«

»

Jan ০৩

ডারউইনের বিবর্তনবাদ থেকে মনুষ্যত্বের অবমাননাকারী বর্ণবাদী ইউজেনিক্স-এর প্রসার (২য় অংশ)

১ম পর্ব২য় পর্ব

Photobucketইউজেনিক্সের সফল প্রয়োগকারী ছিলেন হিটলার। শুধু হিটলারের জার্মানীই নয় আধুনিক সভ্যতার ধারক দেশগুলিতেও ইউজেনিক্স প্রসার পায় ব্যাপকভাবেই, যা এক অর্থে করুণ। সভ্যতাকে টিকেয়ে রাখতে হলে দুর্বলের প্রতি অমানবিক হতে, তাদের নিশ্চিহ্ন করে দিতে পারলেই যেন সভ্যতা নিষ্কন্টক হয়! [১]

হিটলারের নাজী জার্মানীর পর ইউজেনিক্স দ্বারা সবচেয়ে বেশী প্রভাবিত প্রতিষ্ঠানটির নাম সুইডেনের সোসাল ডেমোক্রেটিক পার্টি [২]। দলটি আবার গোঁড়া মার্ক্সিজম এরও অনুসারী। সুইডেনে ৪০ বছর যাবৎ প্রায় ৪০ হাজার লোককে বন্ধ্যাকরণ করা হয়। ১৯৭৬ সালে সুইডিশ পত্রিকা ড্যাগেন ন্যাইহেটার এ প্রকাশিত না হলে তা অজানাই থেকে যেত। সুইডিশ বিজ্ঞানীদের প্রত্যক্ষ সমর্থনেই সংঘটিত হয়েছিল এই বন্ধ্যাকরণ।

'ওয়ার অব দ্যা ওয়ার্ল্ডস' এর মত জনপ্রিয় কল্পকাহিনীর লেখক এইচ.জি. ওয়েলস ইউজেনিক্সকে জনপ্রিয় করতে বিশেষ ভূমিকা রাখেন। উল্লেখ্য এই বই এর উপর ভিত্তি করে টম ক্রুজ অভিনীত হলিউডের একটি ছবি বছর কয়েক আগে মুক্তি পায়। এইচ জি ওয়ালেস ১৯২৮ সালে মেনিফেস্টো 'দ্যা ওপেন কন্সপাইরেসী (The Open Conspiracy)' তে মান-নিয়ন্ত্রিত সংকরায়নের পক্ষে মত দেন। বিখ্যাত বৃটিশ লেখক জর্জ বার্নার্ড শ' হিটলারেরর অসহায় ও মানসিকভাবে বিকলাঙ্গদের হত্যাকাণ্ডকে সমর্থন করতেন। বামপন্থী ঘরনার এই বিশিষ্টজন স্ট্যালিনের সাথে সাথে হিটলারের প্রতি ব্যক্ত করেছিলেন প্রত্যক্ষ সমর্থন [৩]। উল্লেখ্য যে, হিটলারের নাজী সংগঠনটি "ন্যাশনাল সোস্যালিস্ট ওয়ার্কার্স পার্টি" বা "জাতীয় সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক সংগঠন" নামে পরিচিত।

