মুমিনরা সারা বিশ্বে মুমিনরাজ্য কায়েমের জেহাদী জোশ দেখাতে পারলে অন্যরা রামরাজ্যের কথা বলতে পারবে না কেন???

      ধন্যবাদ, জনাব মহিউদ্দিন আপনাকে ধন্যবাদ।

      1. 13.1.1
        আহমেদ শরীফ

        প্রথমেই একটু ক্লিয়ার করে নেয়া ভাল-  দেখুন আমি বস্তুতান্ত্রিক ভৌগ্যবাদ, বর্ণবাদ, সাম্প্রদায়িকতা, রাম রাজ্য…………………….. এসবের কোনটিতেই অনুপ্রানিত নই।

        এই স্টেটমেন্টটা মিথ্যা। আর এটা যে মিথ্যা সেটা ৪ নাম্বার পয়েন্টে প্রমাণিত হয়েছে।

         

        ১। বস্তুতান্ত্রিক ভৌগ্যবাদ : ইসলাম ভৌগ্যবাদের ধর্ম,  নবী সাহাবীদের ব্যাক্তি জীবনীতেই তার অকাট্ট প্রমান মিলে। বহুগামিতা, অসহায় দাসীদের সাথে অতিরস্কারযোগ্য অবাধ যৌনতা, যুদ্ধবন্ধী নারী গমিমত ধর্ষন, মুতা বিয়ে, হিল্লা(পতিতা) বিয়ে, নাবালিকা বিয়ে, অনৈতিক বিয়ে এবং প্রতি পক্ষের সম্পদ লুন্ঠন ইসলাম ধর্মের মূলমন্ত্র।

        সর্বৈব মিথ্যা। নবী(সাঃ) ও সাহাবী(রাঃ) এর জীবনি হচ্ছে ত্যাগতীতিক্ষার জীবন। ঈমান আনার পর বহুগামিতা সাহাবী(রাঃ) দের একজনের মাঝেও ছিল না। দাসপ্রথা ইসলামের কোন অবদান নয়, আজকের মূল্যবোধ অনুযায়ী যাই হোক না কেন তখনকার সময়ানুযায়ী দাসপ্রথা হাজার বছর ধরে চলে আসা পুরনো লব্ধপ্রতিষ্ঠ প্রথা যা তখন আন্তর্জাতিকভাবে সম্পূর্ণ বৈধ ছিল, দাসীদের মানুষের মর্যাদায় গণ্য করার বিধান ইসলামই প্রথম দিয়েছে, দাসীদের মুক্ত করে বিবাহ করার উৎসাহ দেবার প্রথা পুরো দুনিয়ার মাঝে ইসলামেই প্রথম নির্দেশনা দেয়া হয়েছে এবং ব্যপক চর্চাও হয়েছে। গণিমতের মাল হিসেবে যুদ্ধবন্দী গ্রহণ ও মুতা বিবাহ তখনকার কিছু পরিস্থিতির কারণে অনুমোদিত থাকলেও অচিরেই তা নিষিদ্ধ হয়ে যায় এইং আজ পর্যন্ত নিষিদ্ধ।

        কিছুই দেখছি না জেনে আন্দাজে লাদানো শুরু করেছেন। হিল্লা মানে 'পতিতা বিবাহ' এইটা কই পাইলেন ??

        বেশ কিছু কমেন্টে আপনি মিথ্যের মিশেল দেয়া শুরু করেছেন। 'নাবালিকা বিয়ে' সম্মন্ধে আগে বিস্তারিত বলা হয়েছে কাজেই নতুন করে বলার প্রবৃত্তি নেই। আপনি আপনার হিন্দুসমাজের দেবদাসী প্রথার নামে নাবালিকা দিয়ে ধর্মীয় পতিতাব্যবসা দূর করার চেষ্টা করুন। আপনাকে করা প্রথম কমেন্টে যে উপদেশ দিয়েছিলাম সেটি ফলো করার চেষ্টা করুন। আপনাকে কি বলেছিলাম আবার মনে করিয়ে দিচ্ছি _

        আপনি যদি এতই নারীদরদি হন তাহলে কম্বোডিয়ার সেনাবাহিনীতে যে ৫ বছরের কন্যাশিশুদের ওরাল সেক্সে বাধ্য করা হয়, দুনিয়ার অনেক দেশের পতিতালয়ে অনুর্ধ ১০ বছরের শিশুদের পুর্ণাঙ্গ যৌনকর্মে বাধ্য করা হয়, ভারতের মত মহান দেশ যেখানে ৭/৮/১০ বছরের মেয়েদের 'দেবদাসী'র মহিমা এঁটে দিয়ে মন্দির সেবায়েত-পুরোহিত আর পাঁচপেঁচি ভ্রষ্টাচারীদের ভোগে লাগানো হয় 'ধর্ম' এর নামে, আমেরিকার মত দেশে অপরিণত শিশুদের যৌনকর্মে লাগানো, হাজার হাজার ওয়েবসাইটে অপরিণত বালিকাদের যৌনকর্মের ভিডিও ধারণ করে কোটি ডলারের ব্যবসা করা হয়, সারা বাংলাদেশের ধরা পড়া এবং এখনো পর্যন্ত ধরা না পড়া মাননীয় শিক্ষকগণ যাঁরা শিক্ষায়তনে আসা শত সহস্র ছাত্রীর সাথে নিজে যৌনকর্ম করে আবার সেগুলোর ভিডিও ধারণ করে বাজারে বিক্রি করছেন গার্ডিয়ানদের ব্ল্যাকমেল করছেন _ তাদের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক জনমত গড়ে তোলেন। আশা করি এদের মর্মযাতনা আপনি ভালই বুঝবেন এবং এদের উদ্ধারের সক্রিয় চেষ্টা করতে কসুর করবেন না। 'আগের যুগ' তো চলে গেছে পাত্রপাত্রী সব মরে টরে গেছে, এখন যারা বেঁচে আছে আপনার সময়ে তাদের উদ্ধার করাকে জীবনের একমাত্র 'ব্রত' বানিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ুন গে যান।

        আপনার কথামত বানোয়াট অভিযোগ অনুযায়ী সেগুলোই ইসলামের 'মূলমন্ত্র' হত, তাহলে আজকের মুসলমানরা সেসবের ধারেকাছেও নেই কেন ? আপনার ধর্মের লোকেরাই বা সারা বিশ্বে সর্বোচ্চ ধর্ষণের দেশ হিসেবে পরিচিতি পাচ্ছে কেন ? এগুলোও কি ইসলামের অবদান !!

         

        ২। বর্ণবাদ : স্বাধীন মানুষ-ক্রিতদাস, স্বাধীন নারী-দাসী নারী, স্বাধীন স্ত্রী- দাসী স্ত্রী……………… এ কথাগুলো কোরান-হাদীসের পাতায় পাতায় বারবার এসেছে এবং এ ক্ষেত্রে কার কতটুকু অধিকার(privilege) তা খোলামেলা করে বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। এগুলো কোরান হাদীসে সুলিখিত(well documented), অস্বীকার করার উপায় নেই। এরচেয়ে বড় বৈষম্য, বর্ণবাদ আজকের পৃথিবীর আর কোথাও আছে বলে আমার জানা নেই।

        কোরআন না বুঝে তাফসির না দেখে অযথা তর্কের নামে আসলে 'অন্ধ সাম্প্রদায়িক বিদ্বেষ' ছড়াতে আসেন বলেই কিন্তু আপনাদের প্রচেষ্টাগুলো কোথাও কল্কে পায়নি। ক্রীতদাস প্রথা যখনকার কথা তখনকার সামাজিক নিয়মের সাথে সঙ্গতি রেখে যেসব নির্দেশ কোরআনে ছিল সেসব বহু আগেই রহিত হয়ে গেছে। যা যে সময়কার 'হুকুম' সেই সময়ের জন্যই প্রযোজ্য, এটা নিতান্তই অজ্ঞ লোকের অজ্ঞতা যে কোরআনের সাময়িক হুকুমকে 'চিরকালীন' তকমা এঁটে দিয়ে বিষোদগার করতে আসা। এসব যদি কোরআনের কালোত্তীর্ণ হয় তাহলে মুসলমানরা তা মানছে না কেন ?

        ইসলাম যে সম্পূর্ণ বর্ণবাদবিহীন, সর্বশ্রেণীর মানুষের সমতায় বিশ্বাসী ধর্ম সে কথা আজ বিশ্বে সুবিদিত। প্রকৃত বর্ণবাদ-জাতপাত-বামুন হরিজনসহ হাজারো বর্ণবৈষম্যে দূষিত ক্লিষ্ট ধর্ম যে আপনাদের হিন্দুধর্ম সেটিও আজ বিশ্বে কারো অজানা নেই। সবচেয়ে দুঃখজনক হল এই একবিংশ শতাব্দি পর্যন্তও হিন্দুগণ জাতপাত-ছোঁয়াছুঁয়ির অভিশপ্ত বর্ণবাদ থেকে নিজেদের মুক্ত করতে পারেনি।

         

        ৩। সাম্প্রদায়িকতা : কাফের কতল কর, ইহুদী কতল কর, নাসারা কতল কর,  ইসলাম ধর্ম ত্যাগকারী কে খতম কর, ওরা বানর, কুকুরের মত হাপর করে, ওরা জাহান্নারের খড়ি, ওদের বন্ধু বানাবেনা…………………… এগুলো তো ইসলাম ধর্মের অপরিচিত নতুন কথা না।  এতকিছুর পরও অন্যকে সাম্প্রদায়িক বলে গালি দেয়া!!!!!

         

        ইসলাম হল আল্লাহর মনোনীত-প্রেরিত সত্যধর্ম। সমগ্র সৃষ্টিজগতের সৃষ্টিকর্তা হলেন আল্লাহতা'লা। সমগ্র সৃষ্টির পালনকর্তা, আহার্যদাতাও তিনি। দুনিয়ায় আল্লাহ জাতি-ধর্ম-গোত্র নির্বিশেষে সবাইকে পালন করবেন, আহার্য দেবেন। কারণ এটি হচ্ছে পরীক্ষাক্ষেত্র। যেমন পরীক্ষাক্ষেত্রে সেরা ছাত্র ও দূর্বল ছাত্র সবাই সমান অধিকার পায়। যাঁরা পার্থিব জীবনে আল্লাহর অজস্র অনুগ্রহ লাভের পরেও ওনার আনুগত্য স্বীকার করে না, আল্লাহর অবাধ্যতা করে, আল্লাহর কথা ভুলে যায় _ আল্লাহও তাদের কথা পরকালে তাদের পালন করার কথা ভুলে যাবেন। আল্লাহ হচ্ছেন প্রভু, বাকি সবাই হচ্ছে ওনার দাস। কাজেই যে দাস সমস্ত অনুগ্রহের মধ্যে ডুবে থেকেও প্রভুর অবাধ্যতা করে, প্রভুর নির্দেশকে তাচ্ছিল্য করে সে প্রভুকে অস্বীকার করে তাকে অপমানজনকভাবে প্রভুর গৃহ থেকে বহিষ্কৃত হতে হবে এটাই ন্যায়বিচারের কথা। তবে আল্লাহর সীমাহীন করুণার মত ওনার ক্রোধও সীমাহীন, আর মানুষকে যেহেতু অনন্তকালের জন্য সৃষ্টি করা হয়েছে কাজেই 'জাহান্নাম' রুপ অগ্নিময় আস্তাকূঁড়ে চিরকালের জন্য অবাধ্যদের নিক্ষেপ করা হবে।   

         

        তাঁর নিয়মানুযায়ী 'কঠোরতম' সাধনা-ত্যাগতীতিক্ষার মাধ্যমে যখন একদল মানুষ 'নির্মিত' হয়ে যায় তখন তাদের তিনি বাকিদের কাছেও তাঁর অনুগত হবার দাওয়াত পৌঁছান। যারা মেনে নেয় আল্লাহর বিধান অনুযায়ী আল্লাহর জমিনের ঐ অংশটুকু যেটি তারা ব্যবহার করে সেটি পূর্বাপর তাদেরই থাকে, তারা বাকি মুসলিমদের 'ভাই' হিসেবে সমানাধিকার, সমান মর্যাদা ভোগ করে। যারা ইসলাম গ্রহণে সম্মত না হয়ে নিজেদের ধর্মেই অবিচল থাকতে চায় তাদের কাছ থেকে যৎসামান্য মূল্য বা জরিমানা হিসেবে আল্লাহর পক্ষ থেকে আল্লাহর প্রতিনিধিরা আল্লাহর জমিনের 'ভাড়া' আদায় করবে, এটাও আল্লাহরই বিধান। যারা উভয়ের কোনটিতেই সম্মত হবে না তাদের জন্য শেষ ফায়সালা তরবারির মাধ্যমে হবে। এতে মুসলিমগণ আল্লাহর অবাধ্যদের পরাজিত করে বশ্যতা স্বীকারে বাধ্য করবেন অথবা নিজেরা পরাজিত হবেন। বিপক্ষ শতগুণ শক্তিশালী হলেও এটি করতে মুসলিমরা বাধ্য।

        শেষোক্তটি একমাত্র তখনই সফল হয় যখন মুসলিমরা প্রচন্ড ত্যাগতীতিক্ষার মাধ্যমে নিজেরা আল্লাহর মানদন্ড অনুযায়ী 'নির্মিত' হন। সেরকম না হলে আল্লাহর সাহায্য আসবে না। কিন্তু মুসলিমরা সেরকম আল্লাহর মানদন্ড অনুযায়ী যোগ্যতা অর্জন করেন তা হলে মুসলমানদের চেয়ে শতগুণ বেশি সংখ্যক অমুসলমান থাকলেও মুসলিমরাই আল্লাহর সাহায্যে বিজয়ী হবেন। যেমন মুতার যুদ্ধে হয়েছিলেন।

         

        ৪। রামরাজ্য : ইসলাম ধর্মের মুমিনরা সারা বিশ্বে মুমিনরাজ্য কায়েমের জেহাদী জোশ দেখাতে পারলে অন্যরা রামরাজ্যের কথা বলতে পারবে না কেন???

