«

»

Apr ০১

ষষ্ঠ পর্ব – আসুন সহজে আরবি শিখি

بِسْمِ ٱللَّهِ ٱلرَّحْمَٰنِ ٱلرَّحِيمِ

সুপ্রিয় পাঠকদের যারা আরবি শিখার এ টিউটোরিয়াল সিরিজের প্রতিটি পর্ব নিয়মিত পড়ে আসছেন তাদেরকে বলব, আজকের পর্বে আসুন এতদিন আমরা যা আলোচনা করে আসছি তার উপর কিছুটা অনুশীলন বা exercise করা যাক ।

তবে তার আগে আরবি ব্যাকরণের আরো দুটি কনসেপ্ট : ১) আল ইদাফা  এবং ২) মওসুফ ও সিফাৎ নিয়ে আলোচনা করতে চাই।

ইদাফা – الإضافة

আরবি বাক্য রচনায় ইদাফা الإضافة একটি মৌলিক কাঠামো যা আরবি ব্যাকরণ বোঝার জন্য অপরিহার্য। এটা বোঝা ছাড়া ব্যাকরণ বুঝার প্রাথমিক স্তর অতিক্রম করা সম্ভব নয়।

ইদাফা শব্দটির আক্ষরিক অর্থ হচ্ছে “যোগ করা” (addition)। অর্থাৎ দুটি ইসমকে যোগ করা হচ্ছে বলতে পারি। ইদাফা – الإضافة ইংরেজি গ্রামারের Possessive Form এর মত। (Nouns could be joined as possessor and possessed) এটি মূলত দখল (যেমন, মালিকানা) দেখানোর জন্য ব্যবহৃত হয়। মালিকানাধীন ক্ষেত্রে nouns, pronouns, এবং বিশেষণগুলিতে প্রযোজ্য। Noun এর সাথে possessive case দেখাতে সাধারণত একটি noun  তার পূর্ববর্তী noun এর সাথে ‘s বা “of” যোগ করে প্রদর্শিত হয়। যেমন The Book of Ahmed অর্থাৎ আহমেদের বই।
এখানে বইটির মালিক কে? উত্তর হবে আহমেদ আবার যদি বলা হয় আহমেদকে এখানে কিসের মালিক বলা হচ্ছে উত্তর হবে বইয়ের। এ ব্যাপারটাই – الإضافة ইদাফাতে “মুদাফ”مضاف ও “মুদাফ-ইলা হি” مضاف اليه দিয়ে আলোচনা হয়।

অতএব, الإضافة ইদাফা বুঝতে হলে “মুদাফ”مضاف ও “মুদাফ-ইলা হি” مضاف اليه বলতে কি বুঝায় জানতে হবে।
উপরের উদাহরণে বই হচ্ছে মুদা’ফ مضاف (Possession) আর আহমেদ হচ্ছে مضاف اليه মুদাফ-ইলাহি (Possessor)।

এই মুদাফ ও মুদাফ-ইলা হি এর ব্যাপারে কিছু নিয়ম আছে যেমন,

১) মুদাফ ও মুদাফ-ইলাহি ইসম বা শব্দের মাঝখানে অন্য কোন কিছু থাকতে পারে না।

২) মুদাফ এর পূর্বে কখনও ال থাকে না।
৩) মুদাফ-ইলাহি – Possessor সবসময় جَر (Status) অবস্থায় থাকে ।
৪) তবে মুদাফ -Possession جَر / نَصَب / رَفَع যে কোন অবস্থাতে (Status) হতে পারে।
৫) মুদা’ফ Possession সবসময় মুদাফ ইলা-হি Possessor এর পূর্বে থাকে । كتابُ محمدٍ
৬) মুদাফ কখনও তান-উইন (আন,ঊন, ইন) নিবে না অর্থাৎ কেবল একটি দাম্মা ও ফাতাহ কিংবা কাসরা নিবে।

এখানে আরেকটি বিষয় আলোচনা দরকার তা হচ্ছে কোন বাক্যে একি ইসমকে এক সময় মুদাফ – Possession আবার মুদাফ-ইলা হি হিসাবেও দেখা যেতে পারে। ইংরেজি উদাহরণ The car of the Imam of the Mosque অর্থাৎ car এর সাথে ইমাম হচ্ছেন মুদাফ ইলা-হি car হচ্ছে মুদাফ আবার মসজিদের সাথে দেখলে ইমাম হচ্ছেন মুদাফ এবং মসজিদ হচ্ছে মুদাফ ইলা-হি ।

এবার কোরআন থেকে উদাহরন দেখা যাক।

উপরের উদাহরণে লক্ষ্য করেন যখন মালিকি  ইয়াওমি (দিন) বলব তখন মালিকি হচ্ছে মুদাফ (Possession) এবং  ইয়াওমি হচ্ছে মুদাফ ইলাহি (Possessor) আবার যখন ইয়াওমিদ্দিন বলব তখন ইয়াওমি হচ্ছে মুদাফ  (Possession) আর আদ্দিনি হচ্ছে মুদাফ ইলাহি (Possessor)।
এখানে লক্ষণীয় বিষয় হচ্ছে ইয়াওমিদ্দিন এর পূর্বে “আলিফ লাম” নাই এবং মীমের শেষে কাসরা তান-উইন (দুটা কাসরা) নাই। যদি প্রশ্ন হয় কেন? উত্তর হচ্ছে ইয়াওম মুদাফ হওয়ার জন্য ال এবং দুটি কাসরা নিতে পারবেনা।

