«

»

Jun ০৩ ২০১৫

একুরিয়ামে অস্কার মাছ পালন

অস্কার মাছকে একুরিয়ামের সবচেয়ে বুদ্ধিমান প্রাণী হিসেবে বলা হয়ে থাকে। এই মাছের স্মৃতিশক্তি অনেক প্রখর হয়ে থাকে যার কারনে তাদেরকে বিভিন্ন ধরনের ট্রিক ও খেলাধুলা শিখানো যায়। একুরিয়ামের প্রাণীদের মধ্যে খুব সামান্যই আছে যাদের দ্বারা এসব সম্ভব। অস্কার সাধারনত অন্য কোন মাছের সাথে না পালন করাই ভালো। একটি একুরিয়ামে শুধুমাত্র অস্কার রাখতে পারলেই সবচেয়ে ভালো হয়। এছাড়াও অস্কার রাখার জন্য যথেষ্ট বড় জায়গা এবং যথেষ্ট পরিমানে পানি লাগে। কেন অস্কার মাছ অন্য মাছের সাথে পালা উচিৎ না এবং কেন তাদের জন্য বেশি জায়গা লাগে সে সম্পর্কে একটু পরেই আলোচনা করছি।

26E3B46641954FC1AA57C50E465C1343

 

অস্কারের বৃদ্ধি ও পানির অবস্থাঃ

প্রথমত একটি জিনিস মনে রাখতে হবে যে অস্কার মাছ খুব দ্রুত বড় হয়। সাধারনত ৩-৫ ইঞ্চির মত লম্বা অস্কার কিনলে মাত্র ১ বছরের মধ্যে খুব সহজেই তা ৮ ইঞ্চি বা তার থেকেও লম্বা হয়ে যায়। অর্থাৎ এই সময়ে অস্কারের আকার ছোট আকারের একটি ডিনার প্লেটের মত হয়ে যাবে! অস্কার নিয়ে আরেকটি সমস্যা (বা সুবিধা) হল যে তারা প্রচুর খাবার খায়। এরা মূলত মাংসাশী প্রজাতির মাছ। প্রচুর পরিমানে খাবার খাওয়ার কারনে তারা একই সাথে প্রচুর পরিমানে মল ত্যাগও করে। এজন্য একুরিয়াম খুব দ্রুত অপরিচ্ছন্ন হয়ে যায় ও পানি নোংরা হয়ে যায়। তাই অস্কার মাছের রক্ষণাবেক্ষণ অন্যান্য মাছের তুলনায় বেশ কষ্টকর। পানি নোংরা হওয়া হেকে বাঁচানোর জন্য সাধারনত সপ্তাহে এক/দুইবার পানি আংশিক পরিবর্তন করতে পারলে ভালো হয়। অর্থাৎ একুরিয়ামের সম্পূর্ণ পানি পরিবর্তন না করে উপরের দিকের কিছু পরিমানে পানি ফেলে দিয়ে নতুন পানি দেওয়া যায়। এছাড়াও পানি পরিবর্তনের পর পানিতে একুরিয়াম ব্লু মিশ্রিত করে বাতাস দেওয়ার পাম্প ব্যাবহার করলে আর কোন সমস্যা থাকে না। একুরিয়ামের ব্লু মূলত একুরিয়ামের ময়লাকে ভারি করে ফেলে যার সেগুলো একুরিয়ামের নিচের দিকে পড়ে যায়। ব্লু এর কারনে পানি কিছুটা নীল দেখায় তবে একুরিয়াম এয়ার পাম্প ব্যাবহার করলে কিছু সময়ের মধ্যেই পানি আবার স্বচ্ছ পরিষ্কার হয়ে যাবে। অস্কার মাছের জন্য পানির অবস্থা ভালো হতে হয়। তা না হলে তাদের মেজাজ মর্জি খুব একটা ভালো থাকে না এবং তাদের শরীরের রং এর মানও খারাপ হয়ে যাওয়া শুরু করে। এছাড়াও আস্তে আস্তে তাদের খাওয়াতেও অরুচি এসে পড়ে। পানি যাতে দ্রুত নোংরা না হয়ে যায় সেজন্য বড় একুরিয়ামে বেশি পরিমানে পানি থাকলে ভালো হয়।
এখান থেকে আমরা মোটামোটিভাবে বুঝতে পারছি কি কারনে অস্কার মাছ বড় স্থানে বেশি পানিতে পালন করা উচিৎ। মূলত তাদের দ্রুত বৃদ্ধি, বড় শারীরিক আকার এবং প্রচুর পরিমানে খাবারের প্রবনতার জন্যই তাদেরকে বড় স্থানে পালন করা উচিৎ।

 