         

        ইসলাম ও মুসলিম যে আবার জেগে উঠছে তাতে সারা দুনিয়াতেই ইসলামবিরোধী শিবিরে থরহরি কম্পন শুরু হয়ে গেছে। আজ হোক বা কাল হোক ইসলাম আবার পুনরুত্থিত হচ্ছে, সারা দুনিয়ায়। সেটা ইসলামবিদ্বেষীরা জানে বলেই এত অস্থির হয়ে উঠেছে। তবে অস্থির হয়ে নিজের প্রেশার বাড়ানো ছাড়া লাভ কিছু হবে না, সারা দুনিয়ায় ইসলাম আসা সময়ের ব্যাপার মাত্র।

        রামরাজ্যের কথা বলতে পারবেন না কেন অবশ্যই বলবেন। তবে বলা আর চেঁচামেচি হাউকাউয়ের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে 'রামরাজত্ব'। এমনিতে তো ইন্ডিয়া ছাড়া আর দুনিয়ার কোথাও বিন্দুমাত্র বেইল নাই। তারপরেও আপাততঃ আগে ইন্ডিয়ায় 'রামরাজত্ব' বানিয়ে দেখান। ইন্ডিয়াতেই না পারলে আর বাকি বিশ্বের কথা বলে লোক হাসিয়ে লাভ আছে কিছু ?

         

         

         

         

         

  15. 12
    dilruba

    ইসলাম-ইসলাম করে কি হবে!!  জন্মের পর থেকে এ পর্যন্ত ইসলাম কোথাও কোন ভাল কিছু করে দেখাতে পারে নি। তবে হাঁ, আপনি যদি দোজকের আগুনের ভয়ে এই পোষ্ট দিয়ে থাকেন তা হলে আমার বলার কিছু নেই। ভাল থাকবেন ধন্যবাদ।

    1. 12.1
      আহমেদ শরীফ

      আসলেই। ইসলাম মানে যন্ত্রণা অনেক কিছু সেখানে 'নিষিদ্ধ', সনাতনধর্মে যেখানে দেবদেবীরাই 'সবকিছু' নিজেরা শখ মিটিয়ে করে সার্টিফিকেট দিয়ে দিয়েছেন সেটাই মজার ধর্ম। সবার করা উচিত হরে কৃষ্ণ হরে রাম। আজ পর্যন্ত সনাতনধর্ম এত এত ভাল জিনিস বিশ্বে নিয়ে এসেছে যা বিশ্বমানবের মুক্তির জন্য কল্যাণকর। কিছু কিছু 'দুষ্কৃতিকারী'র কারণে কিছু কিছু প্রাচীন ভাল জিনিস বিদায় হয়ে গেলেও গণসচেতনতা সৃষ্টির মাধ্যমে আপনাদের নেতৃত্বে আবার ফিরিয়ে আনা হবে যেমন সতীদাহ প্রথা, মূর্তিপূজা, বর্ণবৈষম্য, তন্ত্রমন্ত্রের নামে কারণবারি ও নরমাংসভোজন, হরিসংকীর্তনে মোক্ষলাভের উদ্দেশ্যে বোষ্টুমবোষ্টুমি সেজে গঞ্জিকাসেবন ও প্রচুর নারীগমণ _ বলে আসলে শেষ করা যাবে না তাই শেষ করলামও না।  অখন্ড হিন্দুরাষ্ট্র গঠন করুন কোলকাতা থেকেই। পরে বিশ্ববাসী ছুটে এসে যোগ দেবে আপনাদের সঙ্গে। এত উজ্বল ভবিষ্যৎ থাকতে তুচ্ছ ইসলাম ধর্ম নিয়ে মাথা ঘামানোর সময় কোথায় ? সুতরাং পন্ডশ্রম বাদ দিয়ে রামরাজত্ব উদ্ধার করতে নেমে পড়ুন।

      1. 12.1.1
        dilruba

        ধন্যবাদ @ শরীফ ভাই- আমি আপনার মনের কষ্ট বুঝতে পারসি। এই মূর্ত্তিপুজারীর বাচ্চারা কাশ্মিরে আমাদের মুমিন ভাইদের আলখাল্লা/টুপি সাফা কইরা ফালাইসে। সহ্য হয়, কন……….?

      2. 12.1.2
        আহমেদ শরীফ

        না মনে কষ্ট নেই কারণ কোরআনে 'রাব্বুল আলামিন' বলা হয়েছে, 'রাব্বুল মুসলিমীন' বলা হয় নি। আল্লাহ শুধু মুসলিমদের প্রভু নন, বাকি সকলেরও প্রভু। ইসলামের ওপর সঠিকভাবে না চলার কারণেই মুসলিমদের যত দূর্গতি। যদি মুসলিম আল্লাহ-রাসূল(সাঃ) আনুগত্য ঠিকভাবে করে তাহলে অবশ্যই তাদের ওপর কোন জাতিই বিজয়ী হতে পারবে না। সুতরাং মুসলিমদের জয়পরাজয় নির্ধারণের জন্য মুসলিমরা নিজেরাই দায়ী অন্যেরা না।

        ভবিষ্যদ্বাণী অমুযায়ী ক্রমান্বয়ে সব ঘটছে। সারা বিশ্ব ইসলামের ছায়াতলে চলে আসবে। আপনার প্রিয় ভারতবর্ষও আসবে। মুসলিমরা মার খেলে 'নিজের দোষে' খায় ওসব নিয়ে আমি চিন্তিত না। আপনার কি ধারণা মুসলিমদের 'বিধর্মীরা' মারে ? তা না, মুসলিমরা যখন আল্লাহ-রাসূল(সাঃ) এর আনুগত্য থেকে দূরে সরে যায় তখন আল্লাহ স্বয়ং শিক্ষক-অভিভাবকের মত তাদের মেরে শিক্ষা দেন, 'সংশোধন' এর জন্য। অন্যদের শুধু 'ব্যবহার' করা হয় মাত্র।

        আপনাদের কষ্ট যেটা মুসলমানদের দ্বারা অধিকৃত-শাসিত হওয়ার কারণে সেটা হাজার বছরের পুরনো কষ্ট, সেই কষ্ট বুকে চেপে চেপে আপনারা অসুস্থের মত হয়ে গেছেন তবে ভাববেন না, ইন-শা-আল্লাহ ইসলামের ছায়াতলে যখন ক্রমান্বয়ে আসা শুরু হয়ে যাবে তখন কষ্টও আর থাকবে না।

         

        এই মূর্ত্তিপুজারীর বাচ্চারা …

         

        ফর ইওর কাইন্ড ইনফরমেশন 'মূর্তিপূজকের বাচ্চা' বলতে কিছু নেই কারণ কেউ সেভাবে জন্মায় না। প্রত্যেক মানবশিশুই ইসলামী ফিৎরাত বা মৌলিক স্বভাবের ওপর জন্মগ্রহণ করে। পরে পিতা মাতার ধর্ম ধীরে ধীরে তাকে আচ্ছন্ন করে ফেলে, তবে জন্মসুত্রে আশৈশব প্রতিটি মানবশিশুই মুসলিম থাকে।

        1. 12.1.2.1
          dilruba

          পরে পিতা মাতার ধর্ম ধীরে ধীরে তাকে আচ্ছন্ন করে ফেলে, তবে জন্মসুত্রে আশৈশব প্রতিটি মানবশিশুই মুসলিম থাকে।

          বিয়াফুল বিনোদন মুলক কথা শুনাইলেল শরীফ ভাই…….।

      3. 12.1.3
        আহমেদ শরীফ

        আপনার কাছে 'বিনোদনমূলক' শোনালেও এটাই বাস্তব। আপনি জানতে চাইতে পারতেন কেন আমি একথা বললাম এ কথার দলিল কি ? আপনি সেটা করলেন না কারণ আপনার উদ্দেশ্য হল 'অবিশ্বাস' কে আঁকড়ে ধরে রেখে তালগাছ বগলে নিয়েই অন্ধের মত বিতর্ক করা। এরকম করলে সত্যের সন্ধান কোনদিনই পাবেন না। 'সত্যানুসন্ধান' করতে হলে মুক্তমন নিয়ে এগোতে হবে।

        এই কথা আর কারো নয় মহাসত্যবাদি রাসূল(সাঃ) মুখনিসৃত, কাজেই এটি মহাসত্য। নবীগণ(আঃ) যুগে যুগে যখনই বিভিন্ন মানুষের কাছে আল্লাহর দাওয়াত নিয়ে গেছেন অনেকের কাছে ক্ষমতার দম্ভে, ক্ষণস্থায়ী পার্থিব শারীরিক জৈবিক শক্তির দম্ভে, জাত্যাভিমানের দম্ভে নবীদের কথা 'বিনোদনমূলক' মনে হয়েছে। তাদের সংশোধনের জন্য একটা নির্দিষ্ট 'সময়' দেয়া হয়েছে। যাদের ভাগ্য সুপ্রসন্ন তারা তো সংশোধিত হয়েছে, যাদের কপলা খারাপ তারা আর সংশোধের সময় পায় নি।

        1. 12.1.3.1
          এম_আহমদ

          ভাই, বিনোদন যাদের ধর্ম, তাদের সাথে সময় নষ্ট করছেন মনে হয়। এদের প্রাচীন পাথরের দেব মূর্তিগুলোর দিকে লক্ষ্য করুন। দেখবেন উলঙ্গপনা, নগ্নতা, এক দেবতা। এক দেবীকে আরেক দেবতা গর্ভবতী করছে। সেই গর্ভাবস্থায় অন্য এক দেবতা এসে তাকে ধর্ষণ করছে। মায়ের গর্ভে ধারিত ক্ষুদে দেবতা ধর্ষক দেবের বীর্যকে তার পা দিয়ে আটকাবার চেষ্টা করছে। দৌপদীর কথা দেখুন। কয়েক ভাইয়ের মাথা ঠাণ্ডা রাখাই ছিল তার কাজ। এক ভাই যখন মাথা ঠাণ্ডা করতে দ্রৌপদীর ঘরে ঢুকত, তখন দরজায় জুতা রেখে প্রবেশ করত। –এটাই ছিল engaged সিগন্যাল। একবার নাকি একটা কুত্তা (হায়রে কুত্তা) কামড় দিয়ে জুতা সরিয়ে নেয়। অন্য ভাই এসে দেখে সিগন্যাল green, জুতা নেই। আর যায় কই, ধপাস করেই ঘরে প্রবেশ করতেই , মাভৈ, মাভৈ! এই হচ্ছে ধর্ম! প্রাচীন কবি ভবদেব ভট্ট বিষ্ণুর মন্দিরে (temple) শত শত দেবদাসীর কথা উল্লেখ করেন, এগুলো নাকি কামদেবতাদের উত্থান ঘটিয়েছিল। সেনদের আগে গুপ্ত রাজমহলে কামসূত্রের চর্চা হত! ব্রাহ্মণ্যবাদী সেন রাজাগণ (বর্তমানের বাংলা অঞ্চলের, উভয়বঙ্গের) নিম্নশ্রেণীর জনগণের উপর যেসব ইতরি কুকর্ম চাপিয়ে দিয়েছিল তা উপাসনালয়ের ইতিহাস, মূর্তি ও চিত্রের দিকে তাকালেই স্পষ্ট হয়। দেব দেবীদের যৌন উন্মাদনার বিবরণ লোমহর্ষক-ঘৃণ্য। কোথায় যেন পড়েছি এই কামুকগণ গাভীদের সাথে যত্রছত্র কামচরিতার্থ করত। এই সব কুকীর্তি মাথায় নিয়ে ইসলাম বিদ্বেষী অশিক্ষিত হিন্দুরা নাস্তিকতার ভান করে বিভিন্ন নামে মুসলিম ব্লগগুলোতে গিয়ে নিজেদের ধর্মীয় মানসিকতার প্রতিফলন ঘটায়। মানুষের চোখ, তার ফিঙ্গার-প্রিন্ট, তার আচরণ এবং ভাষিক ব্যবহার এক ধরণের unique imprint রেখে যায়। নানান নামে (নিকে) আসলেও শব্দ, বাক্য ও থেমেটিক আচরণ যে তাদের পরিচয় বহন করে সেদিকে তাদের খেয়াল থাকে না।

          [Note: আগের মন্তব্যটি মুছে দেবেন। সেটি একটু এলোমেলো রয়ে গেছে]

        2. মোঃ তাজুল ইসলাম

          ভাই এম আহমেদ, আপনি তো রসের ডিব্বার চেয়ে কোন অংশে কম নন। এই রকম মন্তব্য আরও চাই। 

  16. 11
    নীরব সাক্ষী

    মানবজমিন থেকে

     " শুনেছিলাম দলীয় কর্মীদের মধ্যে শ’ শ’ সাদা পাঞ্জাবি পায়জামা টুপি বিলি করার কথা। ওগুলো পরে হেফাজতি বেশ ধারণ নানারকম দুষ্কর্মে লিপ্ত হওয়ার দৃশ্যও কিছু দেখা গেছে। যেমন… মারপিট, দোকানপাট লুট, ব্যাঙ্ক ও সোনার দোকানে হামলা, অগ্নিসংযোগ, ফুটপাতের বইপত্র ও অন্যান্য দোকানে জ্বালাও পোড়াও, নারী সাংবাদিকের সঙ্গে অশোভন আচরণ, গাছ কাটা ইত্যাদি, ইত্যাদি। এখন বুঝতে পারছি, বিলি করা সে সব টুপি পাঞ্জাবি পায়জামা একেবারে ফেলনা ছিল না, কাজে লাগছে এখনও!