নিউইয়র্কে কোল্ড স্প্রিং হারবর গবেষণাগারের প্রতিষ্ঠাতা চার্লস ডেভেনপোর্ট যুক্তরাষ্ট্রে ইউজেনিক্স মতবাদের প্রচারে আত্ননিয়োগ করেন। আর তার এই গবেষণাগারে অবাধে টাকা ঢালতেন নামকরা সব ব্যক্তিরা, তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল জন. ডি. রকফেলোর, এন্ড্রু কার্ণেগী এবং হারিম্যান পরিবার। এ গবেষণাগারে মানুষের উপর ইউজেনিক্স এর ব্যবহারিক প্রয়োগের ব্যাপারে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হতো। চার্লস ডেভেনপোর্ট ১৮৯৯ সাল পর্যন্ত শিক্ষকতা করেন এর পরপরই শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয়ে স্হানান্তরিত হন। অবশ্য এর আগেই তিনি লং আইল্যান্ড এর কোল্ড স্প্রিং হারবর এ কার্নেজী ইনস্টিটিউট'স অব জেনেটিক্স ও বিবর্তন বিষয়ে গবেষণাগার প্রতিষ্ঠা করেন। অন্যদিকে রকফেলার জার্মানীর "কাইসার ওয়েইহেলম প্রতিষ্ঠান"কে ইউজেনিক্স এর প্রসারের জন্য উদারহস্তে দান করতেন এবং নাজী সংগঠনের উপর প্রভাব বিস্তার করেন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট উড্রো উইলসন সর্বপ্রথম অমানবিক জন্মশুদ্ধিকরণ আইন পাশ করেন। এই আইন সমাজের অপাংক্তেয় বিশেষ করে মানসিকভাবে অসুস্হ, কম আইকিউ সম্পন্ন লোক, এমনকি বিকলাঙ্গ শিশুদের উপর প্রয়োগ করা হয়। এই সময় কালেই অষ্ট্রেলিয়া-কানাডাতেও এর প্রভাব পড়তে থাকে। ১৯১০ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় 'যুক্তরাষ্ট্র ইউজেনিক্স রেকর্ড কেন্দ্র'।

তাছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের আইনজীবী, নৃতত্ত্ববিদ ম্যাডিসন কনরাড বিখ্যাত হয়ে আছেন 'দ্যা পাসিং অব দ্যা গ্রেট রেস (The Passing of the Great Race)' বইটার জন্য। এই বইটিকে হিটলার তার বাইবেল নামে অভিহিত করেন। পিছিয়ে ছিলেন না নারীবাদী ইউজেনিস্ট মার্গারেট সানগার। তিনি যে শুধু এইচ.জী. ওয়েলসের উত্তম সহকর্মী ছিলেন তা-ই নয়, তিনিই প্রথম জন্মনিয়ন্ত্রণ ক্লিনিক খোলেন যা অবশেষে পরিকল্পিত পিতৃত্ব নামে খ্যাতি লাভ করে। আর এর মূল অর্থ যোগানদাতা সেই রকফেলার।

ইউজেনিক্স এর প্রথম আন্তর্জাতিক সন্মেলন হয় ১৯১২ সালে আর তাতে সভাপতিত্ব করেন বিবর্তনবাদের প্রতিষ্ঠাতা ডারউইনের ছেলে লিওনার্দ ডারউইন [৪]। অনুষ্ঠানটা উৎসর্গ করা হয় ডারউইনের চাচাত ভাই ও ইউজেনিক্স এর প্রতিষ্ঠাতা স্যার ফ্রান্সিস গাল্টনকে। এতে উপস্হিত ছিলেন জর্জ বার্নার্ড শ’, বৃটিশ সোস্যাল ডেমোক্রাট নেতা সিডনী ওয়েব ও কানাডা থেকে টমি ডগলাস, লেখক এইচ. জি. ওয়েলস, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট উড্রো উইলসন, রুজভেল্ট, স্যার উইস্টন চার্চিল এবং আরো অনেক নামকরা ব্যক্তিরা। উল্লেখ্য, লিওনার্দ ১৯১১ থেকে ১৯২৮ সাল পর্যন্ত বৃটিশ ইউজেনিক্স সোসাইটির চেয়ারম্যান ছিলেন [৫]। ডারউইনের আরেক ছেলে জর্জও [৬] ইউজেনিক্স আন্দোলনে সক্রিয় ভূমিকা রাখেন।

