«

»

Mar ২৬

চার্লস ডারউইনের বইয়ে “Breathed by the Creator” নিয়ে রিচার্ড ডকিন্সের অযৌক্তিক ও হাস্যকর ব্যাখ্যা!

চার্লস ডারউইনের "প্রজাতির উৎপত্তি" নামক বইটি অনলাইন থেকে একবার পড়েছিলাম। কিন্তু অনলাইনে যে প্রথম সংস্করণ রাখা আছে সেটা মাথায় ছিল না। কিছুদিন আগে লাইব্রেরীতে একটি বই খুঁজতে যেয়ে পাশের সেলফে বিবর্তনবাদের উপর কিছু বই নজরে পড়ে। হাতের কাছে পাওয়াতে ডারউইনের "প্রজাতির উৎপত্তি", রিচার্ড ডকিন্সের "The Greatest Show On Earth", জেরী কয়েনের "Why Evolution Is True", ও ডন নার্ডোর "The Origin of Species" বইগুলো বাসায় নিয়ে এসে পড়া শুরু করি।

ডারউইনের "প্রজাতির উৎপত্তি" বইটা পড়তে পড়তে একেবারে শেষের অনুচ্ছেদের সর্বশেষ বাক্যে যেয়ে চোখ আঁটকে যায়। মনে হচ্ছিল ভুল কিছু দেখছি না তো! সাথে সাথে অনলাইন সংস্করণের সাথে বাক্যটা মিলাতে যেয়ে গড়মিল ধরা পড়ে। ব্যাপারটা মাথায় রাখি। তখনো রিচার্ড ডকিন্সের "The Greatest Show On Earth" বইটা পড়া হয়নি। দু-এক দিনের মাথায় এই বইটাও পড়া শুরু করে দেই। পড়তে পড়তে একটা জায়গায় যেয়ে থমকে যাই। "প্রজাতির উৎপত্তি" বইটার দুটি সংস্করণে যে গরমিলটা লক্ষ্য করেছিলাম, রিচার্ড ডকিন্স সেটিকেই অ্যাড্রেস করে আবল-তাবল ব্যাখ্যা দিয়ে ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করেছেন! তবে বাংলা বিবর্তনবাদীদের কারো লেখাতে ভুলেও কখনো এই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টা উল্লেখ করা হয়নি।

পাঠকদের জন্য "প্রজাতির উৎপত্তি" বইয়ের প্রথম সংস্করণ ও পরের সংস্করণ থেকে একেবারে শেষের জটিল বাক্যটা নিচে তুলে দেয়া হলো:

There is grandeur in this view of life, with its several powers, having been originally breathed into a few forms or into one; and that, whilst this planet has gone cycling on according to the fixed law of gravity, from so simple a beginning endless forms most beautiful and most wonderful have been, and are being, evolved. [First Edition]

There is grandeur in this view of life, with its several powers, having been originally breathed by the Creator into a few forms or into one; and that, whilst this planet has gone cycling on according to the fixed law of gravity, from so simple a beginning endless forms most beautiful and most wonderful have been, and are being, evolved. [2nd to 6th Editions]

পাঠক নিশ্চয় দুটি সংস্করণের মধ্যে পার্থক্যটা ধরতে পেরেছেন। বোল্ড করা অংশে আন্ডারলাইন অংশটা লক্ষণীয়। উল্লেখ্য যে, শুধুমাত্র প্রথম সংস্করণ ছাড়া পরের পাঁচটি সংস্করণের সবগুলোতেই "By the Creator" কথাটা আছে। কথা হচ্ছে একজন লেখকের একই বইয়ের যদি একাধিক সংস্করণ থাকে তাহলে স্বাভাবিকভাবেই সর্বশেষ সংস্করণটাকেই অথেন্টিক হিসেবে ধরা হয়। কেননা সংস্করণ মানেই আগের ভুল-ভ্রান্তি সংশোধন। অথচ রিচার্ড ডকিন্স পরের সংস্করণগুলোতে "By the Creator" কথাটা এড়িয়ে যাওয়ার জন্য চালাকি করে প্রথম সংস্করণকে রেফারেন্স হিসেবে ব্যবহার করেন! ব্যাপারটা একই সাথে অযৌক্তিক ও হাস্যকর হয়ে গেছে। এ প্রসঙ্গে রিচার্ড ডকিন্সের মুখ থেকেই শোনা যাক। রিচার্ড ডকিন্স নিজেকে ডিফেন্ড করে বলেছেন-

I have lost count of the irate letters I have received from readers of a previous book, taking me to task for, as the writers think, deliberately omitting the vital phrase, 'by the Creator' after 'breathed'? Am I not wantonly distorting Darwin's intention? These zealous correspondents forget that Darwin's great book went through six editions. In the first edition, the sentence is as I have written it here. Presumably bowing to pressure from the religious lobby, Darwin inserted 'by the Creator' in the second and all subsequent editions. Unless there is a very good reason to the contrary, when quoting On the Origin of Species I always quote the first edition… Moreover, later editions, especially the sixth, pandered to more than public opinion. In an attempt to respond to various learned but misguided critics of the first edition, Darwin backtracked and even reversed his position on a number of important points that he had actually got right in the first place. So, 'having been originally breathed' it is, with no mention of any Creator. [The Greatest Show On Earth, p.403]