  17. 10
    আহমেদ শরীফ

    হুদাইবিয়ার সন্ধির সময় উরওয়া বিন মাসউদ কাফিরদের তরফ থেকে প্রতিনিধি হয়ে এসে সাহাবীদের(রাঃ) অবস্থা স্বচক্ষে পর্যবেক্ষণ করে মক্কা ফিরে গিয়ে বলেছিল,

    আমি বড় বড় রাজা বাদশাহদের দরবারে গিয়েছি। ইরান,রোম এবং হাবশার বাদশাহদের সাথে সাক্ষাৎ করেছি। কিন্তু মুহাম্মাদ(সাঃ) এর সহচরগণ তাঁকে যে সম্মান প্রদর্শন করে দুনিয়ার কোথাও তদ্রুপ দেখি নাই।

    হুজুরে পাক(সাঃ) এর থুথু মাটিতে পড়ার পূর্বেই তাঁরা সেটিকে হাতে নিয়ে মুখে ও দেহে মেখে ফেলেন। তাঁরা যে কোন আদেশ পালনার্থে সকলে দৌড়ে গিয়ে হাজির হন। হুজুর(সাঃ) এর ওজুর পানি শরীরে ধারণ করার জন্য তাঁদের মধ্যে এমনভাবে কাড়াকাড়ি আরম্ভ হয় যেন লড়াই বেধে যাবে। মুহাম্মাদ(সাঃ) যখন কথা বলেন তখন সকলেই চুপচাপ শুনতে থাকেন এবং তাঁর দিকে চক্ষু উঠিয়ে দেখতে তাঁদের কেউ সাহস করেন না।

    (বোখারি)

    খোবাইব(রাঃ) কে শূলে চড়ানোর পূর্বমূহুর্তে প্রস্তাব দেয়া হয় যদি তিনি হুজুর(সাঃ) সম্মন্ধে শুধু এতটুকু 'মৌখিকভাবে' বলেন যে "খোবাইব(রাঃ) পরিবর্তে হুজুর(সাঃ) কে শূলে চড়ানো হোক এতে তিনি সন্তুষ্ট"(নাউজুবিল্লাহ!) _ তাহলেই খোবাইবকে শূলে না চড়িয়ে মুক্তি দিয়ে দেয়া হবে। 'মৌখিকভাবে' কথার কথা হিসেবেও একথা বলতে মৃত্যুর মুখোমুখি দাঁড়িয়ে খোবাইব(রাঃ) সম্মত হননি বরং বলেছিলেন _ "আমাকে মুক্তি দেয়া হোক তার বিনিময়ে প্রিয়নবী(সাঃ) এর পায়ে একটি কাঁটা বিদ্ধ হোক এটাও আমি বেঁচে থাকতে কোনদিন কবুল করব না"। এই কথা শুনে আবু জেহেল সমবেত সবাইকে উদ্দেশ্য করে বলেছিল _"মুহাম্মাদ(সাঃ) কে তাঁর সাথীরা যে ভক্তি-সম্মান করে তেমনটি আমি দুনিয়ার কোথাও দেখি নি।" এর পর খোবাইব(রাঃ) কে শূলে চড়িয়ে দেয়া হয়। শূলে চড়ানোর মূহুর্তে খোবাইব(রাঃ) আসমানের দিকে তাকিয়ে মুনাজাত করেন "হে আল্লাহ, আমার বিদায়বেলায় জীবনের শেষ সালামখানি প্রিয়নবী(সাঃ) দরবারে পৌঁছে দিন।" আল্লাহ সাথে সাথে হুজুর(সাঃ) এর কাছে তা পৌঁছান এবং বহুদূরে মদিনায় বসেই হুজুর(সাঃ) সাথে সাথে সালামের জবাব দেন "ওয়া আলাইকুমুস সালাম ইয়া খোবাইব"!

    আজ এই দেড় হাজার বছর পরও শুধু হুজুর(সাঃ) এর নামের ওপর জান কোরবান করার মত কোটি কোটি লোক সারা দুনিয়ায় প্রস্তুত। সেই হুজুর(সাঃ) এর যারা অবমাননা করেছে আর যারা তাদের পক্ষাবলম্বন করেছে, তাদের সজ্ঞানে আশ্রয়-প্রশ্রয় দিয়েছে তারা কস্মিনকালে কোন মু'মিনের বন্ধু হতে পারে না, জীবন থাকতে কোন মু'মিন তাদের পক্ষাবলম্বন করতে পারে না। প্রিয়নবী(সাঃ) এর শত্রু যারা তারা আল্লাহরও শত্রু, ফেরেশতাকূল ও সমগ্র মু'মিনের শত্রু, সমগ্র মানবজাতিরও শত্রু, এমনকি _ তারা নিজেরাও নিজেদের শত্রু। তারা অভিশপ্ত, ধ্বংসপ্রাপ্ত, যারা তাদের পক্ষাবলম্বন করবে তাদের অনুগামী হবে তারাও অবধারিতভাবে বিপথগামী হবে, আল্লাহর নির্ধারিত মর্মন্তুদ আজাবে তারাও ধ্বংসপ্রাপ্ত হবে।

  18. 9
    নীরব সাক্ষী

    গতকাল রাতে যুবলীগের নেতাকে তাদের দলীয় কর্মী মোবাইলে কথা বলতে বলতে গুলি করে হত্যা করে। কুকুররা এভাবে কামরা-কামরি করে মরে বা আহত হয়। এসব নতুন ঘটনা নয়। সবচেয়ে চিন্তার বিষয় হচ্ছে যে ঐ সরকারী দলীয় খুনী পাঞ্জাবী, পায়জামা, টুপি পড়ে হুজুর সেজে খুন করে। সে হয়ত ভেবেছিল কেউ দেখবে না। কিন্তু আল্লাহর ইচ্ছায় সিসি টিভিতে তা ধরা পড়েছে। 

    সিসি ফুটেজ না থাকলে আজ টিভি, টকশো গরম হয়ে হেফাজত বা জামাতকে শুলে চড়াত। কি পরিমান ধর-পাকর যে শুরু হতো তা আল্লাহই ভাল জানেন। নাস্তিক্যবাদী/ইসলাম বিদ্বেষীদের  মুসলিম সেজে এধরণের কাজ করে মুসলিমদের ফাসিয়ে দেয়ার অনেক নজির আছে। তুরুস্কে সেক্যুলারিস্ট/মার্ক্সিস্ট কর্মীরা বোমা বিস্ফোরন করে আল-কায়েদা দোষ নিয়ে একেপি পার্টিকে বিপদে ফেলতে চেয়েছিল। এমনকি কোর্টে বিচাররত বিচারককে আল্লাহ আকবার ধবনী দিয়ে গুলি করে এক ইসলামি বিদ্বেষী। পরবর্তীতে এরা ধরা পড়ে। এদের সাথে আর্মি জড়িত ছিল। ঐসব আর্মি অফিসাররা এখন জেলের ভাত খাচ্ছে। 

     অনলাইনে বলাবলি হচ্ছে (সত্য-মিথ্যা জানি না) নিহত যুবলীগ লীডার নাকি ৫ই মে গণহত্যায় পুলিশের সাথে অংশ নিয়েছিল।মানুষ যে এত সহজে খুন করতে পারে তা বিশ্বাস করা কঠিন। 

    আল্লাহ আমাদের সবাইকে রক্ষা করুন। 

     

    1. 9.1
      আহমেদ শরীফ

      সবচেয়ে চিন্তার বিষয় হচ্ছে যে ঐ সরকারী দলীয় খুনী পাঞ্জাবী, পায়জামা, টুপি পড়ে হুজুর সেজে খুন করে। সে হয়ত ভেবেছিল কেউ দেখবে না। কিন্তু আল্লাহর ইচ্ছায় সিসি টিভিতে তা ধরা পড়েছে।  সিসি ফুটেজ না থাকলে আজ টিভি, টকশো গরম হয়ে হেফাজত বা জামাতকে শুলে চড়াত। কি পরিমান ধর-পাকর যে শুরু হতো তা আল্লাহই ভাল জানেন। নাস্তিক্যবাদী/ইসলাম বিদ্বেষীদের  মুসলিম সেজে এধরণের কাজ করে মুসলিমদের ফাসিয়ে দেয়ার অনেক নজির আছে।

       

      বিচিত্র না। যদিও হাজার হাজার পাঞ্জাবি কেনার অভিযোগটি লীগের অনেকে স্বীকার করতে চান নি। হাজার হাজার পাঞ্জাবি কেনার দৃশ্য হয়তো আমরা চোখে দেখিনি বা সরাসরি নিশ্চিতভাবে জানি না, কিন্তু গাজিপুরে আজমতউল্লাহ যে কিছু লোককে হেফাজতকর্মী সাজিয়ে ভোটে জেতার হাস্যকর করুণ চেষ্টা চালিয়েছিল তা তো আমরা ভুলে যাই নি। 

       

      যারা পবিত্র রমজান মাসে পাঞ্জাবি পরে মাথায় টুপি দিয়ে মোবাইল কানে কথা বলতে বলতে অবলীলাক্রমে মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে খুব স্বাভাবিকভাবে একজন মানুষকে হত্যা করতে পারে _ তারা পাঞ্জাবি পরে টুপি মাথায় দিয়ে তান্ডব চালিয়ে কোরআন পুড়িয়ে হেফাজতের ওপর দায় চাপালে তাতে অবাক হবার কি আছে বুঝলাম না। মানুষকে কষ্ট দিয়ে চাঁদাবাজি-খুন-হত্যা-নির্যাতন যারা নিত্যদিন করে অভ্যস্ত তাদের আবার কোন ইসলাম আছে নাকি ! এই মিল্কিই নাকি মতিঝিল শাপলা চত্বরে মুসলিমনিধনযজ্ঞে যুবলীগ নামধারী জল্লাদদের নেতৃত্ব দানকারী একজন ছিল। মিল্কিকে হত্যাকারী তারিকও নাকি প্রায় ৬০ জনের মত লোককে খুন করেছে, হাসতে হাসতে খুব স্বাভাবিকভাবে খুন করা নাকি তার স্পেশালিটি। কাজেই এই জাতীয় ক্রিমিনালদের দ্বারা কোন অপকর্মই যে অসম্ভব নয় সেটা বলাই বাহুল্য।

    2. 9.2
      এম_আহমদ

      সিসি ফুটেজ না থাকলে আজ টিভি, টকশো গরম হয়ে হেফাজত বা জামাতকে শুলে চড়াত।

      শুধু কি তাই? এই বেঈমানের জাত গন্ডায় গণ্ডায় সাক্ষী পেত! আর তাদের মিডিয়া তুলপাড় করত। আর তাদের চেলা-চামুণ্ডাগণ? হায়রে, সেকী নাটক করত ওরা! 

      1. 9.2.1
        মহিউদ্দিন

        সাযযাদ কাদির সাহেবের নিবন্ধ থেকে  :

        "মাথায় সাদা টুপি। পরনে সাদা পাঞ্জাবি ও পায়জামা। যেন এক সফেদ মুসল্লি, তারাবি নামাজ সেরে বেরিয়েছেন ঈদের কেনাকাটায়। এক হাত দিয়ে কানে ধরে রেখেছেন সেলফোন, কথা বলছেন কারও সঙ্গে। কিন্তু তা নয়। অন্য হাতে তার উদ্যত রিভলবার। সে রিভলবার থেকে একের পর এক বেরোয় গুলি। রাজপথে লুটিয়ে পড়ে শিকার। মোটর সাইকেলে চেপে সাঁ করে বেরিয়ে যায় মুসল্লিবেশী।
        ৩০শে জুলাই রাতে এ খুন ঘটে প্রকাশ্যে। রাজধানী ঢাকার অভিজাত এলাকা গুলশানে, জমকালো বিপণি ‘শপারস্ ওয়ার্ল্ড’-এর সামনে। খুনের পুরো দৃশ্য ধরা পড়ে ওই বিপণির সামনে থাকা ক্লোজ সারকিট ক্যামেরায়। এরপর দ্রুত তা ছড়িয়ে পড়ে মিডিয়ায়। দেশবাসী দেখতে পান ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের যুব সংগঠন যুব লীগের ঢাকা মহানগর (দক্ষিণ)-এর সাংগঠনিক সম্পাদক রিয়াজুল হক খান মিল্কী’র নৃশংস হত্যাদৃশ্য।
        এ খবর দ্রুত ছড়িয়ে পড়ার একটি কারণ সম্ভবত পোশাক দেখে খুনিকে হেফাজত বা জামায়াত-শিবির কর্মী ভেবে মহল বিশেষের উৎসাহিত হয়ে পড়া। যেন এক মোক্ষম সুযোগ পাওয়া গেছে প্রচার-অভিযান চালিয়ে তাদের ঘায়েল করার। কিন্তু র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) দ্রুত খুনিকে গ্রেপ্তার করে পানি ঢেলে দেয় সে উৎসাহে। জানা যায়, খুনি অন্য কেউ নয় -- যুবলীগেরই আরেক নেতা। তার নাম এইচ এম জাহিদ সিদ্দিক তারেক। সে যুবলীগের ঢাকা মহানগর (দক্ষিণ)-এর যুগ্ম সম্পাদক। তবে যুবলীগের কয়েকজন নেতা জানিয়েছেন, তারেক নয় খুনি সাখাওয়াত হোসেন চঞ্চল।"

        বাকীটু এখানে পড়ুন

        1. 9.2.1.1
          এম_আহমদ

          ক্রিমিনেল রাষ্ট্র

          আজ ডেইলি নিউজ পত্রিকা সম্পাদক নুরুল কবিবের "বিচারবহির্ভূত হত্যাকান্ড -অনুমোদনকারী রাষ্ট্র নিজেই ক্রিমিনাল প্রতিষ্ঠান" -এই কথাগুলোর তাৎপর্য লক্ষ্য করুন।

          রাষ্ট্র নিজেই ক্রিমিনাল প্রতিষ্ঠান –এই কথাটি অর্থের দিক দিয়ে অত্যন্ত প্রাচুর্যপূর্ণ। এরই অধীনে চলছে এক ক্রিমিন্যাল বিচারব্যাবস্থা।. দেশ এক নাজুক পরিস্থিতিতে। আজকের শাসক দল, তাদের অংশ সংগঠন (আ’লীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগ) ও কমিউনিস্ট সহযোগীরা হচ্ছে সবচেয়ে বড় “সন্ত্রাসী” –এরা মাফিয়া। এদের হাত থেকে দেশ ও জাতি কীভাবে পরিত্রাণ পাবে সেটাই হচ্ছে চিন্তার বিষয়। 

        2. এম_আহমদ

          রেন্টুযজ্ঞী সন্ত্রাসীদের কুকর্ম এখানে দেখুন। বেঈমান ডাকাত, গুণ্ডা, হন্তা, হুমকীবাজ এরাই বুঝি