Photobucket

আর দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক সম্মেলন হয় নিউইয়র্কে ১৯২১ সালে। তারবার্তা উদ্ভাবনের জনক বিজ্ঞানী আলেকজান্ডার গ্রাহামবেল ছিলেন এর সম্মানিত প্রেসিডেন্ট। এতে ল্যাটিন আমেরিকার দেশ মেক্সিকো, কিউবা, ভেনিজুয়েলা, উরুগুয়ে এবং এশিয়ার জাপান, ভারত ও সিয়াম থেকেও প্রতিনিধিরা জড়ো হয়। আর প্রধান আলোচ্য বিষয় ছিল উন্নত বংশধারা ধরে রাখার জন্য 'অনুপোযুক্ত'কে নিশ্চিহ্ন করে দেয়া। ইউজেনিক্সের তৃতীয় আন্তর্জাতিক সম্মেলন হয় নিউইয়র্কে ১৯৩২ সালে আর এর সভাপতিত্ব করেন চার্লস ডেভেনপোর্ট।

ইউজেনিক্স দ্বারা প্রভাবিত হয়েই যুক্তরাষ্ট্রে ১৯২৪ সালে অধিকাংশ রাজ্যে অভিবাসন আইন পাশ করে যার দ্বারা যেসব দেশে 'নীচ প্রজাতির' মানুষের সংখ্যাধিক্য বেশী, যেমন: দক্ষিণ ইউরোপ ও এশিয়া সেসব দেশে থেকে মানুষ আসার ব্যাপারে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়। প্রেসিডেন্ট কলিজ এই আইনে স্বাক্ষর করেন এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট থাকা অবস্হায় বলেছিলেন: "আমেরিকা আমেরিকান হিসেবেই থাকবে…………. জীববিজ্ঞানের আইনানুসারে অন্য জাতির সাথে মিশলে জাতিসত্তায় ভেজাল ঢুকে পড়ে [৭]।"

ইউজেনিক্স পাশ্চাত্যের সীমা ছাড়িয়ে প্রাচ্য ও প্রাতীচ্যেও প্রসার লাভ করেছিল। চীনের জীনবিজ্ঞানীদের উপর ১৯৯৩ সালে করা এক জরিপে দেখা গেছে শতকরা ৯১ জন ইউজেনিক্সকে সমর্থন করেন [৮]। জরিপে ২৫৫ জন জীনবিজ্ঞানীর অংশগ্রহণ করেন, আর তা বৃটিশ পত্রিকা নিউ সায়েন্টিস্ট-এ প্রকাশিতও হয়েছিল। (আগামী পর্বে শেষ…)

 

সূত্রঃ
১. http://www.theepochtimes.com/n2/opinion/hitler-socialism-racial-agenda-part-ii-13209.html
২. http://www.nature.com/nature/journal/v389/n6646/full/389009a0.html
৩. target=”_blank”>
৪. http://en.wikipedia.org/wiki/Leonard_Darwin

৫. http://en.wikipedia.org/wiki/Leonard_Darwin

৬. http://citation.allacademic.com/meta/p_mla_apa_research_citation/0/8/8/7/7/pages88779/p88779-53.php
৭. http://www.pbs.org/wgbh/aso/databank/entries/dh23eu.html
৮. http://news.bbc.co.uk/2/hi/asia-pacific/198555.stm

 