নিচের অডিওটি শুনেন তখন বুঝতে আরো সহজ হবে।

বিশেষ মুদাফ (special Mudaf):

কিছু বিশেষ মুদাফ আছে যদিও তাদের সাথে মালিকানা বুঝায় না তবু এগুলো কোন ইসমের বা শব্দের পূর্বে থাকলে পরের ইসম Possessor – মুদাফ ইলা-হি হয়ে যায় এবং সবসময় جَر (Status) অবস্থা হয়ে যায়। অর্থাৎ কিছু শব্দ আছে যেগুলো কোন ইসমের পূর্বে ব্যবহার হলে মুদাফ না হলেও মুদাফ এর মত কাজ করে সে ইসমকে মুদাফ ইলা-হি করে جَر (Status) অবস্থায় নিয়ে যায়।

নিচে “বিশেষ মুদাফ” (special Mudaf) শব্দগুলোর তালিকা দেয়া হল এবং একটি অডিও ক্লিপও দেয়া হয়েছে যা শুনলে এ বিষয় বুঝতে সহজ হবে।

List of Special Mudhafs: No meaning of “of”

وَرَاءَ – behind خَلْفَ – behind بَعْدَ – after قَبْلَ – before تَحْتَ – below فَوْقَ – above مَعَ – with عِنْدَ – has, with, nearby دُوْنَ – besides غَيْرَ – without حَوْلَ – around بَيْنَ – between كُلُّ – all of بَعْضُ – some of اَيُّ – which لَدُنْ – especially from

নিচের ভিডিওটিতে মুদাফ, মুদাফ-ইলাহি এবং  বিশেষ মুদাফ এর ব্যাপারে ব্যাপক আলোচনা করা হয়েছে সময় সাপেক্ষে এটি দেখা খুবই দরকার।

মওসুফ (Described) ও সিফাত (adjective)
মওসুফ ও সিফাত অর্থাৎ word described and descriptive/adjective ব্যবহারের নিয়ম হচ্ছে মওসুফ (বর্ণিত শব্দ) প্রথম আসবে সিফাত (বর্ণনা শব্দের) এর আগে – word described will come first than the adjective or description. তাই এখানে নিয়ম হচ্ছে বর্ণিত শব্দ মওসুফ প্রথম আসবে বর্ণনার আগে আর মওসুফ এর সাথে সিফাৎ এর ব্যাকরণিক বৈশিষ্ট্য একি রকমন হতে হবে অর্থাৎ লিঙ্গ, বচন, নির্দিষ্টতা (defineteness) ও প্রকারভেদ (Type) মওসুফ এর মত হতে হবে।

নিচের ভিডিওতে এ বিষয়ে বিস্তারিত বর্ণনা পাবেন।

 

এবার অনুশীলনের পালা। আসুন سْمِ ٱللَّهِ ٱلرَّحْمَٰنِ ٱلرَّحِيمِ বাক্যটির প্রতিটি শব্দ আলাদা করে দেখা যাক ।

নিচের অডিতে ব্যাখা দেয়া হয়েছে।

Home work

নিচে যে কয়েকটি বাক্যের উদাহরণ দেয়া হল তা থেকে ইসমের অবস্থা-state, বচন সংখ্যা-number, লিঙ্গ gender, প্রকার type, হুরুফ huroof, মুদাফ possessions এবং সিফাত descriptions কি হতে পারে?

উত্তর মন্তব্যের কলামে রাখতে পারেন। ধন্যবাদ।

সপ্তম পর্ব আসছে >

(পঞ্চম পর্ব)  ( চতুর্থ পর্ব)  (তৃতীয় পর্ব )   (দ্বিতীয় পর্ব )    (প্রথম পর্ব)

২ comments

  1. 1
    শামস

    সিরিজটা খুব কাজের, শেষপর্যন্ত চালিয়ে নিবেন।

    ধন্যবাদ সিরিজটির জন্য।

    1. 1.1
      মহিউদ্দিন

      ভাই , পাঠ ও মন্তব্যের জন্য আপনাকে অশেষ ধন্যবাদ।
      আমার প্রত্যাশা ছিল সদালাপের পাঠকদের মাঝে যাদের আরবিতে দখল আছে তারা হয়তো কিছুটা সম্পুরক তথ্য রাখবেন।   সে যাক  চিন্তার কারণ নাই চেষ্টা করব শেষ পর্যন্ত চালিয়ে যেতে ইনশাল্লাহ। এখনও অনেক বাকী  দোয়া করবেন রমজান মাসে হয়তবা বিরতি দিতে হতে পারে। ভাল থাকেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.