          জাতির প্রতিনিধি, দেশ প্রেমিক! লোপা যদি গোলাম আযমের রায়ের প্রতিবাদ কালে মিল্কীর অবস্থানের খবর দিতে সমর্থ হত তবে মিল্কি মরে যেত বটে কিন্তু ফাঁসিয়ে যেত শিবির/জামাত। আর চামচা-চাটুকারগণ ইসলাম দরদী হয়ে জামাত নির্মূলের সংগীত তুলত! আর লুঙ্গি মাথায় বেঁধে চিৎকার করত: সন্ত্রাস, সন্ত্রাস। আর কতকিছু ঘটলে সন্ত্রাসী দলগুলো নিজেদের সন্ত্রাস দেখতে পাবে? এরা বিবর্তনবাদীদের মত, নিজেদের ব্যাপারে অন্ধ হয়ে কেবল ‘জামাত জামাত’ করছে।  

           

  19. 8
    এম_আহমদ

    [পশ্চিমা সাম্যাজ্যবাদীদের] সহায়তায় এরা [রাম-বাম, লাল ও স্পেসিফিক্যালি শাহরিয়ার/মুসতাসীরের গ্রুপ] এখন গড়ে তোলেছে আর্ন্তজাতিক নেটওয়ার্ক। বাংলাদেশের সেক্যুলারিষ্টদের গুরু শাহরিয়ার কবিরের সাম্প্রতিক লিখিত “ লন্ডন থেকে আঙ্কারা (দুই) জামায়াতের আন্তর্জাতিক নেটওয়ার্ক ॥ বিপন্ন ধর্মনিরপেক্ষ গণতন্ত্র"  শীর্ষক নিবন্ধটি পড়লে এ কথার ইংগিত পাওয়া যায়।

    উল্লেখিত মিথ্যাবাদী প্রোপাগান্ডিস্ট গ্রুপ রাষ্ট্র-ব্যবস্থা ও রাজনৈতিক প্রক্রিয়া থেকে ধর্মের স্থান উঠিয়ে দিতে জামাতকে জুজু বানিয়ে জাতিকে প্রায় দুই দশক ধোঁকা দিলেও এখন হাঁটু পানিতে তাদের নৌকা ডুবি! এদের মতোদের অবস্থা সর্বত্রই আস্তে আস্তে গুটিয়ে  আসছে। আল্লাহ বলেন, ইন্নাহুম ইয়াকীদূনা কাইদাও ওয়া আকীদূ কাইদা/ফামাহহিলিল কাফিরিনা আমহিল হুম রুওয়াদা –তারা কৌশল করে, আমিও কৌশল করি, তাই কাফিরদেরকে অবকাশ দিন, কিছু কালের অবকাশ। (সূরা তারিক)।

    নন্দলালরা ‘দেশ মাতৃকার’ পবিত্র-প্রেমে উদ্ভূদ্ধ হয়ে জনগণের  কোটি কোটি টাকা অপচয় করে, বিশ্ব ব্যাপী একটি নাস্তিক-মুরতাদ-কমিউনিস্ট  নেটওয়ার্ক তৈরি করে, সিভিল ময়দানে ‘দ্বিতীয় মহা-যুদ্ধ’ সাজিয়ে, দেশের জনগোষ্ঠীকে পরস্পরের মুখামুখি দাঁড় করিয়ে এবং এই যুদ্ধ-প্রক্রিয়ায় অনেক নিরীহ প্রাণের হানি ঘটিয়ে অবশেষে  মহাযোদ্ধাগণ হতাশ। নির্মূলের দল মিশর, পাকিস্তান, ইরান, তুরস্ক, আরবের বিভিন্ন দেশ, ব্রিটেন, আমেরিকা ও ইউরোপের বিভিন্ন দেশ ঘুরে ঘুরে নিজেদের বিশ্বাস, আদর্শ ও ধর্মের যোগসুত্র তৈরি করে, অবশেষে, ‘বলো কি বিঘৎ নাকে দিব খত যা বলো করিব তাহা/তখন সকলে বলিল – 'বাহবা বাহবা বাহবা বাহা!' আজ আল্লাহর হুকুমেই তারা এখানে।

    আজ নন্দলালরা নিরাশায় আচ্ছন্ন। শুনেন, মহারতির কথা, ‘একাত্তরে যারা অপরাধ করেছে তাদের বাঁচাতে পুরো রাষ্ট্র এক হয়ে গেছে। … পুরো দেশের বড় একটি অংশ এখন জামায়াত-শিবিরের রাজনীতিকে সমর্থন করছে। জামায়াত-শিবির নিষিদ্ধ হোক এটাও অনেকে চায় না। গোলাম আযম থেকে আহমদ শফী পর্যন্ত সবাই এখন তাদের সুনজরে। আহমদ শফী নারীকে এতো বড় অসম্মান-অবমাননা করার পরও কোনও ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি।’ আহারে! এত ক্ষতি সাধন করে বুঝি এখানে, এই সমঝে? ‘এখন আর শুদ্ধ আওয়ামী লীগও নেই, শুদ্ধ মুক্তিযোদ্ধাও নেই।’ হায়, হায়! কলিজা ফাঁইট্ট্যা যায়। এই হতাশা মুনতাসীর মামুনের, শাহরিয়ার কবীরের, আরিফ জেবতিকের, আসিফ মহিউদ্দিনের ও ইমরান সরকার গংদের! 

    পক্ষান্তরে এদের আদালতি হত্যা-প্রসেসে (জুডিশিয়াল কিলিংগ) যাদের মৃত্যুদণ্ড/যাবৎ জীবন হয়েছে তারা নিজেদের বিশ্বাসের অটল, তারা নিজেদেরকে সংযত করে বলতে পারছেন, মৃত্যুর ফরমান তো কেবল আসমান থেকেই আসতে পারে, ধরা থেকে নয়। এখানেই দুই দলের পার্থক্য।

    ফেরাউন পক্ষ এক সময় ব্যর্থ হতে বাধ্য। বিশ্ব ব্যাপী যে ইসলামী জাগরণ শুরু হয়েছে তা তাগুত-পক্ষ বেশি কাল রোধে রাখতে পারবে না। তাগুত-পক্ষের কর্মকে মনে হয় আল্লাহ যুক্তিসংগত করে তুলেছেন। ‘যে ব্যক্তির জন্য তার মন্দ-কর্মকে যুক্তিসংগত (শোভনীয়) করে তোলা হয়, সে কি ঐ ব্যক্তির সমান যে মন্দকে মন্দ মনে করে? নিশ্চয় আল্লাহ যাকে ইচ্ছা পথভ্রষ্ট করেন এবং যাকে ইচছা সৎপথ প্রদর্শন করেন।’ (সূরাহ ফাতির/৮)। ‘আর এভাবেই ফিরআউনের জন্য তার মন্দকর্মকে যুক্তিসংগত (চিত্তাকর্ষক) করে দেখানো হয়েছিল এবং সঠিক পথ থেকে তাকে নিবৃত্ত করা হয়েছিল। আর ফিরআউনের ফন্দি-ফিকির শুধু ধ্বংসেই পর্যবেশিত হয়েছিল।’ (সূরা গাফির/৩৭) 

    1. 8.1
      এম_আহমদ

      =যে ব্যক্তির জন্য তার মন্দ-কর্মকে যুক্তিসংগত (শোভনীয়) করে তোলা হয় এবং সে শোভনীয় হিসেবে দেখে, সে কি ঐ ব্যক্তির সমান যে মন্দকে মন্দ মনে করে…   

  20. 7
    আহমেদ শরীফ

    এ যুদ্ধের (১)এক পক্ষে আছে সেক্যুলার বামপন্থী ও ইসলামকে অন্যান্য ধর্মের মত একান্ত নিজস্ব ব্যক্তিগত কালচারাল বিষয়ে সীমাবদ্ধ রাখার পক্ষে যারা গতানুগতিক বস্তুতান্ত্রিক জীবনাদর্শের ও পশ্চিমা সাম্রাজ্যবাদী গুষ্টির আশীর্বাদ পুষ্ট তথাকথিত আধুনিক চিন্তাধারার অনুসারী

     

    এরা না ইসলামে বিশ্বাস করে, না ইসলাম অনুযায়ী চলেছে, না ইসলাম ও মুসলিমের কল্যাণকামী কোন গোষ্ঠি। কোরআনের ভাষায় চুলচেরা বিশ্লেষণ করলে এদের খোদাদ্রোহী নাফরমান শক্তি হিসেবেই দাঁড় করাতে হয়, যাদের শয়নে-স্বপনে-জাগরণে-চিন্তায়-চেতনায়-জীবনে-মরণে ইসলামের কোন নামগন্ধ নেই, আল্লাহর সাথে কোন সম্পর্ক নেই। সারা জীবন এরা ইসলামকে একটা অপরয়োজনীয় পশ্চাৎপদ বিষয় হিসেবে ব্যঙ্গবিদ্রুপ করে যায় শুধু মরার সময় মুসলিমসমাজভুক্ত হওয়ায় এদেরও জানাজা-কুলখানি-খতমে কোরআন হয় বটে, সেরকম রাসূল(সাঃ) এর যুগে সাহাবা(রাঃ) এর যুগেও মুনাফিকদেরও জানাজা হয়েছে। দুনিয়াতে বাহ্যিকভাবে মুসলিমসমাজভুক্ত হলেও আল্লাহর দরবারে এরা মুসলিম হিসেবে গণ্য হবে কি না সেটা কেয়ামতের দিনের আগে পুরোপুরি বোঝা যাবে না। 

     

    আর (২) অন্য পক্ষে আছেন ইসলামী মূল্যবোধ বিশ্বাসী যারা ইসলামকে নিছক একটি ধর্ম ছাড়াও জিবন ব্যবস্থা (code of life) মনে করে এবং ইসলামের সার্বজনীন আদর্শ ও ন্যায় বিচারের ভিত্তিতে রাষ্ট্রীয় ও সামাজিক ব্যবস্থায় সুশাসন প্রতিষ্ঠা করতে চান।

     

    ব্যক্তি-সমাজ-রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে ইসলামী অনুশাসন তথা আল্লাহর হুকুমসমূহ প্রতিষ্ঠার 'পদ্ধতিগত' ব্যাপারে দ্বিমত থাকতে পারে কিন্তু কালিমায়ে তাওহীদে বিশ্বাসী দাবি করলে সর্বস্তরে ইসলাম প্রতিষ্ঠার আকাঙ্খা রাখতেই হবে, না রাখলে ধরে নিতে হবে 'ঈমান' এখনো অন্তরে যথার্থভাবে প্রোথিত হয় নি, আল্লাহর ভালবাসা তথা আল্লাহর হুকুমসমুহের ভালবাসা সম্মন্ধে প্রকৃত ধারণার উদ্ভব ঘটে নি। একজন মু'মিনের অন্তরে আল্লাহর পরিচয়, আল্লাহর রাসূল(সাঃ) এর পরিচয়, পরকালের স্পষ্ট ধারণা যা থেকে জন্ম নেয় দৃঢ় অভিজ্ঞতালব্ধ 'ঈমান' এসব না আসা পর্যন্ত আদৌ 'মু'মিন' হয় না। ঈমান কোন অন্ধ বিশ্বাস না, এটি 'বাস্তব অভিজ্ঞতালব্ধ' বিষয়। যেহেতু ঈমানপ্রাপ্ত হওয়া আল্লাহর বিশেষ ইচ্ছার ওপর নির্ভর সেহেতু ঈমানহীন মানুষের নিজের অজ্ঞতা-অন্ধত্বের কারণে ঈমানদারের ঈমানকে 'দূর্বোধ্য' মনে হয়।

    যাই হোক, ঈমানের দাবি অনুযায়ী মু'মিন নিজে আল্লাহর হুকুমসমূহ শিরোধার্য করে ব্যক্তিজীবনে পালন করবেন, পাশাপাশি আল্লাহর বাকি অন্যান্য বান্দাগণও যাতে পালন করেন সেই আকাঙ্খা পোষণ করবেন, সেই আকাঙ্খার কার্যকর বাস্তবায়নে নিজের যথাসাধ্য অবদান রাখার চেষ্টা করবেন। এরই ধারাবাহিকতায় নিজের সমাজে-রাষ্ট্রে সকল ব্যক্তি-গোষ্ঠির মাঝে আল্লাহর হুকুমসমূহ বিভিন্ন স্তরে সার্বজনীনভাবে পালিত হোক এই প্রত্যাশা অন্তরে পোষণ করবেন। এর বিপরীত একজন মু'মিন করতে পারেন না। 'মু'মিন' হলে অবশ্যই নিজে আল্লাহর হুকুম লঙ্ঘন নিজের জন্য 'গুরুতর' মনে করবেন _ তেমনি সমাজ-রাষ্ট্রের অভ্যন্তরিস্থ লোকদর জন্যও ক্ষতিকর মনে করবেন স্বাভাবিকভাবেই। নিজে ব্যক্তিগতভাবে আল্লাহর হুকুম পালন করবেন কিন্তু সমাজে-রাষ্ট্রে ব্যপকভাবে আল্লাহর হুকুম লঙ্ঘিত হতে দেখেও তার ভ্রুকুঞ্চন ঘটবে না, কোন বিকার ঘটবে না _ এরকম হলে তিনি 'মু'মিন' নন, অন্য কিছু।

     

    সেকুলার বনাম ইসলামের এ যুদ্ধে আপাতত সেকুলারদের বিজয় দেখলেও শেষ পর্যন্ত তাদের পরাজয় হবে মুসলিম দেশে যার আলামত ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গিয়েছে।

     

    আলামত থাক বা না থাক, হাদিসে বর্ণিত ভবিষ্যদ্বাণী অনুযায়ী ইসলাম ও মুসলিমদের চুড়ান্ত বিজয় অবশ্যই আল্লাহর ইচ্ছায় যথাসময়ে ঘটবে। বাতিলের নিয়মই হচ্ছে প্রথমে সুবিধাজনক ভাল অবস্থায় থাকবে। একেবারে ঝাঁ চকচকে ঝকঝকে তকতকে। এভাবে কিছুকাল চলবে। যারা মুনাফিক, সুবিধাবাদি তারা মু'মিনদের থেকে আলাদা হয়ে এই সুযোগে বাতিলের চাকচিক্যে আকৃষ্ট হয়ে ওদিকে চলে যাবে। মু'মিনদের অবস্থা প্রথমে হয় খারাপ। বাতিলের প্রাথমিক অবস্থা সাধারণতঃ হয় ভাল।