১৩ comments

Skip to comment form

  1. 8
    শাহবাজ নজরুল

    শামস,
     
    এই পর্ব পড়ে যার পর নাই বিস্মিত। অনেক প্রশ্নই থেকে যায় এই পর্ব পড়ার পরে। বিশেষত যে সমস্ত বিখ্যাত ব্যাক্তিবর্গের নাম দিলেন, এদের সাধারণত বিশাল ব্যাক্তিত্ব হিসেবেই জেনেছি। উদাহরণ স্বরূপ বার্নাড শ এর কথা বলা যাক। উনাকে ইতিহাসের অন্যতম বিখ্যাত নাট্যকার হিসেবেই জেনেছি। উনার নাটকের উপরে করা "My Fair Lady" সিনেমাটা বেশ ভালোই লেগেছিল। আর বার্ণাড শ এর মুহাম্মাদ (সাঃ) এর প্রতি ও ইস্লামের প্রতি সহমর্মিতা আমাদের অনেকেই উল্লেখ করে থাকেন। তাই স্বভাবতই প্রশ্ন জাগে, উনার eugenics এর প্রতি বিশ্বাসকে পুরোপুরি কীভাবে মূল্যায়ন করা যায়। পড়ে তো মনে হচ্ছে, যতটুকু জানতাম, তার চেয়ে অনেক বেশীই প্রোথিত ছিল ইউজেনিক্স। আপনার লিস্টে দেয়া রকফেলার, উড্রো-উইলসন, আর এইচ জি ওয়েলস এর নাম দেখেও আশ্চর্যান্বিত হয়েছি। অবশ্য, এখন ভেবে দেখছি, pygmallion কিংবা Time Machine এ সামান্য স্কেলে হলেও সমাজের মধ্যে শ্রেণীপ্রথার কথা লেখকরা বলেছেন, যা হয়ত তাদের ইউজেনিক্সে বিশ্বাস থেকে এসেছে। pygmallion এ Elija Dolittle কে Prof. Higgins উচ্চ শ্রেণীর Lady তে পরিণত করার চেষ্টা করেন। আর টাইম মেশিনেও সময় পরিভ্রমণের পরে শ্রেণীভিত্তিক সমাজ ব্যবস্থা দেখা যায়।
     
    আর ডারুইন পরিবার ও তার কাজিন স্যার(???) গাল্টু মনেহয় এই প্রজেক্টের পুরোধা ছিলেন সবসময়। অথচ দেখেন ডারুইন-কে বাংলা দোসররা ইতিহাসের শ্রেষ্ঠ বিজ্ঞানী বানিয়েছেন, পালন করছেন তার জন্মদিন। এখন সন্দেহ হয় ডারুইন হয়ত, eugenics স্থাপিত করতেই বিবর্তনবাদ আবিসষ্কার(??) করেছিলেন।
     
    --শাহবাজ

    1. 8.1
      শামস

      এখন সন্দেহ হয় ডারুইন হয়ত, eugenics স্থাপিত করতেই বিবর্তনবাদ আবিসষ্কার(??) করেছিলেন।

      এটা ইউরোপিয়ানরা অনেক আগে থেকেই করেছে। উইকিপেডিয়াতে আরো বিস্তারিত পাবেন। আমার লেখা 'প্লেটোর ইউটোপিয়া' পড়লেও সেই একই ধারণার প্রমাণ পাবেন। প্লেটোর মতেঃ

      ঈশ্বর মানুষ সৃষ্টি করেছেন তিনপ্রকারেঃ সর্বোত্তমরা সোনার তৈরী, দ্বিতীয় সারির লোকেরা রূপার তৈরী আর সাধারণ জনতা পিতল ও লোহার তৈরী।

      মধ্যযুগের পর ইউরোপিয়ানরা সারা পৃথিবী জুড়ে সাম্রাজ্রবাদ প্রসারে নিমগ্ন হয়। মনিব কি চাকরকে উন্নত ভাবতে পারে! রাজা বাদশারা নিজেদের স্রষ্টার প্রতিনিধি হিসেবে নিজেদের সবসময় প্রমাণ করতে চায়। কেন? কারণ সে তার কাজকে একটা বৈধতা দিতে চায়, তাতে করে মানুষের সামনে নিজের কাজকে গ্রহণযোগ্য হিসেবে উপস্থাপন করতে পারে। প্রাচীন রাজা বাদশারা  প্রজাকেন্দ্রিক ছিল না,  ফলে তাদের জবাবদিহিতা ছিল কম। সাম্রাজ্যবাদী ইউরোপিয়ানদের তাদের সাম্রাজ্যেও জবাবদিহি করতে হতো না, কিন্তু অন্তত:পক্ষে নিজের দেশে করতে হতো, আধুনিকতার বাইপ্রডাক্ট হিসেবে এই গুণটি তারা পেয়েছিল। ইউরোপীয়ানদের এই সাম্রাজ্যবাদেরও একটি বৈধতার দরকার ছিল। ডারউইনের বিবর্তনবাদের মত আর কোন মতবাদ তাদের সেই বৈধতা দিতে পারে নাই।
      ডারউইন নিজে বৃটেনের উচ্চশ্রণীর জীবণধারাকে পরিপূর্ণভাবে লালন করত। তার পরিবারও ছিল সেই রকম। ইউজেনিক্স এর প্রসারে তা পরিবার ও পরিবারের সাথে ঘনিষ্ঠ লোকদের ভুমিকা এক কথায় ব্যাপক। সেখানে ডারউইনকে এসব থেকে বিচ্ছিন্ন দেখালে বলতে হয়, তাহলে ডারউইন ছিল গোবড়ে পদ্মফুল!
       