লক্ষ্য করুন, ডারউইনের মৃত্যুর অনেক পর এসে তাঁর মুখে কথা গুঁজে দিয়ে আগডুম-বাগডুম মার্কা ব্যাখ্যা দেয়া হয়েছে! এইটা নিঃসন্দেহে অসততা। ডারউইন নাকি ধর্মবাদীদের চাপে (?) পরের সংস্করণগুলোতে "By the Creator" কথাটা যোগ করেছেন! কিন্তু ডারউইন এইটা ধর্মবাদীদের চাপে করেছেন নাকি প্রথম সংস্করণের ভুল সংশোধন করেছেন, সেটা রিচার্ড ডকিন্স নিশ্চিত হয়েছেন কী করে?

এবার প্রথম সংস্করণের "having been originally breathed into a few forms or into one" বাক্যাংশটা যদি লক্ষ্য করা হয় তাহলে দেখা যাবে কর্তা (By the Creator) ছাড়া এই কথাটা অর্থহীন বা অসম্পূর্ণ হয়ে পড়ে। ডারউইন হয়তো এটা বুঝতে পেরে তার পরের সংস্করণে "Breathed" এর পর "By the Creator" কথাটা যোগ করেছেন। অথচ ডারউইনের ঘাড়ে বন্দুক রেখে নাস্তিক্যবাদী ধর্ম প্রচারের উদ্দেশ্যে রিচার্ড ডকিন্স অযৌক্তিক ও হাস্যকর ব্যাখ্যা দিয়ে প্রথম সংস্করণকে রেফারেন্স হিসেবে ব্যবহার করছেন!

উল্লেখ্য যে, ডারউইন নাস্তিক ছিলেন না। তবে উনি বাইবেলের সৃষ্টিতত্ত্বের ব্যাপারে সংশয়বাদী ছিলেন, আর সেই সংশয় থেকেই পুরো জীবজগতের উপর কাল্পনিক তত্ত্ব প্রস্তাব করেছেন। অথচ নাস্তিকরা তাঁকে নাস্তিক্যবাদী ধর্মের এক প্রকার 'দেবতা' বানিয়ে দিয়ে তাঁর তত্ত্বকে ধর্মের বিরুদ্ধে ও নাস্তিকতার পক্ষে ব্যবহার করছে! এবার নিচে কিছু মজা দেখুন।

চার্লস ডারউইন বলেছেন-

There is grandeur in this view of life, with its several powers, having been originally breathed by the Creator into a few forms or into one…

রিচার্ড ডকিন্স বলেছেন-

Although atheism might have been logically tenable before Darwin, Darwin made it possible to be an intellectually fulfilled atheist.

বাংলা নাস্তিকরা বলেছে [সূত্র]-

-বিবর্তন দিয়ে প্রাণীজগত থেকে ঈশ্বরের হাতকে কেটে ফেলা সম্ভব!

-বিবর্তন এই মহাজগতের ঈশ্বর/আল্লাহর অস্তিত্ব মিথ্যা প্রমাণ করেছে।

পাঠক! হাসবেন না কাঁদবেন? রিচার্ড ডকিন্স আর তার বাংলা চ্যালারা তো দেখা যাচ্ছে তাদের গুরু ডারউইনকে রীতিমতো অপমান করছে! 😛

৫ comments

Skip to comment form

  1. 5
    Wasif

    Today if Darwin alive, he must slap the so called atheists.

  2. 4
    রিজভী আহমেদ খান

    6th edition-এও "by the Creator" আছে।

  3. 3
    রিজভী আহমেদ খান

    এগুলো আমাদের আস্তিকদের বিনোদনের জন্য করা।

  4. 2
    শাহবাজ নজরুল

    বাঁশের চেয়ে কঞ্চি বড় …

  5. 1
    এস. এম. রায়হান

    আরেকটা বিষয় লক্ষ্যণীয়। ডারউইন তাঁর বইয়ে বলেছেন-

    There is grandeur in this view of life, with its several powers, having been originally breathed by the Creator into a few forms or into one

    ডারউইন অনুমানের উপর জীবজগতের কতিপয় অথবা একটি উৎসের কথা বলেছেন। অথচ রিচার্ড ডকিন্স ডারউইনের এই দাবির ব্যাখ্যা দিয়েছেন এভাবে-

    Darwin was right to hedge his bets, but today we are pretty certain that all living creatures on this planet are descended from a single ancestor. [The Greatest Show On Earth, p.408]

    রিচার্ড ডকিন্স নিশ্চিত যে, পুরো জীবজগত একটি পূর্ব-পুরুষ (ব্যাকটেরিয়া) থেকেই বিবর্তিত হয়েছে!

Leave a Reply

Your email address will not be published.