    বাতিলকে আল্লাহ কিছু সময় লাফাতে দেন এবং কিছু প্রতারণামূলক বিজয়ের লক্ষণ দেখান। ফলে তারা আরো উত্তেজিত হয়ে নাফরমানির লাইনে আরো আগে বাড়তে থাকে। মু'মিনদের আল্লাহর আনুগত্য করা সত্বেও দূর্ভোগ, কষ্ট, বিপদাপদ, সাময়িক পরাজয় ইত্যাদি চাপিয়ে দেন ঈমানকে পরীক্ষা করার জন্য, ঈমানকে কামারের লোহা পেটানোর মত শক্ত-দূর্ভেদ্য করার জন্য। মু'মিন পরীক্ষায় পড়লেও আল্লাহর সাহায্যের কারণে বেশি ঘাবড়ে বা গিয়ে দুঃখকষ্ট সত্ত্বেও আল্লাহর আনুগত্যের লাইনে আরো মজবুত হয়।

    পরে ধীরে ধীরে বাতিলের অবস্থা খারাপ হতে থাকে, খারাপের দিকে পরাজয়ের দিকে ধ্বংসের দিকে যেতে থাকে। অন্যদিকে মু'মিনদের অবস্থা ধীরে ধীরে ভালর দিকে যেতে থাকে। শেষ পর্যন্ত বাতিল চুড়ান্তভাবে ধ্বংস হয় আর হক্বওয়ালা মু'মিনগণ আল্লাহর মেহেরবানিতে 'নিরাপত্তা' 'বিজয়' 'সম্মান' লাভ করে ধন্য হন। এ হল দুনিয়ার হিসাব। আখেরাতের হিসাব হল এই _ মু'মিনগণ ঈমান ও আ'মাল তথা আল্লাহর আনুগত্যের কারণে চিরস্থায়ী সাফল্যের বিরাট রাজত্ব জান্নাত লাভে সসম্মানে ধন্য হন, আহলে বাতিল আল্লাহর প্রতি অবিশ্বাস তথা আল্লাহর নাফরমানি-অবাধ্যতার কারণে চিরশাস্তির মহা বরবাদির আগুণের কারাগার জাহান্নামে অপমানিত-ভীতসন্ত্রস্ত অবস্থায় নিক্ষিপ্ত হয়।

    বাতিল যাকে 'বিজয়' মনে করছে সেটি খুবই সাময়িক একটি 'কুহক'। বাতিলের নিশ্চিন্ত উল্লম্ফনের বাস্তবতা হচ্ছে নিবিড় পর্যবেক্ষণাগারে একটি ছোট্ট খাঁচার ভেতর কিছু ইঁদুরের আস্ফালন। যেসব ইঁদুরকে কিছু পরেই ফুটন্ত পানিতে সেদ্ধ করা হবে যা প্রতিরোধ করার শক্তি তাদের থাকবে না। সেদ্ধ করার আগ পর্যন্ত ভাল ভাল দানাপানি খেতে দেয়া হলেও ইঁদুরগুলোর পরিণতি অত্যন্ত নির্মম।

    পক্ষান্তরে মু'মিনগণ বাহ্যিকভাবে খুবই অবহেলিত-নির্যাতিত-ক্ষতবিক্ষত মনে হলেও আসলে তারা ভাগ্যবান। কারণ ভুলত্রুটি-ভোগান্তির হিসেবের কানাকড়ি দুনিয়াতেই চুকিয়ে দিয়ে চিরকালের জন্য নিরাপদ হয়ে যান তারা, যার পরে আর কোন শাস্তি অবশিষ্ট থাকে না। পাশাপাশি ঈমানের পরীক্ষায় অটল থাকলে আল্লাহ মেহেরবানি করে দুনিয়াতেও মহান বিজয় সহজে দান করে তাদের ধন্য করে থাকেন।

    এসবই হচ্ছে আল্লাহর 'নিয়ম'। আজ পর্যন্ত এই নিয়মের ব্যতিক্রম কখনো ঘটেনি। কেয়ামত পর্যন্ত কখনো ঘটবেও না। আইনপ্রণেতা, আইনের শাসন বদলায়নি _ প্রজাগণ কোন পথে যাবে সেটি তাদের ব্যাপার। ভালমন্দের জ্ঞান ও নিজের পথ বেছে নেবার স্বাধীনতা সবাইকে দেয়া হয়েছে, যে যে পথে যাবে তার গন্তব্যে সে নিজেই পৌঁছে যাবে, যে যেরকম বৃক্ষ রোপণ করবে তার ফলও সে নিজেই ভোগ করবে, করতে প্রত্যেকেই বাধ্য।

    1. 7.1
      মহিউদ্দিন

      আহমেদ শরীফ ভাই,
      মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ। আসলেই বর্তমানে মুসলিম বিশ্বে যা হচ্ছে তাতে হক এবং বাতিলের মাঝে কে কোন অবস্থানে আছেন তা পরিষ্কার হয়ে যাবার এক ক্ষেত্র সৃষ্টি হয়েছে এবং সেই সাথে মুসলিম সমাজের শুদ্ধি অভিযান চলছে বললেও হয়তবা ভুল হবেনা। বাংলাদেশের কথাই চিন্তা করেন দেশের সর্বোচ্চ ক্ষমতার মসনদে বসে কেউ যখন বলেন আমি আল্লাহ রাসুলে বিশ্বাস রাখি পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ি আমাকে বিশ্বাস করুন আমি মিথ্যা বলি না, আমার মন্ত্রীরা দুর্নীতি করে নাই। বিশ্ব ব্যাংক মিথ্যা বলেছে। তখন জনগণ তা বিশ্বাস করে তারপর যখন হেফাজতে ইসলামের উপর অত্যাচার হয় তারপর সংসদে এসে সদিচ্ছায় গর্ব করে বলেন হেফাজতের কর্মীরা গায়ে রং মেখে শুয়ে ছিল। সে রাত্রে যা ঝরে ঢাকার রাস্তা লাল করেছিল এবং যা পরিষ্কার করতে ঢাকা পৌরসভার পানির ট্যাংক ব্যবহার করা হয়েছিল তা ছিল অশিক্ষিত মানুষের সাথে নিয়ে আসা লাল রং। এখন চিন্তা করেন আল্লাহ কিভাবে সত্যকে মিথ্যা থেকে আলাদা করেন।
      এটি ঠিক মুসলিমদের রক্ত ঝরছে হয়তবা আরো ঝরবে কিন্তু শেষ পর্যন্ত সময়মত আল্লাহ তাঁর প্রিয় বান্দাদেরকে বিজয় দিবেন এতে কোন সন্দেহ নাই।
       

      1. 7.1.1
        আহমেদ শরীফ

        বর্তমানে মুসলিম বিশ্বে যা হচ্ছে তাতে হক এবং বাতিলের মাঝে কে কোন অবস্থানে আছেন তা পরিষ্কার হয়ে যাবার এক ক্ষেত্র সৃষ্টি হয়েছে এবং সেই সাথে মুসলিম সমাজের শুদ্ধি অভিযান চলছে বললেও হয়তবা ভুল হবেনা।

         

        হাদিসে পাকে ইঙ্গিত করা হয়েছে এক জামানা আসবে যখন মানুষ সকাল করবে মু'মিন অবস্থায় কিন্তু সন্ধ্যা করবে কাফির অবস্থায় ! এমন এমন অনেক কাজ এমনকি সামান্য কথার দ্বারাও ঈমান চলে যেতে পারে। যেমন সারাজীবন নামাজ না পড়লেও 'কাফির' হয় না, বেনামাজি হয়, গুণাহগার হয়। কিন্তু ইসলামের কোন ফরজ হুকুম এমনকি সুন্নাত বা মুস্তাহাবকেও যদি ইচ্ছাকৃতভাবে ব্যঙ্গ করে তাহলে ইসলামের হুদুদ বা সীমানা থেকে বের হয়ে যায়। নতুনভাবে তওবা করে আবার ঈমানকে নবায়ন না করে ওই অবস্থাতেই যদি মৃত্যু হয় কুফরির ওপর হবার জোর সম্ভাবনা। 'মডারেট মুসলিম' নামধারী আধুনিকমনা আমাদের মুসলিমসমাজে আজ অনেকেই আছেন যারা ইসলামের অনেক হুকুমকে সেকেলে বা যুগ অনুপযোগী মনে করে মনে মনে তাচ্ছিল্যের দৃষ্টিতে দেখেন, অনেক সময় মুখেও সেটা প্রকাশ করে ফেলেন। ইসলামের আহকামসমূহের প্রতি তাচ্ছিল্য অন্তরে পোষণ করে লুকিয়ে রাখা 'নিফাক্ব', প্রকাশ করা 'কুফরি'। অথচ এটি অনেকেই জানেন না, এটির গুরুত্ব সম্মন্ধে ওয়াকিবহাল নন বলে সচেতনও নন।

        ইসলামের মেজাজ হচ্ছে কেউ যদি ইসলামের আহকামসমূহ পুরোপুরি মানতে না পারে একই সঙ্গে মানতে না পারা বা না মানার জন্য মানসিকভাবে নিজেকে অপরাধী মনে করে _ সেটা গ্রহণযোগ্য, তাতে দূর্বল মু'মিন হিসেবে পরিগণিত হবে। নিজে মানতে পারে না বা মানে না, আবার না মানার জন্য নিজেকে অপরাধী ভাবে না, উপরন্তু না মানাকে বৈধতা দেয়ার জন্য উল্টো আরো যুক্তি দেয় এবং দম্ভ প্রকাশ করে _ এরা সুস্পষ্টভাবে আল্লাহর বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষণাকারীর মত। আজ মুসলিম নামধারীদের মাঝে এ ধরণের অনেক লোক বিদ্যমান।

        ৫ ই মের ঘটনা বাংলাদেশের ইসলামের ইতিহাসকেই শুধু পাল্টে দেয়নি, বিশ্বমুসলিম উম্মাহর পুনর্জাগরণের বৈশ্বিক প্রক্রিয়ার একটি অংশ হিসেবে প্রতিভাত হয়েছে। মুসলিম সমাজে লুকিয়ে থাকা অনৈসলামিক সংষ্কৃতির ধারক-বাহক-অনুসারীদের এমন সুস্পষ্টভাবে চিহিৃত করা হয়েছে যা বাংলাদেশে এর আগে কখনো হয় নি। আল্লাহ ও রাসূল(সাঃ) এর অবমাননার মত এত চরম মৌলিক ইস্যুর উপস্থিতি সত্ত্বেও এমনকি বাহ্যিকভাবে অনেক নামাজি মু'মিনেরও হেফাজতের দাবির সাথে মনেপ্রাণে ঐক্যমত্য হওয়া সম্ভব হয় নি তাতে খুব স্বাভাবিকভাবেই বিভাজন স্পষ্ট হয়ে গেছে। এটি এমন একটি ইস্যু যা পুরোপুরিই ধর্মতাত্ত্বিক, এতে রাজনৈতিক হিসেবেনিকেশ পক্ষাবলম্বনের কোন সুযোগই নেই, রাজনৈতিক কারণের অবতারণা-ব্যাখ্যা করে মু'মিনদের হেফাজতের বিরুদ্ধে যাবার কোন সুযোগ আসলেই নেই। সেই চেষ্টা যারা করেছে তারা মেইনস্ট্রিম মুসলিম সোসাইটি থেকে আধ্যাত্মিকভাবে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে, যারা সেই চেষ্টা এখনো করছে ও করে যাবে তাদেরও একই পরিণতি হবে।

        মিশর বা বাংলাদেশে সেকুলারপন্থিদের যা সুযোগ দেয়া হয়েছে সেটি সাময়িক, রাষ্ট্র-প্রশাসন-সামরিক শক্তি 'সাময়িকভাবে' সেকুলারপন্থিদের অনুকূলে থাকবে। আল্লাহতা'লা 'জাস্টিফিকেশন' তৈরি করেন কাফিরদের বিরুদ্ধে 'আজাব' নাজিল করার জন্য। কাজেই তাদের যদি নির্যাতন-হত্যা করার সুযোগ দেয়া না হয় তাহলে 'জাস্টিফিকেশন' দাঁড় করানোও যায় না। নিরস্ত্র মুসলিমদের হত্যার সুযোগ দেয়া একদিকে তাদের 'বিরুদ্ধে' জাস্টিফিকেশন, আবার মুসলিমদের 'পক্ষে' গায়েবি সাহায্য, দুনিয়ার যন্ত্রণা-দূর্ভোগের কারাগার থেকে সহজে নিরাপদে সরাসরি মুক্তিলাভ।

        মিশরে ব্যপক গণহত্যা চালিয়ে শত শত মুসলিমকে শহীদ করেও যেমন আন্দোলন স্তব্ধ করা যাচ্ছে না _ তেমনি বাংলাদেশে হেফাজতের আন্দোলনকেও স্তব্ধ করা সম্ভব হবে না। এটি দুনিয়ার কোন মানবরচিত আদর্শ নয়। ইসলামের মৌলিক ইস্যুতে, আল্লাহ-রাসূল(সাঃ) এর খাঁটি মহব্বতে উদ্বুদ্ধ হয়ে প্রাণ অতি সহজে দান করতে পারে এরকম লক্ষ লক্ষ রাসূলপ্রেমিক মু'মিন এখনো জীবিত এবং পেশিশক্তি-অস্ত্রের জোরে আর খুব বেশিদিন এনাদেরকে ঠেকিয়ে রাখা সম্ভব হবে বলে মনে হয় না। আগুণের মধ্যে ঘি ঢাললে যেমন আগুণ আরো প্রজ্বলিত হয় _ রাসূল(সাঃ) এর প্রেমও তেমনি, রক্তের প্রতিটি ফোঁটা ঈমানি আন্দোলনকে স্তব্ধ করার পরিবর্তে আরো বহুগুণে বেগবান করবে। 

      2. 7.1.2
        আহমেদ শরীফ

        ঈমান চাপিয়ে দেয়া কোন ব্যাপার নয় বরং স্বতঃস্ফূর্ত লেলিহান আগুণের মত যা শিখা নিক্ষেপকারী। মুহাম্মাদ(সাঃ) এর বিরাট জান্নাতি বাগানের এক একটি ফুলের মত এক একজন মু'মিন, উম্মতে মুহাম্মাদি। পুরো বিশ্বমুসলিম একটি দেহের মত, যে কোন অংশে আঘাতপ্রাপ্ত-রক্তাক্ত হলে সারা দেহে খবর হবে। মুসলিমের রক্ত বাংলাদেশের শাপলা চত্বরেই ঝরুক কিংবা মিশরের রাবেয়া স্কোয়ারেই ঝরুক _ মুসলিম হলে অন্তরে রক্তক্ষরণ হবেই সেখানে কোন রাজনৈতিক বা মানবরচিত কোন মতাদর্শের কোন ধোঁকার কুয়াশা সেখানে প্রভাব ফেলতে সমর্থ হবার কথা না।