  2. 7
    সরোয়ার

    এত কিছু ঘটনা যেখানে ডারইউনের বিবর্তনবাদ তত্ত্ব, ডারউইনের ছেলে, কাজিন, বন্ধুবান্দবসহ অনেক নামী-দামী বিজ্ঞানীরা জড়িত থাকার পরও ইউজেনিক্সকে বিজ্ঞানের খাতা থেকে নাম কেটে দেয়া হলো!! হায় আফসোস!
    ব্যস্ততার  কারণে বেশ অনিয়মিত। অনেক দিন হয়ত সদালাপে এভাবে উপস্থিত হতে হবে। শামস, আপনি প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখুন। ভালো থাকেন।
     

  3. 6
    শামস

    মানুষের শ্রেষ্ঠত্ত্ব 'সারভাইভাল অব দ্য ফিটেস্ট' দাবী করেনা; দাবী করে 'সারভাইভ ফর দ্য উইকেস্ট'।

    খুব সুন্দর বলেছেন।
    ডারউইনের বিবর্তনবাদের সাথে সাথে এর ইতিহাসকেও মানুষের জানা উচিত, তাই এই ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা।
    মন্তব্যের জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।
     

  4. 5
    এম ইউ আমান

    ভয়াবহ ব্যাপার। অহংকার, ঔদ্ধত্য, বিদ্বেষ, অজ্ঞতা সবকিছু মিলে যে খিচুড়ি তৈরী হয় তা উপাদেয় হওয়ার কথা নয়; হয়নিও। জারের সময় রাশিয়ায় ইহুদি নিয়ন্ত্রণে একবার পার্লামেন্টে (দুমা) পুরুষ ইহুদিদের খোঁজা করে দেওয়ার প্রস্তাব উত্থাপিত হয়। সেই সমসাময়িক কালে বেঙ্গলে এক কবি লিখছেন (ততদিনে তার দাড়ি সাদা হয়েছে)…   দুর্বলেরে রক্ষা করো, দুর্জনেরে হানো…
    মানুষের শ্রেষ্ঠত্ত্ব 'সারভাইভাল অব দ্য ফিটেস্ট' দাবী করেনা; দাবী করে 'সারভাইভ ফর দ্য উইকেস্ট'। 

  5. 4
    ফুয়াদ দীনহীন

    ইউজেনিক্সকে যত সাধারণ ভেবেছিলাম, তত সাধারণ ব্যাপার এটি নয়। ইউজেনিক্সের আন্তর্জাতিক সন্মেলনও হত। 

    "সুইডেনে ৪০ বছর যাবৎ প্রায় ৪০ হাজার লোককে বন্ধ্যাকরণ করা হয়। ১৯৭৬ সালে সুইডিশ পত্রিকা ড্যাগেন ন্যাইহেটার এ প্রকাশিত না হলে তা অজানাই থেকে যেত। সুইডিশ বিজ্ঞানীদের প্রত্যক্ষ সমর্থনেই সংঘটিত হয়েছিল এই বন্ধ্যাকরণ।"-শামস