অস্কারের খাবারঃ

অস্কার সম্পর্কে বেশিরভাগ সময়ে সবচেয়ে মজার ব্যাপার যেটা অন্যান্য একুরিয়াম প্রাণীদের মধ্যে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায় না সেটা হল – অস্কার মাছকে হাতে ধরে খাওয়ানো যায়! একুরিয়ামের খুব কম প্রাণীদেরকেই এভাবে হাতে ধরে খাওয়ানো সম্ভব। অস্কার মাছ মানুষের হাতের আঙ্গুলের ফাক দিয়ে খাবার নিয়ে যায়। অস্কার মাছেরা তাদেরকে কি খাওয়ানো হয় তা নিয়ে খুব একটা চিন্তিত থাকে না। তাদেরকে যা খাওয়ানো হয় আরা তাই খায় যদি তা খাওয়া সম্ভব হয়! এই কারনে তাদেরকে যথেষ্ট ভিটামিন সমৃদ্ধ খাবার দিতে হয় যাতে তাদের বৃদ্ধি ঠিকমতো হয় এবং অসুস্থ না হয়ে পড়ে। এছাড়া তাদের শরীরের রং এর মানও নষ্ট হয়ে যাওয়া শুরু করে যদি যথেষ্ট ভিটামিন না পায়।

 

অস্কার এর পরিমান ও এলাকাঃ

অস্কার মাছকে অন্য কোন মাছের সাথে রাখলে সাধারনত সাধারনত তারা ওইসব মাছের প্রতি আক্রমণাত্মক আচরন করে। অস্কার নিজেদের এলাকা নিয়ে বেশ স্পর্শকাতর থাকে। অন্য কোন প্রজাতির মাছের আগমন তারা সাধারনত সহ্য করতে পারে না। তাদের মাংসাশী প্রবনতা খুব সম্ভবত এর সাথে সম্পর্কযুক্ত। সাধারনত লম্বায় ৬ ইঞ্চি হওয়ার পর পুরুষ ও স্ত্রী অস্কার জোড়া বেঁধে পানির একটি নির্দিষ্ট এলাকাকে নিজেদের হিসেবে চিহ্নিত করে বাহিরের আগন্তুক থেকে এলাকাকে রক্ষা করে।
একটি একুরিয়ামে যদি দুটি অস্কার মাছ পালন করা হয় তাহলে সাধরনত শক্তিশালী অস্কার মাছ দুর্বল মাছটির উপরে অত্যাচার চালাতে থাকে। যদি তিনটি মাছ থাকে তাহলে সবচেয়ে শক্তিশালীটি বাকি দুটি মাছের উপরে বিভিন্ন সময়ে অত্যাচার চালাবে। তবে একুরিয়ামে যত বেশি অস্কার মাছ একসাথে থাকে তত এই সমস্যার হার কমে যায়। দেখা গিয়েছে যে কমপক্ষে ৬ টি অস্কার একসাথে থাকলে তাদের বৃদ্ধি সবচেয়ে ভালভাবে হয়। ৬ টি অস্কারের গ্রুপই সবচেয়ে ছোট গ্রুপ যেখানে সবচেয়ে দুর্বল মাছটি কোন রকমের সমস্যার সম্মুখীন হয় না।
কিন্তু কেউ যদি শুধুমাত্র এক জোড়া অস্কার মাছ পালতে চায় তাহলে? তাহলে কি করবে সে। সেক্ষেত্রে খুবই ছোট অবস্থা থেকে অস্কার পালন করতে হবে। এক জোড়া অস্কার যদি একত্রে ছোট থেকে পালন করা হয় তাহলে সাধারনত এধরনের দুর্বলের উপর সবলের অত্যাচার দেখা যায় না। তবে তিনটি অস্কার মাছ একসাথে না পালাই ভালো। কারন এতে দুটি মাছ জোড়া বেঁধে আরেকটি দল থেকে বাদ হয়ে যাবে। এছাড়াও মাছ বড় হয়ে যাবার পরে যদি নতুন অস্কার একুরিয়ামে দেওয়া হয় তাহলে তাদের মধ্যে একটি আক্রমণাত্মক ভাব বজায় থাকতে পারে যার সমাধান কখনই হবে না। তার মানে একুরিয়ামে অল্প বয়সি জোড় সংখ্যক অস্কার পালতে পারলে ভালো হয়।

 

অস্কার পালনের জন্য আদর্শ স্থানঃ

অস্কারের পালার জন্য তাহলে আদর্শ জায়গা কতটুকু? মানে সোজা কথায় কতটুকু পানিতে পালন করলে অস্কার মাছ সবচেয়ে ভালো থাকবে?
এই প্রশ্নের আগে তাদের বৃদ্ধি সম্পর্কে আরও একটু বর্ণনা করার প্রয়োজনবোধ করছি।
অস্কার মাছ সাধারনত ১২ ইঞ্চির মত লম্বা হয়। তবে সর্বোচ্চ ১৬ ইঞ্চি লম্বা অস্কারও একুরিয়ামে দেখা গিয়েছে যার ওজন দেড় কেজির মত হয়। সাধারনত ৪ ফিটের একটি একুরিয়ামে ৮ ইঞ্চির মত লম্বা হয় এরা। অবশ্য এদের বৃদ্ধির ব্যাপারটা মূলত নির্ভর করে খাবার, আবহাওয়া, পানির অবস্থা এসবের উপর।
বিশেষজ্ঞরা এই কারনে মতামত দেন যে ছোট একটি অস্কারের জন্য ১০ থেকে ১৫ গ্যালন বা ৩৭ থেকে ৫৬ লিটার পানিই প্রয়োজন। কিন্তু খুব শীঘ্রই ওই একটির জন্যই ৫০ গ্যালন বা ১৮৯ লিটার পানির প্রয়োজন হবে। এক জোড়ার জন্য প্রয়োজন হবে এর দ্বিগুণ পানির। তবে অনেকের মতে প্রতিটি অস্কারের জন্য ৩০ থেকে ৪০ গ্যালন বা ১১৪ থেকে ১৫২ লিটার পানি হলেই যথেষ্ট।