        এই উম্মত স্বয়ং রাসূল(সাঃ) ও তাঁর সাহাবায়ে কেরাম(রাঃ) এর রক্ত দিয়ে তৈরি হয়েছে, এই ঐক্যকে যারা টুকরো টুকরো করবে আল্লাহতা'লাও তাদের টুকরো টুকরো করে দেবেন। আখেরাতে বিরাট আজাব তো আছেই, এটি আল্লাহর কাছে এত গুরুতর যে দুনিয়াতেই তাদের ধরা হবে এবং কঠোরভাবে ধ্বংস করা হবে। মুসলিমদের ঐক্যে ফাটল ধরানোর একটি মাত্র কথার কারণে খোদ একজন সাহাবা(রাঃ) কেই পাকড়াও করা হয়েছিল, তাঁকে জ্বীনেরা হত্যা করে ফেলেছিল, শুধু তাই নয় হত্যার পর মদিনায় অদৃশ্য আওয়াজ দিয়ে বলেছিল যে "আমরা তাকে হত্যা করে ফেলেছি", শুধু আওয়াজ শোনা গিয়েছিল সারা মদিনায়, আওয়াজকারীকে দেখা যায় নি। মুসলিমদের ঐক্যকে জোড়া লাগানোর একটি কথা আল্লাহর কাছে এমন পছন্দনীয় যে কেয়ামত পর্যন্ত আল্লাহ রহমতের ফায়সালা স্থায়ীভাবে নিয়ে ফেলতে পারেন কোন বান্দা সম্পর্কে, পক্ষান্তরে মুসলিমদের ঐক্যে ভাঙন ধরানো একটি কথার কারণে কেয়ামত পর্যন্ত কোন বান্দা সম্পর্কে আল্লাহর নারাজির ফায়সালা হয়ে যেতে পারে ফরজ-নফল কোন আমলই সেক্ষেত্রে আর কাজে নাও আসতে পারে।

        হানজালা(রাঃ) বিয়ের প্রথম রাত উদযাপন শেষে ভোরবেলায় ফরজ গোসল করতে বসে যুদ্ধক্ষেত্রে মুসলমানদের বিপর্যয়ের সংবাদ প্রাপ্ত হন। খাঁটি ঈমানের এমনই তেজ যে ফরজ গোসলটি পর্যন্ত না সেরে ওই অবস্থাতেই খোলা তরবারি হাতে যুদ্ধক্ষেত্রে ছুটে যান এবং জিহাদ করতে করতে শাহাদাতপ্রাপ্ত হন। পরে রাসূল(সাঃ) দেখতে পান যে হানজালার মাথার চুল ভেজা ফোঁটা ফোঁটা পানি ঝরছে। বিস্মিত হয়ে ঘরের খবর নিলে হানজালা(রাঃ) পরিবার বলেন যে উনি ফরজ গোসল না সেরেই যুদ্ধক্ষেত্রে ছুটে যান। আরেক রেওয়ায়েতে আছে রাসূল(সাঃ) স্বয়ং দেখেন যে হানজালা(রাঃ)র লাশকে ফেরেশতারা গোসল দিচ্ছে! এই ছিল ওনাদের ঈমানি জজবা _ আল্লাহ-রাসূল(সাঃ) এর দ্বীন ইসলাম দুনিয়াতে মিটে যাবে আমি জীবিত থাকতে _ তা হতে পারে না। যেমন আল্লামা শফি(রহঃ) বলেছিলেন ৬ ই এপ্রিলের সমাবেশে _ "ইসলাম না থাকলে আর আমাদের দুনিয়ায় বেঁচে থেকে কোন লাভ নেই"। এই কথা শুনে হেঁচকি তুলে তুলে অনেকে আকুল হয়ে অঝোরে কেঁদেছিলেন সেদিন(আমি নিজেও), এটাই ঈমান, এটাই ঈমান! এইটি যে নিজে থেকে অনুভব করে না _ তার সাথে বৃথা তর্ক করে কোন লাভ নেই, এই নেয়ামত থেকে সে বঞ্চিত, হতভাগ্য। এটা আল্লাহর দান, সবাই পায় না।

        আল্লাহর জন্য-রাসূল(সাঃ) এর জন্য-ইসলামের জন্য মানবরচিত-জাতীয়-স্থানীয়-আন্তর্জাতিক-সামাজিক-সাংষ্কৃতিক অন্য যে কোন আদর্শকে জলাঞ্জলি দেয়া যায়, দিতে হবে ঈমান এর স্বাভাবিক দাবিতে ; কিন্তুঅন্য যে কোন আদর্শকে তুলে ধরতে গিয়ে কোন অবস্থাতেই একজন প্রকৃত মু'মিন আল্লাহ ও রাসূল(সাঃ) এর আদর্শকে জলাঞ্জলি দিতে পারে না, যদি দেয় সেক্ষেত্রে সে আর মু'মিন থাকতে পারে না।

  21. 6
    নীরব সাক্ষী

    মিশরে গণহত্যা 

    রবার্ট ফিস্ক: মিশরে এসব কি হচ্ছে? নিহতদের বলা হচ্ছে ‘সন্ত্রাসী’। ইসরাইল শত্রুদের এ নামেই ডেকে থাকে। মার্কিনিরাও তাই। মিশরীয় এক বন্ধুর সঙ্গে সাক্ষাৎ হলো আমার। তিনি বললেন, দেশের পতাকার দিকে তাকিয়ে তিনি শুধুই কেঁদেছেন। মিশরের মিডিয়া একে অভিহিত করেছে সংঘাত হিসেবে। যেন সশস্ত্র মুসলিম ব্রাদারহুড সদস্য সরকারি বাহিনীর সঙ্গে সংঘাতে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়েছে। কেন এত মৃত্যু? কে তাদের হত্যা করছে। মিশরে অনেক মুরসী বিরোধী লোক আছেন যারা আমাকে বলেছেন, তারা বিশ্বাস করেন না ব্রাদারহুডের সদস্যরা অস্ত্র হাতে সংঘাতে লিপ্ত। যদিও এক ব্রাদারহুড সদস্যকে আমি মেশিনগান হাতে দেখেছি। কিন্তু সত্য হলো- এটা যে, পুলিশ নিরস্ত্র মানুষের ওপর গুলি করেছে এবং একজন পুলিশও মারা যায়নি। এটা নির্জলা গণহত্যা। এ ঘটনার জন্য অন্য কোন শব্দ প্রযোজ্য নয় এবং আমাদের প্রিয় (বৃটেনের) মন্ত্রী কি বলছেন? তিনি মিশরীয় কর্তৃপক্ষকে বলছেন, তারা যেন সংঘাত বন্ধ করে। কারণ এখন সংঘাতের সময় নয়, এখন সংলাপের সময়। তিনি সিরিয়ার ক্ষেত্রে এমনটি বলেন না। প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদ কি দামেস্কের রাজপথে কি এতগুলো মানুষকে গুলি করে হত্যা করেছেন? আমাদের এ ভীতির কথা জাতিসংঘেরও প্রতিধ্বনি তোলা উচিত। কিন্তু এটা দামেস্ক নয়। এটা কায়রো। তাই আমরা জেনারেলদের প্রতি নয় আমাদের বন্ধুদের প্রজ্ঞা জাগাতে বলছি। লক্ষ্য করুন, মিশরের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাবা মসজিদের বাইরে অবস্থানরত মুসলিম ব্রাদারহুডের সমর্থকদের হুমকি দিয়েছেন। বলেছেন- তাদের অবস্থান তুলে দেয়ার জন্য আল্লাহ অনুমতি দিয়েছেন। আমরা আশা করবো তাদের চেতনা ফিরবে। তারা রাজনৈতিক প্রক্রিয়ায় অংশ নেবে। তারা যখন নির্বাচনে বিজয়ী হয়েছে তখন কি তারা তা করেনি? স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ ইব্রাহিম বলেছেন, মুসলিম ব্রাদারহুডের মাত্র ২১ জনকে হত্যা করা হয়েছে। তাহলে আমি কেন হাসপাতালের মেঝেতে ৩৭টি মৃতদেহ দেখতে পেলাম? 

    মিশরের রাজনৈতিক প্রক্রিয়াই বা কি? আপনি নির্বাচনে অংশ নিলেন এবং বিজয়ী হলেন। তারপর একজন জেনারেল (জেনারেল আবদেল ফাত্তাহ আল সিসি) আপনাকে উৎখাত করলেন। তাহলে মিশরের রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ কি? পশ্চিমারা মিশরকে ভালবাসতে পারে। কিন্তু এ দেশটি এখন পরিচালিত হচ্ছে কঠোর একজন জেনারেলের হাতে, আমরা কি ভাবি তার প্রতি তিনি তোয়াক্কাও করেন না। তিনি মনে করেন, মিশরে সামরিক অভ্যুত্থানের চেয়ে ইসরাইলের সঙ্গে মিশরের সম্পর্ক অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আমরা, পশ্চিমারা তাদের এই ধারার সঙ্গে এগিয়ে চলেছি। ওবামা মিশরীয়দের বলেছেন, মিশরীয়রা ভবিষ্যতে যে পথ নির্মাণ করবে তার শক্তিশালী অংশীদার হবে যুক্তরাষ্ট্র। এ কারণে মিশরীয়রা দেশকে পিছন দিকে টেনে নেয়ার চেষ্টা করছে। বিপ্লব পরবর্তী ক্ষমতা পরিবর্তনে তাই সামরিক বাহিনী অভ্যুত্থান ঘটিয়েছে। ভুলে যান হাসপাতালে আমি যে ৩৭টি মৃতদেহ দেখেছি তার কথা। ভুলে যান প্রেসিডেন্ট ওবামা কায়রো ইউনিভার্সিটিতে যে বক্তব্য রেখেছিলেন চার বছর আগে তার কথা। আমরা এখন বিপ্লব পরবর্তী অবস্থার মধ্যে রয়েছি। 

    গণহত্যার চিত্রটিই বা কেমন? কাফনে মোড়ানো একটি লাশ। কাফনের গায়ে কালো কালিতে লেখা নাম খালেদ আবদুল নাসের। ওই ঘরেই ছিল ৩৭টি লাশ। পুরো ঘরটিতেই রক্তের ছোপ। চিকিৎসকদের পোশাকেও রক্তের দাগ। রাবা মসজিদের পাশের হাসপাতালে কান্নারত নারী-পুরুষের ভিড়। অনেকেই আল্লাহকে ডাকছিলেন। একজন চিকিৎসক আমাকে বললেন, এই মানুষগুলো এখন আল্লাহর সঙ্গে আছে আর আমরা আছি ছায়ার সঙ্গে। সবাই মনে হলো নিষ্ঠাবান বিশ্বাসী। আর মৃত ব্যক্তিদের বেশির ভাগেরই গুলি লেগেছে মুখে-বুকে। চরম দুর্দিনে মানুষ যেসব কথা বলে মুসলিম ব্রাদারহুডের সদস্যরাও তাই বলছেন। তারা বলছেন, সামরিক শাসনের অধীন হওয়ার বদলে তারা মৃত্যুকেই বেছে নেবেন। আর এসব কথা বলা হচ্ছিল সেই দেশে যে দেশে সামরিক অভ্যুত্থানকে সামরিক অভ্যুত্থান বলা যাচ্ছে না। ড. হাবিব বলছিলেন, মৃত্যুর পরেও জীবন রয়েছে। আমি তাকে বলেছিলাম, প্রমাণ দিতে। তিনি বললেন, আমরা পশু নই। সারাটা জীবন কেবল খাদ্য খাওয়া আর পানি পান করা আমাদের কাজ নয়। হাসপাতালে আমাদের মনোযোগ ছিল কেবল মৃত মানুষের দিকে। এত তাজা মৃত্যু যে, তাদের চেহারায় এখনও মৃত্যুর চিহ্ন পড়েনি। একজন চিকিৎসক একটি লাশের চোখ বন্ধ করতে পারছিলেন না। চোখ বন্ধ করতে আরেকজন চিকিৎসকের সাহায্য চাইলেন তিনি। এটাই হয়তো নিয়ম। মৃত্যুকে আমাদের ঘুমন্ত মানুষের মতো দেখতে হয়। মিশরও হয়তো সেরকম একটা অবস্থাতেই পড়েছে। যেখানে অনেক কিছু থেকেই অনেককে চোখ বন্ধ করে রাখতে হচ্ছে।

    আরেকটি লেখায় রবার্ট ফিস্ক লিখেছেন: 
    মিশরে সামরিক অভ্যুত্থানের প্রতিবাদে লাখো মানুষ ঘরের বাইরে বেরিয়ে এসেছেন। তারা অবস্থান নিয়েছেন রাজধানী কায়রোর রাবা মসজিদের বাইরে। অন্যদিকে সেনাপ্রধান জেনারেল আবদেল ফাত্তাহ আল সিসির লাখো সমর্থক অবস্থান নিয়েছেন তাহরির স্কয়ারে। 
    এটা এক অপ্রত্যাশিত অদ্ভুত ঘটনা। আপনি যা খুশি সেভাবে বর্ণনা করতে পারেন এটাকে। কিন্তু তাহরির স্কয়ারে অবস্থানকারীদের মাথার ওপর দিয়ে হেলিকপ্টার টহল দিচ্ছে। অন্যদিকে মুসলিম ব্রাদারহুডের অবস্থানের বিপরীতে দাঙ্গা পুলিশ ও সেনারা অবস্থান নিয়েছেন। এতে দু’টি বিক্ষোভের নিজস্ব চেহারা ফুটে উঠে। সবকিছুই যে খারাপ হচ্ছে সাংবাদিকদের এমনটা বলা ঠিক না। কিন্তু ২৬শে জুলাই রাতে কায়রোতে যা ঘটে গেছে তা মোটেও ভাল না।