    ভয়াবহ খবর, প্রতি বছর প্রায় এক হাজার করে ধরেছে, সুইডেনের জন সংখ্যা বড় জোড় ৯০-১০০ লাখ। এদের মধ্যে ৪০ হাজার, সংখ্যাটি খুব ছোট নয়। 

    "হিটলারের নাজী সংগঠনটি “ন্যাশনাল সোস্যালিস্ট ওয়ার্কার্স পার্টি” বা “জাতীয় সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক সংগঠন” নামে পরিচিত"-শামস

    এরাও দেখি সসিয়ালিস্ট। 

    "পিছিয়ে ছিলেন না নারীবাদী ইউজেনিস্ট মার্গারেট সানগার"-শামস

    নারীবাদী ইউজেনিস্ট ও আছে। ইউজেনিস্টের তাহলে ভার্শন ও আছে।

    1. 4.1
      শামস

      @ফুয়াদ,
      মার্গারেট সানগার নারীবাদী এবং সাথে সাথে ইউজেনিস্ট, বাক্যটিতে হয়ত তা পরিষ্কার হয়নি।
      পড়া ও মন্তব্য করার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

  6. 3
    সাদাত

    আগামী পর্বের পরে ইউজেনিক্স নিয়ে আমরা শীঘ্রই একটা ই-বুক দেখতে চাই।  

  7. 2
    সাদাত

    খুবই তথ্যবহুল লেখা। ভালো লাগলো। কিছু পর্যবেক্ষণ-
    লিওনার্ড বা লিওনার্দো যে কোন একটা বানান ব্যবহার করলে ভালো হয়।
    দূর্বল > দুর্বল
     জন্মশুদ্বীকরণ  >  জন্মশুদ্ধিকরণ
    দ্যা ওপেন কন্সপাইরেসী (The Open Conspricy) > ঠিক করেন
    তিনি যে [শুধু] এইচ.জী.ওয়েলসকে (ওয়েলসের) উত্তম সহকর্মী ছিলেন তাই নয়, তিনিই প্রথম জন্মনিয়ন্ত্রণ ক্লিনিক খোলেন যা অবশেষে পরিকল্পিত পিতৃত্ত্ব (পিতৃত্ব) নামে খ্যাতি লাভ করে।
    আলেকজেন্ডার গ্রাহামবেল ছিলেন এর সন্মাণিত (সম্মানিত) প্রেসিডেন্ট।

    1. 2.1
      শামস

      বানানগুলো ঠিক করলাম। তবে কিছু অসাবধানতাবশতঃ আর কিছু ভুলে গেছি। যেমনঃ জন্মশুদ্ধিকরণ ও সম্মানিত।
      পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।
       
       

  8. 1
    শামস

    অনেক চেষ্টা করেও মূল লেখায় ছবি যুক্ত করতে পারলাম না

    1. 1.1
      এস. এম. রায়হান

      সাইটে কিছু সমস্যা রয়েই গেছে মনে হচ্ছে। যেমন আগে রিপ্লাই বাটন চাপলে যে উইন্ডো আসত তাতে টাইপ করা যেত না। গতকাল বলাতে এডমিন মনে হয় সেটি সমাধান করেছেন। কিন্তু এখন দেখছি যার মন্তব্যের রিপ্লাই দিচ্ছি তার নাম রিপ্লাই উইন্ডোতে আসছে না।

      1. 1.1.1
        শামস

        @রায়হান,
        হ্যা সমস্যা ভালই রয়ে গেছে। তবে, এখানে অপারেটিং সিস্টমেরও একটা ভুমিকা আছে।
        ইন্টারনেট এক্সপ্লোরা ব্যবহার করলে রিপ্লাই'এর  এই সমস্যা হতো না, এখন হচ্ছে। কিন্তু গুগল ক্রোমে রিপ্লাই বাটন ক্লিক করলে লেখার জন্য যে স্পেস আসে তাতে লেখা যায় না। এখন সবগুলোতেই সমস্যা দেখছি।
         
         

Leave a Reply

Your email address will not be published.