কিন্তু তাহলে কি ছোট একুরিয়ামে অস্কার মাছ পালন করা যাবে না? অবশ্যই যাবে!

ছোট একুরিয়ামে এই মাছ পালন করে এদের বৃদ্ধিও যথেষ্ট পরিমানে করা সম্ভব। কিন্তু ছোট স্থানে কম পানি খুব দ্রুত নোংরা হয়ে যাবে। যার কারনে নিয়মিত পানি পরিষ্কার করতে হবে যা অত্যন্ত পরিশ্রম সাপেক্ষ। এছাড়াও তুলনামূলক কম পানি এবং ছোট জায়গা তাদের জন্য এক প্রকারের জেলখানায় পরিনত হবে। ছোট স্থানে বা কম পানিতে তারা নড়াচড়া কম করতে পারবে। ফলে মাছের মান আস্তে আস্তে খারাপ হয়ে যাওয়া শুরু করবে। মাছের রং এবং মানসিক অবস্থার উপরে এই ব্যাপারটি অনেক বড় প্রভাব ফেলবে। এই অবস্থায় প্রজনন পরবর্তী বংশধরেরও (যদি হয়) মান খুব একটা ভালো হওয়ার কথা নয়। তাই অন্তত মাছটির প্রতি দয়া করে হলেও এর পরিবেশের দিকে আমাদের খেয়াল রাখা উচিৎ হবে।

তাহলে কি ছোট একুরিয়ামে অস্কার পালা উচিৎ হবে না?

এই সমস্যার খুবই সহজ একটি সমাধান আছে। অস্কার খুব ছোট বয়স থেকে পালন শুরু করা যায়। একটা নির্দিষ্ট সময় পর যখন দেখা যাবে যে মাছ একুরিয়ামের তুলনায় বড় হয়ে গিয়েছে তখন একে বিক্রি করে দিয়ে অথবা একুরিয়ামের দোকানে গিয়ে পরিবর্তন করে নতুন ছোট আকারে অস্কার নিয়ে আসা যায়। এভাবে করে আর্থিকভাবেও লাভবান হওয়া সম্ভব। ছোট অবস্থায় অস্কার মাছ কিনে বড় করে বিক্রি করে নতুন ছোট অস্কার ক্রয়। বাকি যা থাকে সেটা লাভ হিসেবে থেকে যাবে।

 

>>>>>লেখাটি পূর্বে প্রকাশিত হয়েছিল এখানে<<<<

 

তথ্যসূত্রঃ
১) http://www.oscarfishlover.com/tank-setup
২) http://www.firsttankguide.net/oscar.php
৩) http://www.aquariumfish.net/…/cichlids_neotropic…/oscars.htm
৪) http://aquariuminfo.org/oscar.html

৬ comments

Skip to comment form

  1. 2
    ইমরান হাসান

    আজকাল কি অস্কার মাছ পোষা হচ্ছে নাকি ?  যাই হোক কিছুটা পড়লাম ভালো লাগলো । 

    1. 2.1
      পাভেল আহমেদ

      একুরিয়ামে মাছ তো অনেক আগে থেকেই পালি তবে না, অস্কার মাছ পোষা হচ্ছে না! 😛

      একজনের প্রয়োজনে লিখেছিলাম লেখাটা। তো ভাবলাম যে কষ্ট করে যেহেতু লিখেই ফেলেছি সেহেতু সদালাপেও একবার পোস্ট করে দিই!! 😀

      সর্বশেষ পোস্টের পরে বেশ কয়েক মাস হয়ে গেছে তো তাই!!! :3

    2. 2.2
      ইমরান হাসান

      তা ভালো করেছেন । আসুন সুস্থ ব্লগিং করি এবং সকল কিছুর মধ্যে ভালো জিনিস কে ছড়িয়ে দেই । 

      1. 2.2.1
        পাভেল আহমেদ

        ধন্যবাদ! 🙂

        আমিও চিন্তা করছিলাম যে মাঝে মাঝে কন্ট্রোভারসি ছাড়াও কিছু লেখা পাবলিশ করা উচিত!! 😛

        তাছাড়াও এই লেখা পড়ে হয়তো কারও কারও উপকারও হতে পারে!!! 😀

  2. 1
    শামস

    অস্কারের স্মৃতিশক্তিতো দেখছি গোল্ডফিশ এর উল্টো!

    1. 1.1
      পাভেল আহমেদ

      তা আর বলতে! 😛

Leave a Reply

Your email address will not be published.