    দুঃখের বিষয় হলো, সবচেয়ে ট্রাজিক বিষয় হলো- মিশরে প্রথম গণতান্ত্রিক নির্বাচনে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসিকে এখন থেকে প্রায় ৩ সপ্তাহ আগে ক্ষমতাচ্যুত করা হয়েছে। তার সমর্থকদের এখন বিরোধীরা ‘সন্ত্রাসী’ আখ্যা দিয়েছে। মুরসির সমর্থকরা অবস্থান নিয়েছেন নসর শহরে বিমানবন্দর সড়কে একটি মসজিদের বাইরে। তারাও তাহরির স্কয়ারের জনতার সমুদ্রের মতো সমানভাবে উৎফুল্ল। তাদের বিক্ষোভে অংশ নিতে যাওয়া লোকদের স্বাগত জানানো হচ্ছে। ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা উপেক্ষা করে হাজার হাজার মানুষ নীল নদের ব্রিজ পার হয়ে যোগ দিচ্ছে তাদের সঙ্গে। 

    কিন্তু তাদের সেই উৎসাহ, উন্মাদনা শেষ হয়ে গেছে। যে মসজিদের সামনে মুরসি সমর্থকরা অবস্থান নিয়েছে তার কাছেই সেনাবাহিনীর ব্যারাক। তাদের হাতে মোহাম্মদ মুরসির ছবি আঁকা বিশাল বিশাল ব্যানার, পোস্টার। কেউ বা সামরিক বাহিনীর ব্যারাকে এঁকে দিয়েছে স্টার অব ডেভিড-এর ছবি। কেউ যাতে ভিতরে প্রবেশ করে তাদের আক্রমণ করতে না পারে এ জন্য মুসলিম ব্রাদারহুড তাদের সমাবেশের বাইরের রাস্তায় বালুভর্তি হাজার হাজার বস্তা ফেলে, ইটপাথরের স্তূপ করে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেছে। কিন্তু তা সেনাদের থামাতে পারে নি। এখানে বলে রাখা ভাল, সেনারা উল্লাস করতে করতে যুক্তরাষ্ট্রে ও ফ্রান্সে তৈরি সাঁজোয়া যানের পাশাপাশি স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র হাতে এগিয়ে যায়। তাদের হাতে ছিল কাঠের লাঠিও। তাদের সঙ্গে ছিল কালো ইউনিফর্ম পরা বিপুল সংখ্যক পুলিশ। 

    মুসলিম ব্রাদারহুডের মুখে দাড়ি আছে এমন অনেকে তখন রাস্তার পাশে বসে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করছিলেন। অনেকেই তা শুনছিলেন। এসব কিছুর কোন তোয়াক্কা করেনি সেনারা। তারা দু’এক ঘণ্টার মধ্যে মুসলিম ব্রাদারহুডের দিকে অভিযান শুরু করবে বলে মনে হচ্ছিল। তবে তার পরের কয়েক ঘণ্টা ভয়াবহ হয়ে উঠবে এমনটা কল্পনা করাও ছিল কঠিন। 

    (লন্ডনের দি ইন্ডিপেনডেন্ট পত্রিকায় প্রকাশিত রবার্ট ফিস্কের লেখার অংশবিশেষের অনুবাদ)।

    1. 6.1
      মহিউদ্দিন

      নীরব সাক্ষী ভাই,
      আপনাকে অন্তরের অন্ত:স্থল থেকে ধন্যবাদ জানাই রবার্ট ফিক্সের রিপোর্টটি আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য।

      মিশরের এ করুণ অবস্থায় মনটা এমনিতেই দু:খে ভারাক্রান্ত তার উপর আজ খুবই খারাপ লাগল যখন কাজের জায়গায় এক কলিগ জানালেন উইকিলিক্সের তথ্যে প্রকাশ হয়েছে যে সৌদি বাদশাহ মিশরের সেনাপ্রধানকে নাকি জানিয়ে দিয়েছেন যে প্রয়োজনে ১০ হাজার মুরসি সমর্থকেরে হত্যা করেও এ আন্দোলন থামাতে হবে!!

       

       

  22. 5
    নীরব সাক্ষী

    শাপলা চত্ত্বর ও রাবেয়া স্কয়ার- 

    সেহেরীর সময় রাবেয়া স্কয়ারের ১০০ এর বেশী নিরীহ মুসলিমকে হত্যা করা হয়। বিশ্ব মিডিয়া (বিবিসি) এটাকে গণহত্যা হিসেবে অভিহিত করেছে। সেখানে সরকারী বাহিনী বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন করেনি, মিডিয়া সরিয়ে দিয়ে গণহত্যা চালায়নি। তারা অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করলেও এটা ছিল ক্ষমতা কেন্দ্রিক ইস্যু ( এটাকে নেভেটিভ অর্থে বলছি না) । 

    কিন্তু শাপলা চত্ত্বরের গণহত্যায় হয়েছে রাতে আঁধারে। নির্বিচারে গুলি চালিয়ে ইবাদরত, ক্লান্ত ঘুমন্ত মুসলিমকে ঠান্ডা মাথায় হত্যা করা হয়েছে। গণহত্যায় শহীদের সংখ্যা মিশরের চেয়ে অনেক বেশী হবে। তারা সেখানে রাষ্ট্রক্ষমতার জন্য যায়নি, গিয়েছিল প্রিয়তম নবী (সা) এর অপমানের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে।  বিশ্বমিডিয়াতে এটা নিয়ে তোলপাড় হয়নি, কেননা এরা গ্রামের হুজুর, ঠিকমত শুদ্ধ ভাষায় কথা বলতে পারে না, জানে না কুটিল ডিপ্লোমেসি।  

    এতকিছুর পরও কেউ কেউ কুরআনের আয়াত দিয়ে শাপলা চত্ত্বরে  হত্যার ঘটনাকে জাস্টিফাই করার চেষ্টা করে থাকে। হুজুরদেরকেই ইসলাম বিরোধী হিসেবে ইনিয়ে-বিনিয়ে প্রমাণ করার চেষ্টা করা হয়।

    ধর্ম-বিশ্বাসের চেয়ে রাজনৈতিক বিশ্বাস মানুষকে অন্ধ করে দিতে পারে এগুলো হচ্ছে তার উজ্জ্বল উদাহরণ। তাই যতদিন পর্যন্ত না আমরা নীজেদের ঈমানের ভিত্তি দৃঢ় না করি ততদিন পর্যন্ত আমরা মার খেতেই থাকব। 

     

     

  23. 4
    এম_আহমদ

    আপনার লেখাটি পড়ে দুটি মন্তব্য করার ইচ্ছে হচ্ছে। কিন্তু কথা দীর্ঘ হতে পারে বিধায় একটি মন্তব্য এখন করব এবং অপরটি না হয় কাল পরশু করব, ইনশাল্লাহ। প্রথম কথাটি এই যে আমরা ইসলামী সমাজ ব্যবস্থা প্রণয়নের মোকেবেলায় যে প্রতিকূলতা লক্ষ্য করি সেই প্রতিকূল-ময়দানে ইসলাম বিদ্বেষীদের পক্ষ হয়ে কাজ করতে দেখবেন এক বিরাট সংখ্যক ‘মুসলিমদের’। এদের মধ্যে এক অংশ মুনাফিক, এক অংশ কালচারেল মুসলিম (নাস্তিক) এবং এক অংশ সরল বিশ্বাসী যারা সকলের সাথে এই মর্মে ঐক্যমত: “রাজনীতিতে ধর্মের কোন জায়গা থাকা উচিত নয়”, কিন্তু রাজনীতি যে কেবল ভোটাভোটি নয়, এর সাথে আপনার গোটা সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় নীতি-নৈতিকতা সংশ্লিষ্ট এবং রাষ্ট্রযন্ত্রই যে জাতিকে নিয়ন্ত্রণ করে, মানসিকতা গড়ে, শিক্ষার আঞ্জাম দেয়, পরবর্তী প্রজন্ম গড়ে সুতরাং “রাজনীতিতে ধর্মের কোন জায়গা থাকা উচিত নয়” –এই কথাটি বলে নাস্তিক ও আলট্রা সেক্যুলার পক্ষ যে তাদের আদর্শই রাষ্ট্রে কার্যকর করে ফেলে, এই সীমা পর্যন্ত তাদের চিন্তা প্রসারিত হয় বলে মনে হয় না। এরাই প্রজন্মের পর প্রজন্ম তাদের আদর্শে গড়ে তুলে। আর এই গড়ে-ওঠা 'মুসলিমগণ' ওদের পক্ষ হয়ে ঈমানদারগণকে যৌথভাবে গায়ের জোরে চ্যালেঞ্জ করে, প্রতিহত করে। এই ‘মুসলিম’ পক্ষই ময়দানের জটিলতা। এটা কিন্তু গায়ের জোরে address না করে যতটুকু সম্ভব প্রজ্ঞা ও ধৈর্যের সাথে করা উচিত। এতে ফল আসতে যদি এক দশক, দেড় দশক পিছিয়েও যায় তবুও। মদিনায় এক বিরাট সংখ্যক লোক মুনাফিক ছিল। প্রত্যেকটি ঘটনায় তাদের উপস্থিতি ছিল। কিন্তু নবী (সা.) অত্যন্ত ধৈর্যের সাথে সেইসব পরিস্থিতির মোকাবেলা করতেন যাতে নিজেদের মধ্যে আভ্যন্তরীণ যুদ্ধ বেঁধে না যায়, হোক তারা মোনাফেক। নিফাক হচ্ছে একটি চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য, এক ধরণের ধারণাগত ও চিন্তনীয় বৈশিষ্ট্য। এর সাথে তকদীর জড়িত। এই সমস্যা ও পরিস্থিতিকে খোলাফায়ে রাশেদার খলিফাগণ অত্যন্ত কষ্টকরভাবে এবং জটিলতার সাথে মোকাবেলা করতে হয়েছে। নিফাকের অস্তিত্ব না থাকলে খিলাফত ৩০ বছরের মাথায় শেষ হয়ে যেত না। এক সময় রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থা দ্বীনের অংশ ছিল যেমন আজকের সব বিজ্ঞান আগে natural science ছিল, পরে প্রসার ও বিস্তৃতিতে আলাদা আলাদা নামে পরিচিত হয়েছে। এখন রাজনীতিকে আরবি ‘সিয়াসাহ’ শব্দে ব্যক্ত করা হচ্ছে কিন্তু এই সিয়াসাহ শব্দ কোরানে নেই। এই ধারণার সব কথা দ্বীন, আইন, নীতি-নৈতিকতায় স্থান পেয়েছে। আমাদের দ্বিতীয় জটিলতা হচ্ছে বিভিন্ন দল ও গ্রুপের অস্তিত্ব যেগুলোকে ইসলামের কয়েকটি বিষয়কে নিয়ে সাজানো হয়েছে এবং তা হয়েছে সামাজিক নানান বাস্তবতাকে সামনে রেখে। কিন্তু একটি দল গঠিত হওয়ার পর তার উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে যখন কাজ শুরু হয় তখন সেই উদ্দেশ্য লিখিত হয় এবং প্রচারের জানাজানি হয় এবং একসময় সেই উদ্দেশ্য ব্যক্তিবর্গের ঊর্ধ্বে চলে যায়। এক সময় সামাজিক বাস্তবতা পরিবর্তিত হলেও সেই দল অতীতের বাস্তবতায় নির্মিত উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে চলতেই থাকে। ব্যক্তি তার মত পালটাতে পারে কিন্তু দল ব্যক্তির ঊর্ধ্বে ওঠার পর সেই স্থান আর অবশিষ্ট থাকে না। এজন্য বিভিন্ন দলের মধ্যে ঐক্য আনা সম্ভব নয় না, বা অত্যন্ত জড়িল হয়। আজ গায়ের জোরে মুসলমানদের এক অংশ ‘দ্বীনকে’ (সিয়াসাহসহ দ্বীনকে) সরিয়ে রাখার কাজ করছে। তাই এসেছে জটিলতা। সুতরাং ঈমানদার পক্ষ অত্যন্ত সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে যেভাবে নবী (সা.) করেছিলেন, সাহাবারা (রা.) করেছিলেন। আমার মনে হয় মুসলিমগণ দেউলিয়া হবেন না। কেননা বিশ্বের বাস্তবতা কোরান ও হাদিসের মুসলিম বাস্তবতা নয়। এখনে ‘মুসলিম’-বাস্তবতা জটিল রূপে বিরাজ করছে।

    1. 4.1
      এম_আহমদ

      মুরসির বিরুদ্ধে সেনা অভ্যুত্থানের হোতাদের হত্যা করা বৈধ। আল-কারদায়ী

      আজকে মুসলিম বিশ্বের তাত্ত্বিক অবস্থানের একটি সুরাহা হল।

       

      1. 4.1.1
        মুনিম সিদ্দিকী

        আমার আদর্শিক পুরুষ, যাকে আমি দেখি সব সময় চরমপন্থা পরিহার করে পথ চলার নির্দেশ দিতে তাকে আজ যখন তার আওয়াজ থেকে জিহাদের ঘোষনা শুনছি তখন বুঝতে পারছি যে মিশরে ইসলামপন্থীদের উপর কেমন বর্বর অত্যাচার চালাচ্ছে সাম্রাজ্যবাদীদের ভাড়াতে রেজিম!!! ধন্যবাদ কারজাভী ধন্যবাদ আপনাকে আমাদেরকে একটি পথ নির্দেশনা দানের জন্য।

        1. 4.1.1.1
          মহিউদ্দিন

          শেখ কারদায়ী আধুনিক আরব বিশ্বে অত্যন্ত প্রভাবশালী ইসলামী স্কলার। তিনি কেন এ রকম চরম বক্তব্য রাখলেন জানিনা। হয়তো পরিস্থিতির পরিপ্রেক্ষিতে তিনি এটাই সঠিক মনে করেছেন। হয়তো সেনাবাহিনীর ভিতর থেকে কিছু করার জন্য উত্তেজিত করতে এরকম বলেছেন। আল্লাহ  ভাল জানেন।

          মিশরের ও সিরিয়ার  মুসলিম ভাই বোনদের জন্য আমাদের বিশেষ দোয়া করা কর্তব্য। আজকে মসজিদে তারাবীর নামাজের সময় ইমাম সাহেব কান্নাহ জড়িত কন্ঠে এ কথাই বললেন।

    2. 4.2
      মহিউদ্দিন

      এটা কিন্তু গায়ের জোরে address না করে যতটুকু সম্ভব প্রজ্ঞা ও ধৈর্যের সাথে করা উচিত।

      যথার্থ বলেছেন। সহ মত।

      এক সময় রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থা দ্বীনের অংশ ছিল যেমন আজকের সব বিজ্ঞান আগে natural science ছিল, পরে প্রসার ও বিস্তৃতিতে আলাদা আলাদা নামে পরিচিত হয়েছে। এখন রাজনীতিকে আরবি ‘সিয়াসাহ’ শব্দে ব্যক্ত করা হচ্ছে কিন্তু এই সিয়াসাহ শব্দ কোরানে নেই। এই ধারণার সব কথা দ্বীন, আইন, নীতি-নৈতিকতায় স্থান পেয়েছে।

      অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটা পয়েন্টের কথা বলেছেন। সত্যিই তো আরবি "সিয়াসাহ" কথা কোরআন সুন্নাহর কোন পরিভাষা নয় তাহলে সিয়াসাহ বা রাজনীতি এই শব্দ মুসলিম সমাজেও ব্যবহার কেন হয়? তাই তো মুসলিমদেরকে রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থা দ্বীনের অংশ না ভাবার জন্য  বলতে শুনি  "আস্ সিয়াসাহ নাঝাসা" অর্থাৎ "রাজনীতি হচ্ছে ময়লা জিনিস" তার থেকে দূরে থাক!

      আসলেই আজ মুসলিমদের এটা ভাবতে হবে।  "পলিটিক্যল ইসলাম" ইত্যাদি শব্দ চালু হয়েছে বিশেষ উদ্দেশ্যে!

      ধন্যবাদ।

  24. 3
    মহাবিদ্রোহী রণক্লান্ত

    ইসলাম কাঁটা বিছানো পথেই আসে নিজেকে রক্তাক্ত করে-এটাই ইসলামের মহিমা।

    তবে মিসরে বা বাংলাদেশে যে পদ্ধতিতে ভাইয়েরা আন্দোলন করছেন,তার সাথে দ্বিমত থাকা উচিত বলে মনে করি আমি।আমরা যতই শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করি না কেন;বামপন্থী,সেকুলার মুরতাদরা কিন্তু আমাদের "জঙ্গি"/"সন্ত্রাসী"ই বলবে।তাহলে খালি হাতে চিরশত্রুদের সামনে গিয়ে অযথা জীবনহানি কেন?

    আশা করি বুঝাতে পেরেছি। 

    1. 3.1
      মহিউদ্দিন

      যতই শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করি না কেন;বামপন্থী,সেকুলার মুরতাদরা কিন্তু আমাদের "জঙ্গি"/"সন্ত্রাসী"ই বলবে।তাহলে খালি হাতে চিরশত্রুদের সামনে গিয়ে অযথা জীবনহানি কেন?

      না, আমি আপনার সাথে একমত হতে পারলাম না। ওরা জঙ্গি"/"সন্ত্রাসী বলবে বলেই আমাদেরকে জঙ্গি"/"সন্ত্রাসীর রুপধারন করতে হবে তা সঠিক হবে না। শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের বিকল্প নাই। আন্দোলন অবশ্যই শান্তিপূর্ণভাবে করতে হবে। বিজয় দেয়ার মালিক আল্লাহ।  ইসলামের দুষমনেরা তো চায়ই মুসলিমদের কিছু লোক জঙ্গি হতে, প্রয়োজনে পর্দার আড়ালে কিছু অস্ত্রও তাদেরকে দিবে। অতএব সাবধান আপনি যা বুঝাতে চাচ্ছেন তা সঠিক নয়।  আসলে সবচেয়ে বড় প্রয়োজন আল্লাহ যা বলেছেন অর্থাৎ আমাদের মাঝে একতা।

      1. 3.1.1
        মহাবিদ্রোহী রণক্লান্ত

        তাহলে আমাদের রক্তই ঝরবে শুধু একতরফা।একতরফা শান্তির কোনো ভ্যালু নাই ভাই।বদর,ওহুদ,খন্দক,রোম,স্পেন,সিন্ধু-এগুলো শান্তিপূর্ণ আন্দোলন ছিল না।ইসরাইলের সাথে একতরফা শান্তি আলোচনাই খালি করছি আমরা,আর ফিলিস্তিন আস্তে আস্তে ইসরাইলের পেটে ঢুকে যাচ্ছে ইহুদিদের অস্ত্রের জোরে। 

  25. 2
    মুনিম সিদ্দিকী

    এ যুদ্ধের (১)এক পক্ষে আছে সেক্যুলার বামপন্থী ও ইসলামকে অন্যান্য ধর্মের মত একান্ত নিজস্ব ব্যক্তিগত কালচারাল বিষয়ে সীমাবদ্ধ রাখার পক্ষে যারা গতানুগতিক বস্তুতান্ত্রিক জীবনাদর্শের ও পশ্চিমা সাম্রাজ্যবাদী গুষ্টির আশীর্বাদ পুষ্ট তথাকথিত আধুনিক চিন্তাধারার অনুসারী।

    এরা হয়তো ইসলামকে সেকেলে বলে বিশ্বাস করেন, কিংবা ইসলামের দাবী ইসলামই একমাত্র জীবন ব্যবস্থা সে দাবীতে তারা বিশ্বাস করেন না, নতুবা তারা বিশ্বাস করেন-ইসলামের দাবী অনুযায়ী তা প্রতিষ্ঠা করতে গেলে অন্যান্য জাতী গোষ্ঠির প্রতি ন্যায় করা হবেনা।

    আর (২) অন্য পক্ষে আছেন ইসলামী মূল্যবোধ বিশ্বাসী যারা ইসলামকে নিছক একটি ধর্ম ছাড়াও জিবন ব্যবস্থা (code of life) মনে করে এবং ইসলামের সার্বজনীন আদর্শ ও ন্যায় বিচারের ভিত্তিতে রাষ্ট্রীয় ও সামাজিক ব্যবস্থায় সুশাসন প্রতিষ্ঠা করতে চান।

    এরা চাইলেই কি আসে যাবে! এদের মধ্যে কতজন এই বিশ্বাসের সাথে আমলের দ্বারা অবিচল আছেন তা আমার মনে সন্দেহ আছে। আমরা এই বাংলাদেশে কয়েক মাস আগে দেখেছি, এই ধরণের বিশ্বাসিরা লেজ গুটিয়ে ময়দান ছেড়ে পালিয়ে যেতে। এদের মধ্যে গুটি কয়েক আছে জঙ্গি মানসিকতা সম্পন্ন, আর আছে পশ্চাৎপদ চিন্তা চেতনায় আচ্ছন্ন। আল্লাহ রাহমানুর রহিম, তাই আল্লাহ ভালুকের হাতে কুড়াল তোলে দিয়ে পৃথিবীতে বিপর্যয় সৃষ্টি হতে দেবেন না, পৃথিবীর উন্নতির স্বার্থে তিনি সেই জাতিকে সাহায্য করে যাবেন যে জাতি জ্ঞান বিজ্ঞানে উন্নত।

    সেকুলার বনাম ইসলামের এ যুদ্ধে আপাতত সেকুলারদের বিজয় দেখলেও শেষ পর্যন্ত তাদের পরাজয় হবে মুসলিম দেশে যার আলামত ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গিয়েছে।

      সে স্বপ্ন আমারও আছে কিন্তু আশে পাশের মুসলিম মুজাহিদদের আচার আচরণে অচিরে তা হবে বলে মনে হয়না। মিশর আর বাংলাদেশের মুজাহিদদের শিক্ষা দীক্ষা আকাশ পাতাল ব্যবধান তা দুই দেশের ইসলামপন্থী কথা বার্তা আর পোশাক আশাক থেকে প্রমান পাওয়া যায়। তাই মিশরীয়দের মত বাংলার মুসলিম মুজাহিদ সৃষ্টি করতে হলে কওমী শিক্ষা ব্যবস্থাকে মিশরে আল আজহার বিশ্ব বিদ্যালয়ের শিক্ষা ব্যবস্থায় পরিবর্তন করতে হবে। আর এই বিষয়ে গণতান্ত্রিক ধর্মনিরপেক্ষ সরকার সাহায্য করবেনা। তাই বেসরকারী ভাবে আমাদের এগিয়ে আসতে হবে, এবং কওমী মাদ্রাসার মত তা সারা বাংলাদেশে ছড়িয়ে দিতে হবে, অপেক্ষা করতে হবে ২৫/৩০ বছর যখন সেই শিক্ষা ব্যবস্থায় শিক্ষিত হয়ে নতুন প্রজন্মরা বের হয়ে আসবে তখন ই দরকার পড়বে এক বিপ্লব, যার মাধ্যমে প্রচলিত সব ব্যবস্থার আমুল পরিবর্তন করা সম্ভব হবে। এর মধ্যে বিনোদনের সকল মাধ্যম, সকল প্রচার মাধ্যমকে ইসলামি করনের কাজ চালিয়ে যেতে হবে যাতে এই মতের এবং পথে তরুণরা তারা যা বিশ্বাস করে তার নৈতিক সমর্থন বজায় রাখার উৎসাহ অনুপ্রেরণা পায়, তারা যাতে প্রচলিত ভোগবাদী সকল প্রকার যন্ত্র থেকে দূরে থাকে।

    একে. পার্টির হাইব্রিড ইসলাম তুরস্ককে কোথায় নিয়ে যাচ্ছে ভেবে আমি অত্যন্ত শঙ্কিত। আমরা ইসলামের বিরুদ্ধে নই, তবে আমি মনে করি রাজনীতিতে ধর্মের কোন জায়গা থাকা উচিত নয়।”—"প্রধান বিরোধী দল কামাল আতাতুর্কের অনুসারী রিপাবলিকান পিপলস পার্টির ডেপুটি চেয়ারম্যান ওসমান ফারুক

    এই কথা হচ্ছে কৌশল, গাছের শেকড় কেটে পাতায় পানি ঢালার মত! শেকড় কাটতে কেউ দেখবে না কিন্তু পানি ঢালতে দেখবে কিন্তু এক সময় যখন গাছটি মরে যাবে তখন তার জন্য তাদের দোষা যাবেনা!!

    1. 2.1
      এম_আহমদ

      তাই মিশরীয়দের মত বাংলার মুসলিম মুজাহিদ সৃষ্টি করতে হলে কওমী শিক্ষা ব্যবস্থাকে মিশরে আল আজহার বিশ্ব বিদ্যালয়ের শিক্ষা ব্যবস্থায় পরিবর্তন করতে হবে। আর এই বিষয়ে গণতান্ত্রিক ধর্মনিরপেক্ষ সরকার সাহায্য করবেনা। তাই বেসরকারী ভাবে আমাদের এগিয়ে আসতে হবে, এবং কওমী মাদ্রাসার মত তা সারা বাংলাদেশে ছড়িয়ে দিতে হবে, অপেক্ষা করতে হবে ২৫/৩০ বছর যখন সেই শিক্ষা ব্যবস্থায় শিক্ষিত হয়ে নতুন প্রজন্মরা বের হয়ে আসবে তখন ই দরকার পড়বে এক বিপ্লব, যার মাধ্যমে প্রচলিত সব ব্যবস্থার আমুল পরিবর্তন করা সম্ভব হবে। 

      আপনার উপরের এই বক্তব্যটিতে আমি এক স্পষ্ট দিগন্ত অনুভব করি।  আমরা যারা সকল দলের মধ্যে ঐক্য সৃষ্টির প্রয়াসে চেষ্টা করি থাকি তারা সবগুলো ডিম এক বাস্কেটে না রেখে এই পথে অগ্রসর হওয়াই ভাল মনে হয়। প্রাতিষ্ঠানিকভাকে বিচ্ছিন্ন দুই বা ততধিক দলের মধ্যে ঐক্য সৃষ্টি যতটুকু কঠিন তার চেয়ে বরং অধিক সহজ নিজেরাই মাদ্রাসা তৈরি করে আগামী প্রজন্ম সৃষ্টি করা আর সাথে সেই পূর্বেকার দলীয় ঐক্যর কাজও জারি রাখা। 

    2. 2.2
      মহিউদ্দিন

      এই কথা হচ্ছে কৌশল, গাছের শেকড় কেটে পাতায় পানি ঢালার মত! শেকড় কাটতে কেউ দেখবে না কিন্তু পানি ঢালতে দেখবে কিন্তু এক সময় যখন গাছটি মরে যাবে তখন তার জন্য তাদের দোষা যাবেনা!!

      ভাই, এটাই তো সেক্যুলারদের উদ্দেশ্য। যথার্থ বলেছেন।

      অশেষ ধন্যবাদ আলোচনায় অংশগ্রহণের জন্য।

  26. 1
    আবু সাঈদ জিয়াউদ্দিন

    "যুদ্ধ" আর "গনহত্যা"র সংজ্ঞা নতুন করে লেখার দরকার মনে হচ্ছে। 

    1. 1.1
      সুজন সালেহীন

      মানবিকতা ও ন্যায়পরায়ণতাকে দলপ্রীতির উর্ধ্বে স্হান দিন।

      1. 1.1.1
        মহিউদ্দিন

        মানবিকতা ও ন্যায়পরায়ণতাকে দলপ্রীতির উর্ধ্বে স্হান দিন।

        অবশ্যই আমি বিশ্বাস করি  মানবিকতা ও ন্যায়পরায়ণতাকে দলপ্রীতির ঊর্ধ্বে স্থান না দিলে সে সঠিক মুসলিম হতে পারেনা। আল্লাহ অন্যায়কে পছন্দ করেন না আবার বাড়াবাড়িও ইসলামে গ্রহনযোগ্য নয়।

        মুসলিম বিশ্বের বিশেষ করে বাংলাদেশে সাম্প্রতিক ঘটনার যে কথাগুলা এখানে এসেছে তা আমার কাছে বস্তুনিষ্ঠ বলেই মনে হয়েছে। বিশ্বাসীদের অবস্থান কোথায় থাকা দরকার সে ব্যাপারে সচেতনতা জাগাবার উদ্দেশ্যই এ লিখা।

         

Leave a Reply

Your email address will not be published.